মানব হিসেবে আপনি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করবেন ছবিগুলো দেখার পর... মানব হিসেবে আপনি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করবেন ছবিগুলো দেখার পর...

মানব হিসেবে আপনি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করবেন ছবিগুলো দেখার পর...

পুরো মানব শরীরটাই একটা শিল্প।যা খালী চোখে কম ই দেখা যায়। আর সবার তো অনুবীক্ষণ যন্ত্র নেই যে চাইলেই অতি ক্ষুদ্র জিনিসগুলো দেখতে পারবেন। আপনাদের এমন ১০ মানব শরীরের উপাদান দেখানো হচ্ছে যা দেখে সত্যিকার অর্থেই আপনি মানব হিসেবে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করবেনঃ-

০১. অস্থিমজ্জায় এভাবেই রক্ত তৈরি হয়

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

অস্থিমজ্জায় স্টেম সেলগুলো আলাদা হচ্ছে এবং রক্ত কণিকায় রূপান্তরিত হচ্ছে। এই পদ্ধতি অবিরত ঘটতে থাকে কারণ রক্ত কণিকাগুলো বেশিদিন বাঁচে না। লোহিত কণিকা ১২০ দিন আর শ্বেতকনিকা প্রায় ৩ দিনের মত।

২. ফুসফুসের কোষ

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

নীল অংশ হচ্ছে নিউক্লিয়াস যা কোষের জিনগত তথ্য সংরক্ষণ করে। আর হলুদ অংশ হল মাইটোকন্ড্রিয়া যা কোষে শক্তি উৎপন্ন করে।

৩. বৃক্করসের ক্রিস্টাল

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

এই বৃক্করসের সাহায্যে ফুসফুসের বায়ু পরিবহনের পথ প্রসারিত হয় এবং ক্ষুদ্র রক্তনালীদের সংকুচিত করে। যার ফলে আপনার পেশী অনেক কঠোর পরিশ্রম করতে পারে।

৪. সেরোটনিন ক্রিস্টাল

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

শরীরের ৯০% সেরোটোনিন আমাদের অন্ত্রে পাওয়া যায়। এটা আমাদের স্মৃতি, শিখা, মেজাজ, ক্ষুধা এবং নিদ্রায় গুরুত্বপুর্ণ ভুমিকা পালন করে।

৫. ব্যালেন্সিং স্টোন

http://faporbaz.me/public/assets/backend/kcfinder/upload/images/04%2813%29.jpg

http://faporbaz.me/public/assets/backend/kcfinder/upload/images/04%2813%29.jpg

এগুলো মুম্বাই এর শহর রক্ষা বাঁধ নয়। আমাদের সকলের ই কানের ভেতরে এই ক্ষুদ্র পাথর সদৃশ বস্তু রয়েছে। এরা আমাদের ইন্দ্রিয়ের ভারসাম্য রক্ষার জন্য দায়ী থাকে।

৬.  ইনসুলিন ক্রিস্টালস

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

ইনসুলিন আমাদের অগ্নাশয়ে উৎপন্ন হয়। এর কাজ হল আমাদের শরীরে সুগারের মাত্রা ঠিক রাখা। যদি কোন কারণে পর্যাপ্ত ইনসুলিন শরীরে উৎপন্ন না হয় তাহলে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে ডায়বেটিস হয়।

৭. চামড়া

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

আমাদের চামড়ার বাহিরের অংশটা যখন অণুবীক্ষণ যন্ত্রে দেখা হয় তখন ঠিক এমনই লাগে দেখতে। মূলত আপনি এই ছবির উপরের যে অংশটা দেখতে পাচ্ছেন সেখানে আমরা দেখতে পাচ্ছি কিছু মৃতকোষ। আর হলুদ যে অংশটা আপনি দেখতে পাচ্ছেন সেটা হচ্ছে একটা প্রোটিন যাকে বলা হয় কেরাটিন এটাই আমাদের চামড়া কে শক্তিশালী এবং ওয়াটারপ্রুফ করে। যার কারণে ভিতরের অংশ গুলো ক্ষতি থেকে সুরক্ষিত থাকে। আর কাল গর্তের মত যেগুলো দেখতে পাচ্ছেন সেগুলোর হলো আমাদের লোমকূপ।

৮. মেলাটোনিন

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

যখন রাত হয় তখন আপনার চোখ একটা গ্রন্থিতে বার্তা পাঠায় যেটা মেলাটোনিন উৎপন্ন করে। মূলত মেলাটোনিন হচ্ছে সেই হরমোন যেটা আমাদের ঘুমাতে সাহায্য করে। যখন মাঝ বয়স হয় তখন এই মেলাটোনিনের নিঃসরণ টা কমে যায় যার ফলে অনিদ্রা এবং খিটখিটে স্বভাব হতে পারে।

৯. চর্বির খালী কোষ

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

মানব শরীরের বৃহত্তম কোষ গুলোর মধ্যে চর্বি কোষ অন্যতম। আমাদের চামড়ার নিচে চর্বির স্তর থাকে যেটা মূলত শক্তি সঞ্চয় করে রাখে। যখন আপনি পরিশ্রম করেন তখন সেগুলো খালি হতে থাকে এবং দেখতে অনেকটা এমনই লাগে।

১০. ব্যাকটেরিওফাজ

Science Photo Library / Via Batsford

Science Photo Library / Via Batsford

ব্যাকটেরিওফাজ হচ্ছে এক ধরনের ভাইরাস যা ব্যাকটেরিয়া কে সংক্রামিত করে। এখানে আপনি মাকড়সার মতো যে বস্তুটি দেখতে পাচ্ছেন সেটি হচ্ছে ব্যাকটেরিওফাজ ভাইরাস যেটা কোন ব্যাকটেরিয়া কে সংক্রামিত করেছে। এবং সে এই‌ অতিক্ষুদ্র নীল ই কলি বাক্টেরিয়া গুলোর ভেতর তার ডিএনএ প্রবেশ করিয়ে দিয়েছে। 

আপনাদের আনন্দ দিতেই আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। যদি আমাদের আয়োজন ভালো লাগে তাহলে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।



জনপ্রিয়