১৩ টি খাদ্য উপাদান যা আপনার ত্বকের সজীবতা বাড়িয়ে দিবে   ১৩ টি খাদ্য উপাদান যা আপনার ত্বকের সজীবতা বাড়িয়ে দিবে

১৩ টি খাদ্য উপাদান যা আপনার ত্বকের সজীবতা বাড়িয়ে দিবে

কে না আজীবন তরুণ হয়ে থাকতে চায়? আপনার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকাতেই রয়েছে এমন কিছু খাদ্য উপাদান যা আপনার ত্বকের সজীবতা বাড়িয়ে দিবে শত গুণ এবং আপনাকে একটি নির্দিষ্ট বয়সে আটকে দিতে সহায়তা করবে। ত্বকের প্রতি যত্নশীল হলে আপনার রেফ্রিজারেটর খুলে এখনই চেক করে দেখুন এই খাদ্য উপাদান গুলো-

 

১। সবুজ সবজি

milano1968/Shutterstock

milano1968/Shutterstock

আপনার সুস্বাস্থ্যের পেছনে এই সবুজ সবজি কতটা গুরত্বপুর্ণ তা কি আপনি জানেন? এমনকি এটা আপনার ত্বকের জন্য কতটা উপকারী তা হয়ত আপনার ধারণাতেও নেই। আমেরিকান একাডেমী অফ ডার্মাটোলজির জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, সে সকল মানুষ প্রতিদিন সবুঝ শাক-সবজি গ্রহণ করে তাদের ত্বকের রুক্ষ ভাজ কম থাকে। পাতাযুক্ত সবুজ সবজি ক্যারোটিনোড, ভিটামিন-সি, লৌহ এবং ক্যালসিয়ামের বিশাল উৎস। সুর্যের আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি আপনার ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ সহ, ত্বক রুক্ষ করা এবং ত্বককে কুঁচকে দেয়ার জন্য দায়ী। এই ক্যারোটিনোড আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করে।

 

২। মাছ

ND700/Shutterstock

ND700/Shutterstock

আপনার যদি সামুদ্রিক মাছের প্রতি আগ্রহ কম থাকে তবে এখন থেকেই তা বাড়ানোর প্রতি নজর দেয়া শুরু করুন। যেহেতু সামুদ্রিক মাছ ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ, যা সুর্যের ইউ-ভি রশ্মির প্রভাবে ত্বকে যে জ্বালা-পোড়া সৃষ্টি হয় তা প্রতিরোধ করে।

 

৩। ফল

GCapture/Shutterstock

GCapture/Shutterstock

ফল আপনার স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। ফলে লাইকোপিন নামক এক ধরণের উপাদান রয়েছে যা আপনার ত্বককে সজীব রাখতে সাহায্য করে। লাল রঙের ফল যেমন টমেটো, চেরি ইত্যাদিতে এই উপাদান বেশি পাওয়া যায়।

 

৪। জলপাই তেল

Hayati Kayhan/Shutterstock

Hayati Kayhan/Shutterstock

জলপাই তেল যাকে ইংরেজিতে অলিভ অয়েল বলা হয়। গবেষণায় দেখা যায়, এই তেল আপনার হৃদ রোগের সকল ঝুঁকি কমিয়ে দেয় এবং আপনার ত্বকের জন্যও উপকারী। কিন্তু ঠিক কিভাবে? এতে, মোনোউনচার্রেটেড লিপিড ছাড়াও, অলিভ অয়েলের মধ্যে ভিটামিন ই এবং পলিফিনল যেমন অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকে, যা ত্বকে কোলাজেন (যা আপনার ত্বক কুঁচকে দেয়)  ভাঙ্গন প্রতিরোধ করতে পারে ।  

 

৫। লেজিউম

Alessio Orru/Shutterstock

Alessio Orru/Shutterstock

আপনি "লেজিউম" শব্দটির সাথে পরিচিত নাও হতে পারেন, তবে আপনি সম্ভবত এই বিভাগের অন্তর্গত খাবারগুলি যেমন মটরশুটি, মরিচ এবং ছোলার মত অনেকগুলি খাবারের সাথে পরিচিত। লেজিউমে রয়েছে পটাসিয়াম, লোহা এবং ম্যাগনেসিয়াম যা ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্য অপরিহার্য এবং অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির সাথে মিলিত হয়ে ত্বকের অকালজনিত বার্ধক্য প্রতিরোধে কাজ করে।

