অবাক করে দেয়া ঘটনাগুলো ২০১৮ তেই ঘটেছিল! অবাক করে দেয়া ঘটনাগুলো ২০১৮ তেই ঘটেছিল!

অবাক করে দেয়া ঘটনাগুলো ২০১৮ তেই ঘটেছিল!

২০১৮ সালের বিদায় ঘণ্টা বাজছে অন্যদিকে ২০১৯ সালের আগমনী বার্তা বইছে। কিছু পাওয়ার খুশি আর কিছু না পাওয়ার বেদনা নিয়েই এক একটি বছর পার হয়। তো এই বিদায়ী বছরের অবদান চলুন দেখে নেয়া যাক। 

১. বিজ্ঞানীরা সৈন্যর হাতে নতুন কান গজিয়েছেন।

face2faceafrica.com

face2faceafrica.com

আমেরিকার এক জন সৈন্য গাড়ী দূর্ঘটনায় তার কান হারান। পরবর্তীতে আর্মি চিকিৎসকরা তার হাতেই কান জন্মান। এবং সার্জারি করে সেই কান তার শরীরে স্থাপন করেন। এই আবিষ্কার ভবিষ্যতে কারো দূর্ঘটনায় অঙ্গহানি হলে তা পুনরায় প্রতিস্থাপনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে আশা করা যায়।

২. মস্তিষ্ক মৃত ঘোষণার পর পুনরায় জেগে ওঠা

tyachivnews.in.ua

tyachivnews.in.ua

একটা মারাত্নক দূর্ঘটনায় আলাবামা নিবাসি ১৩ বছর বয়েসি ট্রেনটন ম্যাককিনলেকে মস্তিষ্ক মৃত ঘোষণা করা হয়। অর্থাৎ সে কোমায় চলে গিয়ে ছিল আর বাঁচানোর আর কোন সুযোগ ও ছিল না। বেশ কিছুদিন এভাবে যাওয়ার পর তার বাবা মা তার শরীরের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ গুলো দান করে দিতে চেয়েছিলেন কোন রোগীর জীবন বাঁচাতে। কিন্তু হঠাৎ তার পা নড়ে ওঠে এবং সবাই অবাক হয়ে যান। পরবর্তীতে তার মস্তিষ্কে ৩ টি অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। বর্তমানে সে সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবন যাপন করছে। 

৩. কমলা রঙের তুষারপাত

Best Life

Best Life

২০১৮ ের শুরুর দিকে ইউরোপ মহাদেশের পুর্বাঞ্চল জুড়ে কমলা রঙের তুষারপাত হয়েছিল। প্রশ্ন হলো তুষার তো সাদা তো কমলা রঙ কি করে হলো? এটা কোন রাসায়নিক বিষাক্ত পদার্থের কারণে হয় নি। মূলত দক্ষিণ আফ্রিকায় থেকে ইউরোপে ঘুর্নায়মান নিন্মচাপের ফলে সেখানকার কমলা রঙের বালি পানির কণার সাথে মিশে এই অদ্ভুত তুষার তৈরি করেছিল।

৪. ৩২ বছর পর খুনী আটক

Kas jauns

Kas jauns

ক্যালিফোর্নিয়ার গোল্ডেন স্টেটে তথাকথিত একজন সিরিয়াল কিলার ও ধর্ষণকারী যে কিনা সর্বশেষ খুনটি করেছিলে ৩২ বছর আগে ১৯৮৬ সালে। তাঁকে ২০১৮ সালের এপ্রিলের ২৫ তারিখ ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে ধরতে সক্ষম হয় সেখানকার পুলিশ। অপরাধীর নাম জোসেফ আর মজার বিষয় হচ্ছে সে নিজেই একজন পুলিশ ছিলেন। ১৯৭৪-১৯৮৬ সালের ভেতর সে কমপক্ষে ৫০ টি ধর্ষণ ও ১২ টি খুন করেছিল ক্যালিফোর্নিয়র বিভিন্ন স্থানে। 

