গোসলের সময় আমাদের এই অস্বাস্থ্যকর অভ্যাসগুলো ভুলে যাওয়া উচিত গোসলের সময় আমাদের এই অস্বাস্থ্যকর অভ্যাসগুলো ভুলে যাওয়া উচিত

গোসলের সময় আমাদের এই অস্বাস্থ্যকর অভ্যাসগুলো ভুলে যাওয়া উচিত

আপনি হয়তো ভাবছেন গোসলের সময় আবার কি ভুল হতে পারে? ব্যাপারটা হলো আপনি যখন গোসল করেন তখন আপনার সারা শরীর পানির নিচে থাকে এবং আপনি নানা সাবান ও শ্যাম্পু ব্যবহার করেন যা আপনার ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। যেহেতু গোসল এমন কিছু যা অত্যন্ত সহজ এবং ব্যক্তিগত বলে মনে করা হয়, আমাদের খুব কমই শেখানো হয় যা কোন বিষয়গুলি ক্ষতিকারক এবং কোন অভ্যাসগুলো ভালো। 

আজ আমরা গোসল সম্পর্কে এমন কিছু ভুলের কথা বলবো যা আমরা নিয়মিতভাবে করে আসছি।

 

আপনার মুখ ধোওয়া

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

এটা আমাদের কাছে খুবই স্বাভাবিক যে গোসলের সময় মুখ ধোওয়া, কিন্তু এটা আমাদের মুখের জন্য ভালো নয়। মুখের ত্বক খুব সংবেদনশীল হয় তাই আপনার মুখের যাতে ক্ষতি না হয় তাই ঠান্ডা জল দিয়ে আলাদাভাবে মুখ ধোওয়াই ভালো।

 

আপনার পা না ধোওয়া

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

অনেকের কাছে গোসলের সময় পা না ধোওয়াটা খুব স্বাভাবিক বলে মনে হয় কারণ আপনার পা তো পানির নিচেই থাকছে। এটা একটা ভুল ধারণা, কারণ পা আপনাআপনি পরিষ্কার হয় না। আমরা হাটার সময় পায়ে অনেক জিনিস লাগে এবং পা ঘামেও। তাই পা ভালো করে ধৌত করা খুব দরকার।

 

আপনার স্পঞ্জ নিয়মিত না বদলানো

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

আমরা জানি জীবাণুরা গরম এবং উষ্ণ জায়গা পছন্দ করে যা আপনার শাওয়ারেই আছে। তাই আপনি যদি একই স্পঞ্জ মাসের পর মাস এবং বছর ব্যবহার করেন তাহলে সেই স্পঞ্জে জীবাণুর বাসস্থান হওয়া খুব স্বাভাবিক। আপনি তাদেরকে দেখতে না পারা মানে তারা সেখানে নেই এমন না। প্রতি মাসে আপনার স্পঞ্জ পরিবর্তন করুন।

 

সাবানের পাত্র ব্যবহার করা

© Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com

© Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com

আপনি যদি বার সাবান ব্যবহার করেন তবে গোসলের পর তা কোথায় রাখছেন তা চেক করুন। সাবানের পাত্র খুব ভালো জিনিস নয় কারণ এখানে ফাঙ্গাস এবং ব্যাকটেরিয়া সহজে বাসা বাঁধতে পারে। একটি তারের সাবান পাত্র কিংবা কাঁটাওয়ালা সাবানের পাত্র অনেক ভালো অপশন। আবার আপনার সাবান ভেজাও থাকবে না, এটাও একটা বোনাস।

 

