শীতকালীন স্বাস্থ্য সমস্যা ও সমাধান         শীতকালীন স্বাস্থ্য সমস্যা ও সমাধান

শীতকালীন স্বাস্থ্য সমস্যা ও সমাধান

শীতকালে বেশ কিছু রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। যেগুলোর মধ্যে বাতের ব্যথা, হার্ট এ্যাটাক, শুষ্কত্বক, শীতকালীন ফ্লু, গলা খুসখুস ও গলা ব্যথা অন্যতম। শীতকালীন স্বাস্থ্য সমস্যা ও পরামর্শ সম্পর্কে জানবো আজকের আয়োজনে। চলুন দেখে আসা যাক-

১. গলা খুসখুস, গলা ব্যথা

গলা খুসখুস, গলা ব্যথা

গলা খুসখুস, গলা ব্যথা

কারণঃ ভাইরাস সংক্রমণের কারণে শীতকালে এই সমস্যা প্রকটভাবে দেখা যায়।

পরামর্শঃ কুসুম গরম পানিতে পরিমাণ মতো গরম পানি মিশিয়ে গড়গড় করলে এই সমস্যায় উপকার পাওয়া যায়। তবে, গলা ব্যথার সাথে জ্বর হলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

২. হাঁপানি

হাঁপানি

হাঁপানি

কারণঃ শীতল আবহাওয়ার কারণে এই ঋতুতে হাঁপানির সমস্যা বৃদ্ধি পায়।

পরামর্শঃ খুব বেশি প্রয়োজন না হলে হিমশীতল বাতাসে বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকুন। একান্তই প্রয়োজন হলে বাইরে বের হওয়ার আগে মাফলার ও স্কার্ফ দিয়ে নাক ও মুখ ঢেকে নিন এবং অবশ্যই ইনহেলার সাথে রাখতে ভুলবেন না।

৩. বাতের ব্যথা

বাতের ব্যথা

বাতের ব্যথা

কারণঃ সাধারণত শীতকালে আরথ্রাইটিসে আক্রান্ত রোগীদের হাড়ের গিটগুলোতে ব্যথা বেড়ে যায়।

পরামর্শঃ নিয়মিত শরীর চর্চা করলে এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব। এতে করে আপনার দেহ মন উভয়ই ভালো থাকবে।

৪. হার্ট এ্যাটাক

হার্ট এ্যাটাক

হার্ট এ্যাটাক

কারণঃ শীতকালে শরীরের তাপ রক্ষার জন্য হৃৎপিন্ডকে অধিক পরিশ্রম করতে হয়। ফলে রক্তচাপ বৃদ্ধি পেয়ে হার্ট এ্যাটাকের সম্ভাবনা বহুগুণে বেড়ে যায়।

পরামর্শঃ বাড়ির ভেতরের অংশ যথাসম্ভব উষ্ণ রাখতে চেষ্টা করুন। নিয়মিত ব্যায়াম বা শরীর চর্চা করুন। হঠাৎ করে কম তাপমাত্রার কোন স্থানে যাওয়া থেকে বিরত থাকুন। বাইরে যাওয়ার সময় শীতকালীন পোশাক ব্যবহার করুন।

৫. শুষ্ক ত্বক

শুষ্ক ত্বক

শুষ্ক ত্বক

কারণঃ শীতকালে বাতাসের আদ্রতা কম থাকায় ত্বকের শুষ্কতা বৃদ্ধি পায়।

পরামর্শঃ গোসলের পর ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম ব্যবহার করুন। পা ভেজানোর পর পরিষ্কার ও শুকনো কাপড় দিয়ে পা মুছে নিন। ঠান্ডা বেশি হলে অবশ্যই পা মোজা ব্যবহার করুন।

৬. শীতকালীন ফ্লু

শীতকালীন ফ্লু

শীতকালীন ফ্লু

কারণঃ অন্যান্য ঋতুর তুলনায় শীতকালে ধুলোবালি ও ভাইরাসের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে শীতকালীন ফ্লু দেখা দেয়। যা রোগাক্রান্ত শিশু ও বয়স্কদের জন্য প্রাণঘাতী হয়ে পারে।

পরামর্শঃ শিশু বা বয়স্ক কোন ব্যক্তি ফ্লুতে আক্রান্ত হলে অতি দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করুন।

আপনার মূল্যবান মতামত কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ...



জনপ্রিয়