 

৬। কিমচি

Olga Popova/Shutterstock

Olga Popova/Shutterstock

কিমচি মুলত মশলাযুক্ত বাঁধাকপি যা কোরিয়ার জাতীয় খাবার। এই খাবার ব্রণ সমস্যা প্রতিরোধে বেশ শক্তিশালী।

 

৭। গ্রীন-টি

K321/Shutterstock

K321/Shutterstock

সম্ভবত সমস্ত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট-ধারণকারী পানীয়গুলির মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী।  গ্রীন টি স্বাস্থ্যকর পানীয়গুলির মধ্যে একটি। চিকিৎসকরা মনে করেন ত্বক সজীব রাখতে প্রতিদিন আপনার দুই থেকে তিন বার গ্রীন টি পান করা উচিত বলে ।

 

৮। কফি

Coffee

Coffee

কফিকে অনেকেই উপকারী মনে করেন না, তবে প্রতিদিন অল্প পরিমাণ কফি আপনার ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। কফি আপনার রক্তনালীর সংকোচন প্রসারণ শক্তিশালী করার পাশাপাশি রক্তের লবনাক্ততা সহ ফুসফুসের প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে।

 

৯। কাজু বাদাম

AlexGrec/Shutterstock

AlexGrec/Shutterstock

বহু গবেষণায় ত্বকের সামগ্রিক স্বাস্থ্যকে উন্নত করার জন্য যে ফ্যাট প্রয়োজন তার সেরা উত্সগুলির মধ্যে একটি বাদাম। বাদামে ভিটামিন এ, বি, এবং ই রয়েছে যা চামড়া কুঁচকানো থেকে রক্ষা করে। বাদাম আপনার ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বৃদ্ধি করে, ত্বকের কোষগুলিকে পুনরুজ্জীবিত করে উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

 

১০। হলুদ

alicja neumiler/Shutterstock

alicja neumiler/Shutterstock

চর্মরোগের বিভিন্ন ঔষধ এমনকি বিভিন্ন প্রসধনী সামগ্রীতে ইদানীং হলুদের বিপুল ব্যবহার লক্ষ্য করা যায়। গবেষকরা বিশ্বাস করেন যে এটি ত্বকের শুষ্কতা প্রতিরোধর জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান সেবুম উৎপাদন নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করতে পারে।

 

১১। বেরি

New Africa/Shutterstock

New Africa/Shutterstock

আপনি বোধহয় আচাই বেরি ফল এবং মধু ফলের নাম আগেই শুনেছেন। এরা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। এরা অক্সিডেন্টে পরিপূর্ণ থাকে। এরা কোলস্টেরল নিয়ন্ত্রণ ও মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধিতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

 

১২। দধি

Madeleine Steinbach/Shutterstock

Madeleine Steinbach/Shutterstock

বেশিরভাগ খাবারের দোকানেই একে পাওয়া যায়। দধিতে প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন বি রয়েছে। ত্বকে চিকিৎসায় বিশেষ করে ব্রণ, রোসেসিয়া, এবং চর্মরোগের জন্য দধি খুবই উপকারী।

 

১৩। কালো চকলেট

Avdeyukphoto/Shutterstock

Avdeyukphoto/Shutterstock

বলাই যায়, আজ আপনার দিনটি শুভ! হ্যাঁ, কালো চকলেট শুধুমাত্র আপনার শরীরের জন্যেই নয়, ত্বকের জন্যও বেশ উপকারী। ফ্ল্যাভনোলস, কালো চকোলেটে পাওয়া একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা ইউভি ক্ষতি থেকে চামড়া রক্ষা করতে সাহায্য করে।

 

আপনার মুল্যবান মতামত কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ। 

 



জনপ্রিয়