লিকুইড সাবান ব্যবহার করা

© Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com

© Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com

এটার খুব ভালো সুঘ্রাণ আছে এতে কোন সন্দেহ নাই, কিন্তু আপনার ত্বক যদি সংবেদনশীল হয় তাহলে এটি আপনার বন্ধু নয়, শত্রু। তরল পদার্থের কিছু রাসায়নিকগুলি জ্বালা সৃষ্টি করতে পারে, বিশেষত সুগন্ধির রাসায়নিক পদার্থগুলি। যদি আপনার ত্বক শুষ্ক ও সংবেদনশীল হয়, তাহলে সুবাসমুক্ত তরল সাবান ব্যবহার করে বড় পার্থক্য তৈরি করতে পারে। আরেকটি বিকল্প কোন সুবাস, রঙ, বা অন্যান্য ক্ষতিকারক উপাদানগুলি ছাড়া বার সাবান ব্যবহার করা।

 

পুরনো রেজর ব্যবহার করা

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

আরেকটি খারাপ অভ্যাস যা আমাদের বেশিরভাগই করি তা হল একটি রেজার সম্পূর্ণ নষ্ট না হওয়া পর্যন্ত ব্যবহার করা। মনে আছে জীবাণুর কথা বলেছিলাম? এগুলো এখানেও বাসা বাঁধে। কিন্তু এটি আরো বেশি খারাপ, কারণ শেভ করার সময় আপনার কাটা যেতে পারে। এর ফলে জীবাণু সহজে আপনার শরীরে প্রবেশ করতে পারে। আপনি চোখে না দেখলেও তাদের কোন সমস্যা হয় না।

 

আপনার রেজর বাথরুমে ফেলে আসা

© Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com

© Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com

একই কারণে বাথরুমে রেজর রেখে আসবেন না, অর্থাৎ জীবাণু। আপনার রেজরটি বাথরুমের বাইরে যে কোন জায়গায় ঝুলিয়ে রাখুন যেখানে বাতাস চলাচল ভালো। এর ফলে প্রত্যেকবার ব্যবহারের পর তা শুকিয়ে যাবে।

 

প্রতিদিন চুল ধৌত করা

© Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com   © Depositphotos.com

© Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com © Depositphotos.com

প্রতিদিন আপনার চুল ধোয়া একটি ভাল ধারণা না কারণ ব্যাপক ধোয়া আপনার চুলকে শুকিয়ে দিতে পারে এবং শুকানোর জন্য ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য, এটি আরও তেল উৎপাদন শুরু  করবে! পরবর্তী কি হবে অনুমান করুন? তৈলাক্ত চুল। আপনার যদি এই অভ্যাস থেকে থাকে তবে মাথার তালুতে শুস্ক শ্যাম্পু দিন এবং একদিন পর পর ধৌত করুন।

 

ব্যায়ামের পর গোসল না করা

© Depositphotos.com   © Depositphotos.com

© Depositphotos.com © Depositphotos.com

আমরা কি আগে বলেছিলাম ব্যাকটেরিয়া শুস্ক এবং উষ্ণ জায়গা পছন্দ করে? ঘাম এই দুটিই উৎপাদন করে এবং ব্যাকটেরিয়া এটি খুব পছন্দ করে। দৃঢ় এবং স্বাস্থ্যকর থাকা খুবই ভালো কিন্তু ব্যায়ামের পর গোসলের জন্য কিছু সময় বের করা কোন ব্যাপারই না। আপনার খুব ভালো লাগবে এবং শরীরে সুগন্ধও থাকবে।

 

ময়শ্চারাইজার ব্যবহার না করা

© Depositphotos.com   © Depositphotos.com

© Depositphotos.com © Depositphotos.com

আপনারা ভাবতে পারেন ময়শ্চারাইজার শুধু মেয়েদের জন্য, কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ব্যল একটা ধারণা। এটা শুধু মেয়েদের জন্য নয় - এটি ত্বকের জন্য তাই এটি খুব শুষ্ক না।গোসলের পরে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা একটি ভাল ধারণা কারণ এটি আপনার ত্বকের উষ্ণতা ধরে রাখে। আবার হট শাওয়ারের পরও এটি আপনার ত্বকের উষ্ণতা ধরে রাখে।

 

গোসলের সময় করা উচিত না এরকম কোন টিপস আপনাদের কাছে আছে? যদি থাকে আমাদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়