বিস্ময়কর তথ্য যেগুলো প্রথমে আপনার বিশ্বাসের দেয়াল নড়বড়ে করে দিবে ! বিস্ময়কর তথ্য যেগুলো প্রথমে আপনার বিশ্বাসের দেয়াল নড়বড়ে করে দিবে !

বিস্ময়কর তথ্য যেগুলো প্রথমে আপনার বিশ্বাসের দেয়াল নড়বড়ে করে দিবে !

আমরা সাধারণত মনে করি আমরা আমাদের এই পৃথিবী সংক্রান্ত প্রায় সবরকমের তথ্যই জানি। কিন্তু কথায় আছে, "জানার কোন শেষ নাই"। বিজ্ঞানীরাও একমত এই কথাটির সাথে। যদিও তারা অনেককিছুই আবিষ্কার করেছেন এখন পর্যন্ত কিন্তু তবুও তারা মনে করেন যে "এখনও বহদূর..." সবকিছু জানার।

আমরা মনে করি আমরা আমাদের এই পৃথিবী সংক্রান্ত প্রায় সবরকমের তথ্যই জানি কিন্তু আজকের তথ্যগুলো জানার পর আপনার ধারনা বদলে যাবে, চলুন জেনে নিই সেসব। 

 

মাউন্ট এভারেস্ট পৃথিবীর সর্ব্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ নয় 

মাওনা কিয়া পর্বত

মাওনা কিয়া পর্বত

কী, অবাক হলেন তো? সেই ছোটবেলা হতে পড়ে আসছেন পৃথিবীর সর্ব্বোচ্চ শৃঙ্গের নাম মাউন্ট এভারেস্ট। কিন্তু হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের মাওনা কিয়া পর্বতটি আপনার এই জানার প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিচ্ছে, সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে যার উচ্চতা ৪,২০৫ মিটার। এটি মূলত একটি বিশাল আগ্নেয়াগিরি যার সিংহভাগই সমুদ্রে নিমজ্জিত। যদি সমুদ্র ভূতলে এর পাদদেশ হতে শীর্ষ পর্যন্ত দৈর্ঘ্য মাপা হয় তাহলে মাওনা কিয়ার উচ্চতা হবে ১০,২০৩ মিটার, যার ফলে পর্বতটি মাউন্ট এভারেস্ট হতে আরো ১,৩৫৫ মিটার বেশি উচ্চতা বিশিষ্ট হয়। দেখা যাক, কেউ এটিকেও জয় করতে পারে কিনা ।  

 

সবচেয়ে শুষ্কতম স্থান বিশ্বের 

এটি যে কেউই সহজে বিশ্বাস করবে, যদি বলি পৃথিবীর সবচেয়ে শুষ্কতম স্থান চিলির আতাকামা মরুভূমি যা হাজার বছর ধরে বৃষ্টিহীন কিন্তু আপনি কি জানতেন বরফের মহাদেশ এন্টার্কটিকার ম্যাকমুর্ডো ড্রাই ভ্যালি বিগত দুই মিলিয়ন বছরও বৃষ্টির মুখ দেখেনি। অবশ্য যেখানে বাতাস ঘন্টায় ৩২০ কি.মি. বেগে ছুটে, সেখানে বৃষ্টির দর্শন কীভাবেই বা সম্ভব । 

 

পৃথিবীতে খাবার পানির পরিমাণ মাত্র ৩%

বিশুদ্ধ খাবার পানির শতাংশ ৩%

বিশুদ্ধ খাবার পানির শতাংশ ৩%

যদিও পৃথিবীর মোট পানির শতকরা ৯৭ ভাগই সমুদ্র ও মহাসাগরগুলোর দখলে কিন্তু লবণাক্ততার কারণে তা পান করা যিয় না। বাকি ৩% হলো পান যোগ্য পানি যার ৭০% আসে পর্বতশৃঙ্গে জমা হিমবাহ হতে আর ২০% আছে বৈকাল হ্রদে। 

 