৫. শিক্ষাবৃত্তির রাজকন্যা

http://earthtomarrakech.org

http://earthtomarrakech.org

শিক্ষাজীবনে ভালো ফল আপনাকে কত ভালো অবস্থানে নিয়ে যেতে পারে তা আপনি শাহ্‌রিয়া উইলিয়ামস কে জিজ্ঞাস না করলে আপনি জানতে পারবেন না। যুক্তরাষ্ট্রের তেনিসির এই উচ্চমাধ্যমিকের ছাত্রী টপ র‍্যাঙ্কিং এ থাকা ১৪৯ টি কলেজে ভর্তির সু্যোগ পেয়েছেন যারা সামষ্টিকভাবে মোট বাংলাদেশী অর্থে ৬০ কোটি ৮০ লাখ টাকার শিক্ষাবৃত্তি দিতে রাজী হয়েছিল। ভাবতে পারেন কত বড় অঙ্কের শিক্ষাবৃত্তি পেয়েছেন এই মেধাবী ছাত্রী?

৬. দৌড়াতে সক্ষম রোবট তৈরি

Best Life

Best Life

আমেরিকার বোস্টন ডায়নামিক্স সর্বপ্রথম ২০১৮ সালে দৌড়াতে সক্ষম এমন রোবট তৈরি করে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। তবে কবে নাগাদ এই প্রযুক্তি মানুষের কল্যাণে ব্যভার শুরু হবে সেটা এখন ও পরিষ্কার নয়।

৭. ১০,০০০ বছরের ঘড়ি

bestlife

bestlife

অ্যামাজনের সি ই ও জেফ বেজোস এ বছর আলোচিত হয়েছেন তাঁর ৪২ মিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগের জন্য। যা তিনি ১০০০০ বছরের জন্য একটি ঘড়ি নির্মাণের জন্য করেছেন। এই ঘড়িতে আগামী ১০,০০০ বছরের সময়ের হিসাব রাখবে। টেক্সাসের একটি পর্বতে এটা বসানো হবে। 

৮.  রক্তনালীর এজিং বা বয়স বৃদ্ধি কমানোর এন্টি অক্সিডেন্ট আবিষ্কার

Photo by Drew Angerer/Getty Images

Photo by Drew Angerer/Getty Images

রক্তনালীর যত বয়স বাড়বে ততই আপনি হৃদরোগ সহ অন্যন্য ভয়ানক রোগে আক্রান্ত হতে থাকবেন। এটা সত্যিই বিজ্ঞানের এক যুগান্তকারী আবিষ্কার। কলোরাডো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকগণ "MitoQ" নামের এন্টি অক্সিডেন্ট খুঁজে পেয়েছেন যা আমাদের রক্তনালীর বয়স ২০ বছর পর্যন্ত কমাতে সক্ষম। এই আবিষ্কারের ফলে মানুষের গড় আয়ু অনেক বাড়ানো যাবে বলে আশা করা যায়।

৯. বৈজ্ঞানিক উপায়ে উদ্ভাবিত মানব কোষ দিয়ে ইঁদুরের রোগমুক্তি

bestlife

bestlife

সিনসিনাটি শিশু হাসপাতালের মেডিকেল সেন্টারের চিকিৎসকরা ইঁদুরকে সম্পুর্ণ ডায়বেটিস মুক্ত করেছেন মানব শরীর থেকে বৈজ্ঞানিকভাবে তৈরি কোষ দিয়ে। এই চিকিৎসা লক্ষ লক্ষ ডায়বেটিসে আক্রান্ত মানুষের রোগমুক্তিতে মাইল ফলক হিসেবে কাজ করবে। 

১০. স্বয়ংক্রিয় গাড়ী আবিষ্কার যা ম্যাপ ছাড়া অ চলতে পারবে

bestlife

bestlife

বিশ্বখ্যাত এম আই টি বিশ্ববিদ্যালয় এমন একটি গাড়ী বানিয়েছেন যা স্বয়ংক্রিয় এবং যেকোন ম্যাপড বা আনম্যাপড রাস্তায় ই চলতে সক্ষম। অর্থাৎ কোন জিপিএস ছাড়াই এই সচালিত গাড়ী আপনাকে গন্তব্য নিরাপদে পৌঁছে দেবে। আমাদের আয়োজন যদি আপনার ভালো লেগে থাকে অবশ্যই লাইক কমেন্ট ও শেয়ার দিয়ে নতুন আরো বিষয় জানতে সাথেই থাকুন।



জনপ্রিয়