অভ্যাস ভালো তবে বদ অভ্যাস ভালো না! অভ্যাস ভালো তবে বদ অভ্যাস ভালো না!

আমাদের কিছু বদ অভ্যাস দৈনন্দিন পারিবারিক জীবনকে তিলে তিলে বিষিয়ে তুলছে!

বলা হয়ে থাকে যে, সুখ হল একটি অস্পষ্ট শব্দ, কারণ প্রত্যেকের সুখ সম্পর্কে নিজস্ব একটা ধারণা রয়েছে। কিন্তু মনোবিজ্ঞানী এবং নিউরো সাইন্টিস্টরা এটির সাথে একমত নন। তারা আমাদেরকি কি সন্তুষ্ট করে তোলে এবং কোন বিষয়টা দুঃখিত করে তোলে সে বিষয়ে জানেন। মাঝেমধ্যে আমাদের দৈনন্দিন অভ্যাস এবং জিনিসগুলো আমাদের ভয়াবহ করে তোলে, যেগুলো আমরা লক্ষ্য করি না।

আজকে আমরা জীবনে সুখী হওয়ার জন্য আমাদের কি করা উচিৎ এবং কোন অভ্যাসগুলো জীবনে সর্বনাশ ডেকে আনছে সেই বিষয়গুলো আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি।

 

১. আমরা সবসময় বসে থাকি

brightside

brightside

বর্তমান সময়ে, আমরা বেশীরভাগ সময় বসে থাকার কাজগুলো করে থাকি। বসে থাকা যেন আমাদের জীবনের একটা সাধারণ বিষয় হয়ে উঠেছে। সারাদিন ধরে অফিসে বসে কাজ করার পর, গাড়িতে করে বাসায় ফিরি এবং বাসায় গিয়ে বসে টিভি দেখি বা বন্ধুদের সাথে চ্যাট করি। 

চলাফেরা ছাড়া, এন্ডোরিফিনের স্তর এবং অন্যান্য হরমোনগুলো সুখ কমে যাওয়ার জন্য দায়ী। প্রতিদিন ৩০ মিনিট হাঁটা বা সপ্তাহে ২বার ওয়ার্কআউট করলে আপনি চাঙ্গা এবং সন্তুষ্ট থাকতে পারবেন, আপনার জীবনে যাই ঘটুক না কেন। 

 

২. আমরা ইনডোরে পুরো দিন অতিবাহিত করি

brightside

brightside

আমরা সবাই জানি যে "বাড়ি থেকে কাজ করা" অপরিহার্যভাবে সুখের জন্য অবদান রাখে না। কিন্তু এটি দেখা যাচ্ছে যে সিনেমা, রেস্টুরেন্ট এবং অন্যান্য জায়গাগুলোর মতো জায়গায় প্রায়শই বেড়াতে গেলেও সেটা সবসময় আমাদেরকে আমাদের জীবন উপভোগ করতে দেয় না।   

কিন্তু আপনি যদি নতুন কোন অজানা জায়গায় বেড়াতে যান, তাহলে আপনার আরো ভালো লাগবে এবং আপনার আত্মমর্যাদাবোধ বৃদ্ধি পাবে। 

 

৩. আমাদের চারপাশে কি ঘটছে সেদিকে মনোযোগ দেই না

brightside

brightside

আমরা কি করি শুধুমাত্র সেটার দিকে মনোযোগ দিলেই হবে না, বরং সেইসাথে আমরা কিভাবে সেটা করছি সেদিকে মনোযোগ দেওয়াটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। উদাহরণস্বরূপ, আসুন আমরা ২টি মেয়েকে কল্পনা করি। তাদের মধ্যে একজন খুবই রেগে আছে, কারণ তাকে তার ঘর পরিষ্কার করতে হচ্ছে। তার একটি অভিনব রেস্টুরেন্টে ডেটে যাওয়ার ইচ্ছে ছিল কিন্তু তাকে কেউই আমন্ত্রণ জানাচ্ছে না। অন্যদিকে, আরেকটি মেয়ে বাসন ধুচ্ছে এবং নিজের মতো করে ঘর পরিষ্কার করার সময় পাচ্ছে দেখে অনেক খুশি।  

প্রথম জনের ক্ষেত্রে, সেই মেয়েটি একঘেয়েমি অনুভব করবে এবং দ্বিতীয় মেয়েটি আরো স্বাচ্ছন্দ্য অনুভব করবে। 

 

৪. আমরা কেবল ভোগ করছি

brightside

brightside

আমাদের জীবনকে অর্থপূর্ণ করতে, আমাদের শুধুমাত্র নিলেই হবে না বরং দিতে হবে। উদারতার কাজ আমাদের সন্তুষ্ট এবং উল্লেখযোগ্য করে তোলে। 

এছাড়াও কিছু ছোট ভালো কাজগুলো আমাদেরকে উৎসাহিত করতে পারে। যেমন- কারো জন্য উপহার কিনে দেওয়া, নোট লেখা বা দেয়ালে আঁকতে সহায়তা করা যা বিশ্বাস করাবে যে, আমাদের জীবনের একটি উদ্দেশ্য রয়েছে এবং কারও জন্য আমাদের প্রয়োজন রয়েছে। 

 

৫. আমরা অন্যদের থেকে নিজেদেরকে আলাদা করি

brightside

brightside

এমনকি ব্যক্তিস্বাতন্ত্র্য বা প্রত্যেক ব্যক্তিদেরই একটা গ্রুপের মধ্যে অন্তর্গত হওয়া প্রয়োজন। এটা শুধুমাত্র আমাদের নিকটতম বন্ধু এবং পরিবারের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখলে হবে না। আমাদের প্রত্যেককে বিভিন্ন লোকেদের সাথে সংযুক্ত হতে হবে। 

বিভিন্ন গবেষণা মতে, সবার সাথে মিশার গুণ আমাদের রোগব্যাধিকে পরাস্ত করতে সহায়তা করে। এটি আমাদের প্রেসারের মাত্রা হ্রাস করে এবং এটি আমাদেরকে আরো আত্মবিশ্বাসী করে তোলে। 

 

৬. আমরা কোনকিছু তৈরি করি না

brightside

brightside

আমাদের সৃষ্টিশীল শখ তৈরি করতে, যা অর্থ এবং খ্যাতি নিয়ে আসবে, পাশাপাশি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হবে। এটি প্রমাণিত হয়েছে যে, কোন কিছু সৃষ্টি করার প্রক্রিয়া স্ট্রেসের মাত্রা হ্রাস করে, আমাদের মেজাজ উন্নত করে এবং বিষণ্ণতার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করে।  

সৃষ্টিশীলতা বলতে শুধুমাত্র গান গাওয়া এবং পেন্টিং করাকে বুঝাচ্ছি না, এটা যেকোন বিষয়ে হতে পারে। যেমন- ফুল চাষ করা, সেয়ালের রঙ বাছাই করা, গৃহস্থালির কাজ করা এবং সেই কাজে নতুনত্ব নিয়ে আসা।  

 

সুখ এমন কোন বিষয় না যে, এটাকে লক্ষ্য অর্জন করে আনতে হবে। এটা ছোট একটা বিষয়, তাই যেকোন মুহূর্তে আপনি এটা তৈরি করতে পারেন। আপনার কি এমন কোন খারাপ অভ্যাস রয়েছে, যা আপনার সুখ অনুভব করতে বাধা দেয়? কমেন্টে আমাদের সাথে শেয়ার করে জানান। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।  



জনপ্রিয়