পুরনো মন্দির

সবচেয়ে পুরোনো মন্দির

সবচেয়ে পুরোনো মন্দির

যদিও ঈশ্বরের ধারণা অনেক প্রাচীন কিন্তু সবথেকে প্রাচীন ঈশ্বরের উপাসনলয় বলতে গবেষকরা গোবেকলি মন্দিরের নাম নেন যা দক্ষিণ তুরস্কে অবস্থিত। মন্দিরের স্তম্ভে খোদাইকৃত নকশা প্রায় এগার হাজার বছর আগের এক ধূমকেতুর সাথে সংঘর্ষের ফলে পৃথিবীর পরিবেশে তাপমাত্রার যে পরিবর্তন হয়েছিল তা নির্দেশ করে। 

 

চাঁদ পৃথিবীর অংশ ছিল 

চাঁদ পৃথিবীর অংশ ছিল

চাঁদ পৃথিবীর অংশ ছিল

সুইডিশ বিজ্ঞানীদের গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে চাঁদ একসময় এই পৃথিবীরই অংশ ছিলো। প্রায় ৪.৩৬ বিলিয়ন আগে পৃথিবীর সাথে এক মহাজাগতিক বস্তুর ভয়াবহ সংঘর্ষের ফলে চাঁদ ও বর্তমান আকৃতির পৃথিবীর সৃৃষ্টি হয়। 

 

এককোষী জীবের কীর্তি

আরকোসরাস প্রজাতি

আরকোসরাস প্রজাতি

এককোষী জীব অ্যামিবা সম্পর্কে তো কতকিছুই শুনেছি। কিন্তু মেথানোসারসিনা নামে একটি এককোষী ব্যকটারিয়ার সংখ্যাবৃদ্ধি বিলুপ্তি ঘটিয়েছিলো বেশ কিছু কীটপতঙ্গ প্রজাতির। অবশ্য আরকোসরাস জীবের উদ্ভবের জন্যও এই ঘটনাটি দায়ী ছিলো। আরকোসরাস প্রজাতি থেকেই আজকের কুমির প্রজাতির উদ্ভব হয়েছে । 

 

পৃথিবীর অন্ধকার অংশ 

পৃথিবীর অন্ধকার অংশ

পৃথিবীর অন্ধকার অংশ

এই পৃথিবীর শতকরা ৭১ ভাগ যে মহাসাগরগুলোর অধীনে, তা তো আমরা জানি। সূর্যের আলোও এই মহাসাগরগুলোর ২০০ মিটারের বেশি গভীরে যেতে পারে না। তাই বাকি অংশ থাকে অন্ধকার। এভাবে আমাদের গ্রহের একটি বিরাট অংশই চিরকাল অন্ধকারে থেকে যাচ্ছে। 

 

সময়ের তারতম্য 

যদিও কিরিটিমাটি লাইন দ্বীপপুঞ্জ আমেরিকান সামোয়া হতে মাত্র ২০০০ কি.মি. দূরে কিন্তু এদের সময়ের পার্থক্য ২৫ ঘন্টা! ধরুন আপনি রবিবার সকালেই আমেরিকান সামোয়া হতে যাত্রা শুরু করলেন লাইন দ্বীপপুঞ্জের উদ্দেশ্যে, আপনি সেখানে যখনই পৌছবেন, দেখবেন সোমবার অতিবাহিত হচ্ছে।

 

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাজটেক সাম্রাজ্যের তুলনায় পুরানো।

© sundayadelajablog

© sundayadelajablog

প্রথম ছাত্র অক্সফোর্ডে আসেন ১০৯৬ সালে, যেখানে অ্যাজটেক সাম্রাজ্যের সন্ধান পাওয়া যায় ১৩২৫ সালে। অর্থাৎ, বিশ্ববিদ্যালয়টি অ্যাজটেক থেকে প্রায় ২০০ বছর পুরানো।

 

আমরা যখন কণ কিছুর জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হই, তখন আমরা ‘পিংকি প্রমিজ’ করি। এটির মানে হল, কেউ যদি তার প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করে তাহলে তার ছোট আঙ্গুলটি কাটা যাবে।

