পৃথিবীর কয়েকটি সেরা শহর পৃথিবীর কয়েকটি সেরা শহর

পৃথিবীর কয়েকটি সেরা শহর

আমাদের পৃথিবীটা আসলেই অনেক সুন্দর এবং বিস্ময়কর। প্রত্যেক দেশেরই নিজস্ব একটা বৈশিষ্ট্য এবং সংস্কৃতি রয়েছে। তবে কতকগুলো দেশ বা শহর অন্যান্য শহরের তুলনায় বেশী আকর্ষণীয়, অনন্য সংস্কৃতি এবং বিস্ময়কর ইতিহাস থাকে।   

আমরা আপনাদের জন্য পৃথিবীর বিখ্যাত কয়েকটি শহরের তালিকা সংগ্রহ করেছি।     

টোকিও, জাপান

টোকিও হলো অত্যাধুনিক নব্য উজ্জ্বল উঁচু তলার বাড়ী থেকে শুরু করে শান্ত মন্দির, ঐতিহাসিক কুঠি এবং ব্যয়বহুল বনের একটা অদ্ভূত মিশ্রণ। জাপানের এই শহরকে পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো খাবারের গন্তব্যস্থান হিসেবে ধরা যেতে পারে।   

 

কিয়োটো, জাপান

 

কিয়োটো জাপানের রাজকীয় শহর যেখানে আপনি দশম শতাব্দীর মন্দিরগুলো পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন। জাপানের সংরক্ষিত শহরের মধ্যে এটি অন্যতম, এখানে প্রায় ১,৬০০টি বৌদ্ধ মন্দির, ৪০০টি শিন্তো কুঠি এবং ১০০র কাছাকাছি চমৎকার রেস্টুরেন্ট আছে।

 

ফ্লোরেন্স, ইতালি

যদিও রোম ইতালির অনেক প্রিয় রাজধানী এবং মিলান একটি সার্বজনীন মহানগরী, কিন্তু ফ্লোরেন্সে অতুলনীয় ইতিহাস, আর্ট এবং স্থাপত্য রয়েছে। এখানে বিখ্যাত রেনেসাঁস এর জন্মস্থান, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ফ্লোরেন্সে আধুনিক পরিবর্তন আনা হয়েছে।  

 

লুসার্ন, সুইজারল্যান্ড

ব্রিজের আচ্ছাদন, গম্বুজাকৃতি ভবন এবং রঙ্গিন পুরানো শহর লুসার্ন যেন সুইসের একটি গল্পের বই। লেক লুসার্নের উপকূলে বসতি স্থাপন, সুইস আল্পসের ভ্রমণ কেন্দ্র হিসেবে শহরটি বেশ জনপ্রিয়, যা শহর থেকে দেখা যায়। ইউরোপের সবচেয়ে পুরানো আচ্ছাদিত ব্রিজ বিখ্যাত ক্যাপেলব্রুক এই শহরে আছে।  

 

সান মিগেল দি আলেন্দে, মেক্সিকো

অনেকে  ঔপনিবেশিক যুগের সান মিগেল দি আলেন্দেকে মেক্সিকোর সুন্দরতম শহর বলে মনে করেন এতে আশ্চর্যের কিছু নেই। এখানে আপনি গাঢ় আঙ্গিনা, সংকীর্ণ রাস্তার কবরস্থান এবং  ঐতিহাসিক শহর কেন্দ্র খুঁজে পাবেন। এখানে কোন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর নেই কিন্তু এটি ভ্রমণের জন্য উল্লেখযোগ্যঃ ২০০৮ সালে ইউনেস্কো সান মিগ্যাল দে আলেন্দে এবং জিজাস দি অ্যাটোটনিলকোর আশেপাশের আশ্রয়স্থলকে  ঐতিহাসিক বিশ্ব সম্পদ ঘোষিত করে।

 

ভ্যাঙ্কুভার, ব্রিটিশ কলোম্বিয়া, কানাডা

ভ্যাঙ্কুভার সমুদ্র বন্দর একটি প্রতিযোগিতামূলক এবং সৃষ্টিশীল শিল্পের দৃশ্য, পাহাড়ী প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আছে এবং এখানে কোন কিছুর অভাব নেই। কানাডার নানা জাতিগোষ্ঠীর নিবাস হিসাবে এটি পরিচিত এবং এখানে দেশের সেরা  খাবার পাওয়া যায়।

