সবকিছুর জন্য সময় বের করার কার্যকরি টিপস সবকিছুর জন্য সময় বের করার কার্যকরি টিপস

সবকিছুর জন্য সময় বের করার কার্যকরি টিপস

বর্তমান বিশ্বে শেখার জন্য, অ্যাডভেঞ্চার অন্বেষণ করার জন্য এবং মানুষদের সাথে দেখা করার জন্য অংসখ্য বিষয় রয়েছে। কিন্তু আমরা যখন ইতোমধ্যে ব্যস্ত থাকি তখন আমরা কিভাবে সময় খুঁজে পেতে পারি?

আজকে আমরা আপনার মূল্যবান সময়কে আরো কার্যকরভাবে সংগঠিত করতে এবং প্রতিটি ঘন্টা, দিন, সপ্তাহ এবং মাসটি সর্বাধিক পেতে সহায়তা করার জন্য কয়েকটি টিপস সংগ্রহ করেছি।

 

১. আপনার পরিকল্পনা এবং নিত্যদিনের লক্ষ্য লিখে রাখুন, এমনকি আপনি যদিও নিশ্চিত হন যে আপনি সেগুলো ভুলে যাবেন না।

© Columbia Pictures

© Columbia Pictures

আপনার দৈনন্দিন কাজ, আপনি কোন বইটি পড়তে চান বা কোন মুভি দেখতে চান, কাজের প্রকল্প, বাড়ির কাজ ইত্যাদির তালিকা তৈরি করার চেষ্টা করুন।

আপনি কি কিনতে চান বা আপনার পছন্দের তালিকা তৈরি করাটা সহজ এবং দরকারি অভ্যাস। এটি আপনাকে আপনার দিনের পরিকল্পনা তৈরি করতে সহায়তা করবে এবং আপনি কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজ মিস করবেন না তা নিশ্চিত করবে।

 

২. আপনার অকার্যকর সময়টা সঠিকভাবে ব্যবহার করুন।

© Lionsgate

© Lionsgate

অকার্যকর সময় বলতে আপনার কাজগুলোর মধ্যকার নষ্ট হওয়া সময়ঃ ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করা, লাইনে দাঁড়ানো, বন্ধুদের জন্য অপেক্ষা করা ইত্যাদিকে বুঝায়। এই সময় আপনার স্মার্ট ফোনে স্টুপিড গেমগুলো খেলে সময় নষ্ট করবেন না। এটির পরিবর্তে আপনি আকর্ষণীয় বই পড়তে পারেন, একটি নতুন বিদেশি ভাষা শিখতে পারেন বা আপনার স্কেচবুকে কিছু অঙ্কন করতে পারেন।

 

৩. আপনার মূল্যবান সময় বিজ্ঞাপন দেখে নষ্ট করবেন না- আপনার প্রিয় মুভিগুলো ভাড়া না কিনে নিন অথবা অনলাইনে দেখুন।

© Bright, Kauffman & Crane Productions

আজকাল, টিভিতে বিজ্ঞাপন এত সময় নেয় যে, যার কারণে টিভি অনুষ্ঠান বা কোন সিরিজ দেড় গুণ বেশী সময় ধরে থাকে। আপনার মূল্যবান সময় বাঁচাতে চাইলে আপনি আপনার প্রিয় মুভি বা সিরিজগুলো কিনে নিতে পারেন বা অনলাইনে দেখতে পারেন। আপনি যদি তা করেন তাহলে আপনার বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপন দেখার জন্য যে সময় ব্যয় হতো তা বাঁচবে এবং সেই সময়ে আপনার অন্যান্য কাজগুলো করতে পারবেন।  

 

৪. আপনি সারাদিনে যা কিছু করেন তা লিখে রাখুন এবং সবকিছুর উপর নজর রাখুন।

© Lionsgate

© Lionsgate

একটি ছোট পরীক্ষা পরিচালনা করুন: আপনার নোটবুক সঙ্গে নিন। আপনি সারাদিনে কি করছেন এবং কোন কাজের জন্য কত সময় দিচ্ছেন বা কতটুকু সময় লাগছে তা দুই বা তিনদিন ধরে লিখে রাখার চেষ্টা করুন। আপনার দৈনন্দিন জীবনের একটি বিস্তারিত বিবরণ আপনার মূল্যবান সময় কোথায় যাচ্ছে তা বুঝতে সহায়তা করবে।

 

৫. যথাসম্ভব আপনার দায়িত্ব এবং কর্তব্য পালন করুন।

© Showtime

© Showtime

আপনার দৈনন্দিন গৃহস্থালির কাজগুলির তালিকা পর্যালোচনা করুন এবং সেগুলোর মধ্যে কতকগুলো পরিবারের অন্য সদস্যদের কাছে অর্পন করুন। যেমন- আপনার স্বামী ময়লা ফেলবে, আপনার সন্তানেরা বাড়ির সহজ এবং নিরাপদ কাজগুলো করবে।   

 

৬. সারাদিনে ৫ মিনিটের কাজটি শেষ করতে আলসেমি করবেন না।

© Gaumont

© Gaumont

কিছু কাজ শেষ করতে ১৫ মিনিটের বেশী সময় লাগে না। এই কাজের তালিকা তৈরি করুন এবং সেগুলো একই সময়ে সম্পন্ন করুন। প্রতিদিনের এই ছোট্ট কাজগুলি আপনাকে আপনার বড় লক্ষ্যগুলিতে পৌঁছাতে সহায়তা করবে।

 

৭. ক্লান্তবোধ করার পরিবর্তে নিয়মিত বিশ্রাম নিন।

© The CW

© The CW

আদর্শভাবে, প্রতি ৫০ মিনিটের কাজের জন্য আপনাকে ১০ মিনিটের বিরতি নিতে হবে এবং সপ্তাহে একদিন কেবল আপনার নিজের জন্য উৎসর্গ করতে হবে। কিন্তু বিশ্রামের এই পদ্ধতিটি আপনার জন্য না হলে, প্রতি ২০ মিনিটের মধ্যে আপনার ক্রিয়াকলাপগুলি পরিবর্তন করার চেষ্টা করুন। আপনি যদি তা করেন, তাহলে আপনি কম ক্লান্ত বোধ করবেন এবং দিনের মধ্যে আরও বেশি সময় পাবেন। মনে রাখবেন: আপনার উৎপাদনশীলতা আপনার শারীরিক শক্তির উপর নির্ভর করে। তাই বিশ্রাম এবং পুনরূদ্ধার থেকে নিজেকে বঞ্চিত করবেন না।    

 



জনপ্রিয়