বিশ্বজুড়ে স্বৈরশাসকদের শেষ পরিণতি কেমন হয়েছিল?     বিশ্বজুড়ে স্বৈরশাসকদের শেষ পরিণতি কেমন হয়েছিল?

বিশ্বজুড়ে স্বৈরশাসকদের শেষ পরিণতি কেমন হয়েছিল?

এটা কি কখনও ভেবে দেখেছেন কেমন হবে যদি আপনি একজন স্বৈরশাসক হন এবং সব ক্ষমতা আপনার কাছে কুক্ষিগত থাকে ? আর কি লাগে? যা ইচ্ছা তা করবেন, যাকে ইচ্ছা গুম করে ফেলবেন বা মেরে ফেলবেন। কি বলেন ভালো হয় না? তবে একটা কথা মনে রাখা খুব জরুরি যে, যারা ভবিষ্যৎ স্বৈরশাসক তাঁদের উদ্দেশ্যে বলছি, স্বৈরশাসকদের শুরুটা যতটাই আনন্দের ততটাই ভয়ঙ্কর কষ্টের। ইতিহাস এমনটাই বলে, আজ পর্যন্ত যতজন ই স্বৈরশাসক ছিলেন তাঁদের বেশইরভাগ ই খুব ভয়ঙ্করভাবে মৃত্যুবরণ করেছেন। আজ আমরা এমন ই ১৫ জন স্বৈরশাসক সম্পর্কে জানবো যাদের খুব ই ভয়ঙ্কর ও দূর্ভাগ্যজনকভাবে চিরবিদায় নিতে হয়েছে।  

১৫. মুয়াম্মার গাদ্দাফি (লিবিয়া)

Internet

Internet

মোবাইল ফোনের প্রযুক্তির জন্য ধন্যবাদ যার জন্য লিবিয়ার স্বৈরশাসক গাদ্দাফির  বিদ্রোহী সৈন্যদের হাতে বন্দি ও হত্যা  বিশ্ব জুড়ে খুব সহজেই সম্প্রচারিত হয়েছিল। ভিডিওটিতে আমরা দেখতে পেয়েছিলাম কিভাবে তাঁকে নির্মমভাবে মারধর করে এক পর্যায়ে এবং তারপরে বেশ কয়েকবার গুলি করার আগে জীবিত অবস্থায় একটি তাঁর বন্দুকের সঙ্গিন দিয়ে খোঁচানো হয়েছিল এবং তাঁর পায়ুপথে লোহা ঢুকানো হয়েছিল। এখানে একটা কথা না বললেই নয় গাদ্দাফি অবশ্যই লিবিয়ার একজন অবিসংবাদিত নেতা ছিলেন অনেক বড় অবদান ছিল তাঁর এই আধুনিক লিবিয়ার গঠনে। কিন্তু পরবর্তীতে তিনি স্বৈরশাসনের জন্য জনগণের কাছে বিরক্তির কারণে পরিণত হয়েছিলেন। আর পরিণতি তো জানতে পারলেন। 

১৪. সিজার (রোমান রাজা)

Source: history.com

Source: history.com

বিশ্বাসঘাতকতা কখনোই সুখকর অনুভূতি নয়। সিজার একদিন একটা কাজে গিয়েছিলেন এবং তারপর রোমান সেনেটরদের দ্বারা তিনি ২৩ বার ছুরিকাঘাত প্রাপ্ত হন। যেখানে হত্যার জন্য  শুধুমাত্র ছুরির  ১ টি আঘাত ই যথেষ্ট ছিল। ধারণা করা হয় যে ষড়যন্ত্রকারীরা পালিয়ে যাওয়ার পরে তিনি অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে মারা যান।

১৩. হিটলার (জার্মানি)

bbc.com

bbc.com

বিশ্বাসঘাতকতা মজার বিষয় না, কিন্তু ভূগর্ভস্থ বাংকারে আপনার নিজের মাথায় নিজে গুলি করে মৃত্যু ও নিশ্চই কোন শান্তিপূর্ণ উপায় নয়।হিটলারকে বিশ্বের অনেকে নির্দয় স্বৈরশাসক হিসেবে চিহ্নিত করলেও তিনি ইহুদিদের হত্যা কেন করেছিলেন তা বিশ্বের কাছে অস্পষ্ট নয়। তবে মানুষ হত্যা অবশ্যই মানবতার পক্ষে নয়। 

