ওজন কমালে আপনার শরীর এবং ব্রেইনে কি ঘটে?      ওজন কমালে আপনার শরীর এবং ব্রেইনে কি ঘটে?

যখন আপনার ওজন কমতে থাকে, তখন আপনার ব্রেইন এবং শরীরে কি প্রভাব পড়ে?

প্রতি ১০ পাউন্ড ওজন কমানোর জন্য ৮.৪ পাউন্ড বাতাস বেরিয়ে যায় এবং বাকীগুলো আপনার শরীর থেকে ঘাম, অশ্রু, প্রস্রাব এবং অন্যান্য তরলে রূপান্তরিত হয়। ওজন কমানোর প্রক্রিয়া চলাকালীন সময়ে আপনার পুরো শরীর অনেকগুলো পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যায়। মাঝেমধ্যে আপনি অপ্রত্যাশিত ফলাফলও পেতে পারেন।

আজকে আমরা অতিরিক্ত ওজন কমানোর ফলে আপনার শরীর এবং ব্রেইনের মধ্যে কি পরিবর্তন হয় তা খুঁজে বের করেছি।  

 

১. আপনার এনার্জি লেভেল বৃদ্ধি পায়

brightside

brightside

আপনি যদি কিছু অতিরিক্ত ওজন কমান, তাহলে আপনার প্রথম যে অভিজ্ঞতা হবে তা হল আপনার কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। কারণটা বেশ সহজ- আপনার অতিরিক্ত ওজন বহন করার জন্য যে শক্তি প্রয়োজন হতো তা আপনি অন্য গুরুত্বপূর্ণ কাজ করার জন্য সংরক্ষণ করতে পারবেন। এছাড়াও, ওজন হ্রাস অক্সিজেনের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে, তাই সিঁড়ি দিয়ে উঠা বা বাস ধরার চেষ্টা করার সময় আপনার দীর্ঘশ্বাস ফেলতে হবে না। 

 

২. আপনার স্মরণশক্তি উন্নত হয়

© depositphotos.com

© depositphotos.com

ওজন কমালে আপনার ব্রেইন অনেক বেনিফিট পায়। কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে অতিরিক্ত চর্বি থেকে পরিত্রাণ পেতে পরিকল্পনা, কৌশল এবং ব্যবস্থার  সাথে সম্পর্কিত আপনার দক্ষতা বিকশিত হতে পারে। ওজন হ্রাসের পরে, নতুন তথ্য সংরক্ষণ করার সময় আপনার মস্তিষ্ক আরও সক্রিয় হয়ে ওঠে।

 

৩. আপনার ত্বক পরিষ্কার হতে থাকবে

© depositphotos.com

© depositphotos.com

আপনার ওজন-হ্রাস করার যাত্রায় অন্য আরেকটি বোনাস রয়েছে- আপনি শুধুমাত্র স্বাস্থ্য ভালো অনুভব করবেন না বরং সেইসাথে চেহারাটাও দেখতে ভালো লাগবে। যারা স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা নেতৃত্ব দেওয়ার এবং তাদের অতিরিক্ত ওজন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাদের মধ্যে অনেকের চেহারাতে অসাধারণ পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। তাদের ত্বক পরিষ্কার হয় এবং ত্বক উঠা বন্ধ হয়, তাদের চুল পুরু হয় এবং তাদের নখ শক্তিশালী হয়ে ওঠে।

 

৪. আপনার হাঁটু আর ব্যথা করবে না

© depositphotos.com

© depositphotos.com

শরীরের ওজন এক পাউন্ড হ্রাস পাওয়া মানে আপনার হাঁটুর জয়েন্টগুলোতে চাপ ৪ পাউন্ড হ্রাস পায়। এছাড়াও ওজন কমানোর ফলে বিশেষত আপনার পেটের আঠালো চর্বি, বাত রোগের উপসর্গ এবং জয়েন্টের অন্যান্য রোগের লক্ষণ কমাতে পারে। 

 

৫. আপনার এলার্জি হালকা হবে

© depositphotos.com

© depositphotos.com

অতিরিক্ত ওজন আপনার শ্বাসযন্ত্রের বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি করে এবং আপনি যদি বিভিন্ন এলার্জিতে ভোগেন এটি আপনার উপসর্গ বৃদ্ধি করে। কিন্তু আপনি পাতলা হলে আপনি হালকা এলার্জির সম্মুখীন হতে শুরু করবেন কারণ আপনার শ্বাস নালী পরিষ্কার হতে শুরু করে।

 