© pixabay

© pixabay

এই সংকেতটি মূলত জাপান থেকে এসেছে। একটি প্রতিশ্রুতি করার সময়, শিশুরা তাদের ছোট আঙ্গুলগুলো সংযুক্ত করে এবং একটি নির্দিষ্ট প্রতিজ্ঞা করে, এটি প্রতিটি সংস্কৃতির মধ্যে ভিন্ন। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে, এদো সময়ের(১৬০৩-১৮৬৮) সময় দস্যুদের গোষ্ঠী তাদের আনুগত্য প্রমাণ করার জন্য তাদের ছোট আঙ্গুল কেটে ফেলা একটি আনুষ্ঠানিক ছিল। অনেক বছর পরে বাচ্চারা এটা খেলার মধ্যে দিয়ে ঐতিহ্যে পরিণত করে।

 

বৃহস্পতি ও শনিতে ডায়মন্ড বৃষ্টি হয়

© NASA

© NASA

এই বিশাল দুটি গ্যাসের বাস্তবে ডায়মন্ডের আকাশ রয়েছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন যে, বিশাল গ্রহের চাপ সহজেই কার্বন থেকে ডায়মন্ডে রূপান্তরিত হতে পারে। প্রথমত, বায়ুমন্ডলে মিথেন কার্বনে রূপান্তরিত হয়, যা হ্রাস পেয়ে কঠিন হয়ে পড়ে, ১,৬০০ কিলোমিটারের পরে গ্রাফাইটের অংশে পরিণত হয় এবং তারপর আরো ৬,০০০ কিলোমিটার পরে ডায়মন্ডে রূপান্তরিত হয়।

 

পৃথিবীতে প্রতি ব্যক্তির ১.৬ মিলিয়নেরও বেশী পিঁপড়া আছে।

© wikimedia

© wikimedia

পৃথিবীব্যাপী যারা পিঁপড়া নিয়ে গবেষণা করছেন, তারা অনুমান করছেন যে পৃথিবীতে এখন পর্যন্ত প্রায় ১-১০ কুয়াড্রিলিয়ন পিঁপড়া রয়েছে। এর মানে হল যে, প্রতি ব্যক্তির জন্য এই পোকামাকড় ১ মিলিয়নেরও বেশী পরিমাণে রয়েছে এবং তাদের মোট ভর মানবজাতির মতোই।

 

কোয়ালা হল একমাত্র প্রাণী, মানুষের মতো যার একটি অনন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্যাটার্ন রয়েছে।  

© livescience

© livescience

অ্যাডিলেড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাশিয়েজ হারেনবার্গ প্রমাণ করেছেন যে, কোয়ালা এবং মানুষের ফিঙ্গারপ্রিন্টের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। এমনকি একটি মাইক্রোস্কোপ স্ক্যানারও সেগুলো খুঁজে পায় না। তাই কোয়ালা হল একমাত্র প্রাণী, মানুষের মতো যার একটি অনন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্যাটার্ন রয়েছে।   

 

নীল আর্মস্ট্রংয়ের স্পেস স্যুট একটি ব্রা কারখানায় তৈরি করা হয়েছিল।  

© wikimedia

© wikimedia

শোনা যায় যে, চাঁদে পা দেওয়া প্রথম মানুষটির স্পেস স্যুট তৈরি করা হয়েছিল  একটি কারখানায় যেখানে DE,  দোভারে নারীদের জন্য ব্রা এবং অন্তর্বাস তৈরি করেছিল। আমরা শুধু আশা করি যে, নীল আর্মস্ট্রং স্যুট পরে আরামদায়ক অনুভব করেছিলেন।

 

কোন তথ্যটি আপনার কাছে সবচেয়ে ভালো লেগেছে আমাদের কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। আপনার আশে পাশের যে কোন ভালো কিংবা মজার ছবি যদি আমাদের মাধ্যমে পেইজে অথবা আর্টিকেলে শেয়ার করতে চান তাহলে আমাদের ফাঁপরবাজ পেইজের ইনবক্সে ছবিটি কোথায় উঠানো এবং কে উঠিয়েছেন এই তথ্য সহ মূল ছবিটি পাঠাতে পারেন, পরবর্তিতে আমরা আপনার তোলা ছবি সবার সাথে শেয়ার করব। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ



জনপ্রিয়