১২. মুসোলিনি (ইতালি)

 telegraph.co.uk

telegraph.co.uk

ফায়ারিং স্কোয়াড কর্তৃক মুসোলিনির মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়েছিল, তার লাশের পাশাপাশি তার স্ত্রী ও অন্যান্যদের মরদেহ মিলান শহরের ইসো গ্যাস স্টেশনে হাজার হাজার মানুষের সামনে বিদ্যুতের খুঁটিতে উল্টো করে ঝোলানো হয়। উপস্থিত সকলে তাদের উপর থুথু ফেলে পাথর ছুঁড়ে মেরেছিল।

১১. স্ট্যালিন (ইউএসএসআর)

 bbc.com

bbc.com

যখন আপনি বিকৃত মস্তিষ্কের জীবনযাপন করেন এবং আপনার সমস্ত নিকটতম বন্ধুরকে হত্যা করেন, তখন আপনাকে তো একা ধুঁকে ধুঁকে মরতে হবে তাই না। ঠিক এমনটাই স্ট্যালিনের সাথে ঘটেছিল। তিনি দীর্ঘক্ষন বিশ্রাম কক্ষ থেকে বের হচ্ছিলেন না। যেহেতু তার রক্ষীরা তার বাসায় প্রবেশ করতে প্রচন্ড ভয় পেত পাশাপাশি তাঁর ঘুমের মধ্যে ডাকা সম্পুর্ণ নিষেধ ছিল তারা তার খোঁজ নিতে ও পারছিলেন না। একজন সাহস করে তাঁর কক্ষের কাছাকাছি গিয়ে দেখলেন সে মেঝেতে তার নিজের মুত্রের ওপর পড়ে আছেন। তখন ও তাঁর প্রাণ ছিল। এভাবেই কিছুদিন ধুঁকে ধুঁকে এই লৌহ মানব এবং স্বৈরশাসকের করুন মৃত্যু হয়।

  ১০. মাও জেডডং (চীন)

washingtonpost.com

washingtonpost.com

যদিও তার মৃত্যু প্রচলিত অর্থে ভয়ানক ছিল না, তবে মাও'কের  তিনটি হার্ট অ্যাটাকের মুখোমুখি হতে হয়েছিল এবং অবশেষে ৮২ বছর বয়সে মারা যান। একজন হৃদয়হীন স্বৈরশাসক তার নিজের হৃদয় দ্বারা মৃত্যুবরণ করল।

৯. রাশিয়া এর নিকোলাস II (রাশিয়া) bbc.com

bbc.com

বলশেভিক সংগঠনের ঘাতকদের দ্বারা একটি মাটির নিচে অবস্থিত কক্ষে নিষ্ঠুর স্বৈরশাসক নিকোলাস ও তার পুরো পরিবারের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। তার ছোট ছোট ছেলেমেয়ে, স্ত্রী ও চাকরদের ও তার সাথে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। 

৮. কিম ইল-সুং (উত্তর কোরিয়া)

history.com

history.com

এখানে আরেকজন হৃদয়হীন স্বৈরশাসক যিনি নিজের হৃদয়ের হাতে মারা যান। আপনি লক্ষ্য করেছেন কিনা যে স্বৈরশাসকগণের মৃত্যুর একটা প্রবণতা আছে তা হচ্ছে হয় ছুরির আঘাতে অথবা বুলেটের আঘাতে নয়ত হার্ট অ্যাটাকের  সাহায্যে। এর চেয়ে ভালো উপায়ে তাঁদের বিদায় হয় বলে জানা নেই।

৭. অগাস্তো পিনোচেট (চিলি)

nytimes.com

nytimes.com

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলির নির্দয়, বিবেকবর্জিত এক স্বৈরশাসক হিসেবে যিনি এক সময় গোটা লাতিন আমেরিকায় সামরিক দলন, নিগ্রহ, হত্যা আর অপহরণের এক কুখ্যাত প্রতীক হয়ে উঠেছিলেন, সেই আউগুস্তো পিনোচেট মারা গেলেন হার্ট এ্যাটাকে।

