এক খিলি কোহিনূর পানের দাম ৫,০০০ রুপি (বি:দ্র: এটি আপনার যৌনশক্তি বাড়াবে!) এক খিলি কোহিনূর পানের দাম ৫,০০০ রুপি (বি:দ্র: এটি আপনার যৌনশক্তি বাড়াবে!)

এক খিলি কোহিনূর পানের দাম ৫,০০০ রুপি (বি:দ্র: এটি আপনার যৌনশক্তি বাড়াবে!)

সাধারণত এক খিলি পানের জন্য আপনি কত টাকা খরচ করেন? ৫ টাকা কিংবা ১০ টাকা সবচেয়ে সাধারণ উত্তর হবে। স্পেশাল কোন পানের ক্ষেত্রে ১০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে, এর বেশি না।

source: TABLEHOPPER

source: TABLEHOPPER

 

তাহলে আপনি হয়তো "কোহিনূর পান"-এর নাম শুনেননি!

source: BOOKEVENTZ

source: BOOKEVENTZ

আরঙ্গবাদে 'তারা পান সেন্টার'-এ বিক্রি করা এই প্যনটি পাওয়ার জন্য ৫,০০০ রুপী খরচ করতে হবে!

 

তাহলে এইখানে মূল ব্যাপারটা কি?

শুধুমাত্র দম্পতিদের কাছে এই পান জোড়ায় বিক্রি করা হয়, এছাড়াও এটি কামোত্তেজক হিসেবে কাজ করে। বিক্রেতার মতে, যার প্রভাব দুইদিন ধরে চলবে।

source: EENADU India

source: EENADU India

 

এই বিশেষ পান, সাধারণত তিনটি অংশের সঙ্গে একটি রঙিন মোড়কে বিক্রি করা হয়।

source: AURANGABADI

source: AURANGABADI

 

এমনকি এই পানের বিভিন্ন সংস্করণ আছে, যা পুরুষ এবং মহিলা ভোক্তাদের জন্য আলাদা আলাদা। দোকানির দাবি, ভায়াগ্রা পানের ভিতর ‘কস্তুরী’ব্যবহার করা হয়। এক কিলোগ্রাম কস্তুরির দাম ৭০ লক্ষ রুপি। থাকে কেশরও। যার দাম কেজি প্রতি ৭০ হাজার রুপি। সেই সঙ্গে থাকে ৮০ হাজার রুপি প্রতি কেজি দামের গোলাপ। তবে এই পানের মূল মশলা হল সেই গোপন উপাদানটি, যা যৌন ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে পারে কয়েক গুণ। তবে সেই মশলা কোথা থেকে আসে, দামই বা কত, জানেন না দোকানের কোনও কর্মী। জানেন শুধুমাত্র দোকানের মালিক মহম্মদ সিদ্দিকি ও তার মা। কলকাতার বিখ্যাত 'মিঠা পান পাতা'-য় এটি মুড়ে দেওয়া হয়।

তিন দশক ধরে এই পানের দোকানটি চালাচ্ছেন মোহাম্মদ সারফুদ্দিন সিদ্দিকী। এমনকি তিনি তার দোকানের পান কুয়েত, সৌদি আরব এবং দুবাইতেও রপ্তানি করেন!

মেয়েদের জন্য বানানো এই বিশেষ পানে থাকে গোলাপ, নিরাপদ মুশালি এবং কামোত্তজক একটি মূল যার কেজি প্রায় ৬,০০০ রুপী, কম পরিমাণে জাফরান, অন্যান্য পানের মতই এটিও বিশেষ মোড়কে মুড়ে দেওয়া হয়।

source: AURANGABADI

source: AURANGABADI

 

একটি সুসজ্জিত নকশা আঁকা ডিজাইনার বাক্সে করে এই পান দেওয়া হয় ক্রেতাদের। ভেতরে পানের জন্য থাকে বিশেষ বিছানা এবং বালিশ। বাক্সের ভিতরে পান ছাড়াও থাকে কস্তুরী-সুবাসিত এক ধরনের বিশেষ আতর। 

মোহাম্মদ সারফুদ্দিন সিদ্দিকী বলেন, "বিশেষ কাজের দুই ঘন্টা আগে এটা খেতে হবে।" সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো এটি চিবিয়ে ফেলে দেওয়া যাবে না, পুরোটা গিলে ফেলতে হবে।

তিনি আরও বলেন, "কেউ পান কিনতে আসলে আমি আগে জানতে চাই তারা বিবাহিত কিনা। উত্তর হ্যাঁ হলে, তারা যা খুঁজছে তা দিয়ে দিই। উত্তর না হলেও আমি উপাদানগুলো আনুপাতিক হারে কমিয়ে দিই। আমি বিবাহ-পূর্ববর্তী বা অতিরিক্ত বৈবাহিক সম্পর্কের পক্ষে নই।"

source: History TV

source: History TV

 

শুধু কোহিনুর নয়, এই দোকানে রয়েছে আরও বাহারি নামের পান। যেমন: পানিমুন মশলা পান, রাজারানী মশলা, কোলকাতা বাদশাহি পান, কারানজি বাদশাহি পান, রাম পায়ারি পান, বেলগাম চাটনি পান, মশলা ছোট নওয়াব পান ইত্যাদি।

source: EENADU India

source: EENADU India

 

সিদ্দিকীর মা-ই এই ব্যবসার মূলে। তিনিই তার ছেলে সিদ্দিকীকে গোপন রেসিপি দিয়েছেন। সেই রেসিপি অনুসরণ করে তারা এখন ভারতজোড়া খ্যাতি পেয়েছেন। এমনকি বিদেশি অনেক অতিথিও তাদের দোকানে ভিড় জমান। 

সিদ্দিকী বলেন, "আমি বিয়ের আগে এই পান বিক্রি করি নি। আমার বিয়ের পর মা আমাকে এই পান দিয়েছিলেন। তিনি আমাকে পরামর্শ দিয়েছিলেন এটা আমার খাওয়া উচিত। তারপর যদি আমার পছন্দ হয় তাহলে আমাকে এটা বিক্রি করার জন্য বলেন।"

তারপর থেকেই এই পানের ভক্ত হয়ে যান সিদ্দিকী। তিনি এই পানকে তার দোকানের মেন্যুতে যুক্ত করেন। ফলে তার দোকানে প্রতিনিয়ত ভিড় লেগে থাকে কোহিনুর পানের জন্য।

 

তো ভারতে গিয়ে এই পান খেয়ে আসবেন নাকি? আপনাদের মন্তব্য আমাদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়