৬. আপনার পা ছোট হয়ে যাবে 

Kristen Bell

Kristen Bell

যখন আপনি অতিরিক্ত ওজন কমাবেন, তখন আপনি আপনার পুরো শরীর থেকে চর্বি হারাবেন এবং এতে আপনার পাও অন্তর্ভুক্ত থাকে। তাই আপনার পছন্দের জুতো যদি কিছুটা ঢিলা হয়ে যায় তাহলে মন খারাপ না করে বরং খুশি হোন। এবং আপনার আংটির আকার পরিবর্তন করতেও ভুলবেন না কারণ আপনার আঙ্গুলও পাতলা হয়ে যাবে।   

 

৭. ঠান্ডা তাপমাত্রায় আপনি আরো সংবেদনশীল হয়ে উঠবেন

 jadeasunderland

jadeasunderland

আপনি ওজন কমিয়েছেন মানে আপনি আক্ষরিকভাবে গুটানো চর্বি হ্রাস করাচ্ছেন যা আপনার শরীরে কম্বলের মতো করে রয়েছে এবং এটি আপনাকে গরম রাখে। এই অতিরিক্ত স্তর ছাড়া, আপনার শরীরের তাপমাত্রা, বিশেষত ঠান্ডা আবহাওয়ার পরিবর্তন আরও সংবেদনশীল হয়ে ওঠে।

 

৮. আপনার মাসিক চক্র পরিবর্তন হবে

© depositphotos.com

© depositphotos.com

আপনার হরমোনের মাত্রা আপনার শরীরের ওজনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে সংযুক্ত। সুতরাং আপনি যখন কিছু অতিরিক্ত চর্বি কমান বা লাভ করেন, তখন আপনার অন্ত:স্র্রাবী সিস্টেম নির্দিষ্ট পরিবর্তনগুলির মধ্য দিয়ে যায়। আপনার এস্ট্রোজেন এবং টেসটোসটের মাত্রা বৃদ্ধি এবং হ্রাস মাসিকের অনিয়ম, ভারী বা হালকা প্রবাহ এবং আপনার ঋতুচক্রের সময় ক্ষণস্থায়ী বা দীর্ঘস্থায়ী হতে পারে।         

 

৯. আপনার মাথা ব্যথা কম হবে

katiethehealthychiro

katiethehealthychiro

যদিও স্থূলতা সরাসরি মাথাব্যাথা করায় না, কিন্তু এটি ৫০% মাইগ্রেন থাকার ঝুঁকি বাড়ায়। বর্তমান স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেয় যে, চর্বি কোষ আপনার শরীরের প্রদাহের পরিমাণ বাড়ায়। নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে, এই প্রদাহ মাইগ্রেন সৃষ্টি করতে পারে। অতিরিক্ত ওজন কমানোর পরে আপনার মাথা ব্যথার পরিমাণ কমতে পারে। 

 

১০. আপনার ক্ষুধা বৃদ্ধি পাবে

© sugarandsaltdiaries / instagram   © ___junkfood___ / instagram

© sugarandsaltdiaries / instagram © ___junkfood___ / instagram

আপনি যখন ওজন কমান তখন লেপটিন মাত্রা হ্রাস পায়, আপনার ফ্যাট কোষ দ্বারা মুক্তি পায় এমন একটি হরমোন আপনার মস্তিষ্কে সিগন্যাল পাঠায়।আপনার শরীর আপনার লেপটিনের মাত্রা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করার সময় আপনার বাড়তি ক্ষুধা লাগতে পারে এবং ফ্যাটযুক্ত ও উচ্চ-ক্যালোরি সমৃদ্ধ খাবার খেতে দৃঢ় ইচ্ছা জাগতে পারে। কিন্তু আপনি তা নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করুন। 

 

১১. আপনার নাক ডাকা বন্ধ হবে

9_raven_6

9_raven_6

গবেষকরা খুঁজে পেয়েছেন যে আপনার শরীরের ওজন কমপক্ষে ৫% কমালে আপনার রাতে ভালো এবং দীর্ঘ ঘুম হতে সাহায্য করতে পারে। এমনকি এটা প্রমাণ করে যে, ওজন কমানোর ফলে আপান্র ঘাড়ের চারপাশে থাকা অতিরিক্ত ওজন হ্রাস পায় যা সাধারণত আপনার বায়ুচলাচলগুলোকে ব্লক করে এবং নাক ডাকা বন্ধ করে ঘুমের প্রকোপ বাড়ায়। 

 

আপনি কি কখনো ওজন কমানোর চেষ্টা করেছেন? আপনি কি সেই সময় ইতিবাচক বা নেচিবাচক কোন প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করেছেন? আপনার অভিজ্ঞতা আমাদের কমেন্টে শেয়ার করে জানান। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। 



জনপ্রিয়