৬. নিকোলা সিওসেস্কু (রোমানিয়া)

bbc.com

bbc.com

যখন রোমানিয়ান লোকেরা এই স্বৈরশাসকের বিরুদ্ধে চলে গেল, তখন তার ক্ষমতা দ্রুত চলে গেল। তাকে গ্রেফতার করে এবং তাঁকে তার স্ত্রী সহ ফায়ারিং স্কোয়াড দ্বারা মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়।

৫. ইদি আমিন (উগান্ডা)

history.com

history.com

স্ট্যালিন, হিটলার বা সিজার নামের মত হয়ত তাঁর নামটি অতটা পরিচিত নয় , যদিও আমিন তার আনুষ্ঠানিকভাবে প্রায় ৩০০০০০ জনকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিলেন এবং তাঁর শাসনের  ৮ম বছরে সকল ভারতীয় ও পাকিস্তানি নাগরিককে তাঁর দেশ উগান্ডা থেকে বিতাড়িত করেছিলেন। তার সমস্ত অপরাধের জন্য তাকে সম্পূর্ণরূপে বিচারের সম্মুখীন করা হয়নি এবং তিনি আসলে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নির্বাসনে বেশ আরামদায়কভাবে বসবাস করেছিলেন। যাইহোক, তিনি শেষে কিডনি বিকল হয়ে মারা যান।

৪. আনোয়ার সাদাত (মিশর)

bbc.com

bbc.com

সামরিক কুচকাওয়াজের এক পর্যায়ে আকাশে চলছিল বিমান বাহিনীর মহড়া। সবার দৃষ্টি যখন সেদিকে, তখন মঞ্চের কাছে বিস্ফোরিত হলো দুটি গ্রেনেড। দুটি সামরিক যান থেকে একদল সৈনিক লাফ দিয়ে নামলো। কালাশনিকভ অটোমেটিক রাইফেল থেকে গুলি করতে করতে তারা প্রেসিডেন্টের দিকে দৌড়ে গেল। সেই আক্রমনে তিনি মারা যান।

৩. পার্ক চুং-হেই (দক্ষিণ কোরিয়া)

latimes.com

latimes.com

পাপ কখনো বাপকে ও ছাড়ে না। স্বৈরশাসক সিজারের মতো, কোরীয় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান  কিম জেই-গিউ যে পার্ক এর ঘনিষ্ট বন্ধু ছিলেন তাঁর হাতেই পার্ক খুন হয়েছিলেন।

২. এনভার পাশা ( অটোমান সাম্রাজ্য)

 history.com

history.com

পাশা আর্মেনিয়ান গণহত্যার জন্য সুপরিচিত। এনভারের মৃত্যুর বিষয়ে অনেক বিবরণ রয়েছে। তবে তাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষ মনে করেন তাকে গুলি করে হত্যা করা হয় এবং শিরচ্ছেদ করা হয়।

১.অলিভার ক্রমওয়েল (ইংল্যান্ড)

history.com

history.com

স্বৈরশাসক ওলিভার ক্রমওয়েল ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ১৬৫৮ সালের ৩ সেপ্টেম্বর মারা যান। এর কিছুদিন পরই রাজতন্ত্র পুনরায় প্রতিষ্ঠিত হয়। তখন তার বিচার হয়। বিচারের পর মৃত্যুদণ্ডের আদলে তার লাশ কবর থেকে তুলে পুনরায় মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়।

ক্ষমতার অপব্যবহারের শুরু ভালো হলেও শেষটা কখনো ভালো হয় না। স্বৈরশাসন যারাই করেছেন বা করতে চেয়েছেন তাঁদের মৃত্যু অনেক ভয়ানকভাবেই সম্পন্ন হয়েছে।এই আয়োজনটি কেমন লাগলো কমেন্টে আমাদের জানাতে ভুলবেন না।

 



জনপ্রিয়