 

ভিক্টোরিয়া,  ব্রিটিশ কলোম্বিয়া, কানাডা  

পূর্ববর্তী ব্রিটিশ ঔপনিবেশ হিসাবে ভিক্টোরিয়ায় চমৎকার অট্টালিকা রয়েছে এবং  হাঁটার জন্য   সুন্দর বাগান রয়েছে। এখানে হালকা জলবায়ু এবং ভ্যাঙ্কুভার দ্বীপের দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থান ছাড়া এটি ভ্রমণের জন্য উপযুক্ত জায়গা।

 

সালজবুর্গ, অষ্ট্রিয়া  

 

সুর সম্রাট মোজার্ট এবং সিনেমার ভন ট্রেপস এর জন্য এটি বিখ্যাত। সালজবুর্গ সালজেক  নদী দ্বারা বিভক্ত হয়েছে, এর বাম উপকূল পুরানো শহরের পথচারী লাইন এবং ডান উপকূল ঊনবিংশ শতাব্দীতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।  

 

বার্সেলোনা, স্পেন

পর্বতমালা থেকে সৈকত পর্যন্ত সমসাময়িক ঐতিহাসিক, রৌদ্রজ্জ্বল বার্সেলোনা- এটি ভাগ্যবান শহর, এখানে সব আছে। এল বোর্ন সাংস্কৃতিক কেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করা অথবা প্রচলিত এল  রাভাল জেলার রাস্তায় একটা ভ্রমণের দক্ষতা নেওয়া- একটা নতুন রেস্টুরেন্টে রাতের খাবারের জন্য আদ্রিয়া ব্রাদার্সের কাছ থেকে টিকিটের মাধ্যমে টেবিল বুক করা।

 

ভিয়েনা, অষ্ট্রিয়া

অষ্ট্রিয়ার রাজধানী তার বাদ্যযন্ত্র এবং বুদ্ধিবৃত্তিক ভিত্তি দ্বারা শৈল্পিক, সূক্ষ্ম এবং বিশালভাবে গঠিত। অষ্ট্রিয়ার রাজধানী এবং বৃহৎ শহর সংস্কৃতির সাথে গাঁথা।

 

প্যারিস, ফ্রান্স

প্যারিস, পরিচিতির কোন প্রয়োজন নেই, শুধু নামই যথেষ্টঃ দ্য লুভর, দ্য আইফেল টাওয়ার, নটরডেম, স্যাক্রে-কোইউর, মিউজিয়ো রডিন, সেন্টার পম্পিডু, সেইন্ট- জার্মেইন, দ্য সেইন। এই শহরটি পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর স্থান হিসেবে দৃঢ়ভাবে প্রতিষ্ঠিত।  

 

সিডনি, অস্ট্রেলিয়া

অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে বড় শহর সিডনি, যে কোন সময় ছুটি কাটানোর জন্য একটি আদর্শ জায়গা। ডাইন আল ফ্রেস্কো, রক পুলে সিডনি সাইডারের মতো সাঁতার কাটা, বন্দীর দিকে যাওয়া, ম্যানলি এবং গ্রীষ্মে রেডলীফ সৈকত; শহরের প্রাণবন্ত শিল্প ও সংস্কৃতির তালিকা সিডনিকে আকর্ষণীয় করে তুলেছে।  

 

লন্ডন, ইংল্যান্ড

লন্ডনের দ্বিতল বাস, আইকনিক লাল ফোন বুথ এবং মদের দোকানের সংস্কৃতিতে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অনেক পরিবর্তন এসেছে।এই শহরের আরো অনেক কিছু আছে যা আপনার তালিকায় যোগ হতে পারে।

 

মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া

মেলবোর্ন একই সাথে অত্যাধুনিক, স্টাইলিশ এবং আপাতদৃষ্টিতে সতেজ একটি বন্ধুর সব গুলো গুণই এর আছে। অবিশ্বাস্য সুন্দর দৃশ্যপট। তরুণ অস্ট্রেলিয়ান শিল্পীদের চিত্রকর্ম, Urban Scrawl সড়ক ধরে গাড়ী চালানো কিংবা বিশ্ববিখ্যাত হেইড মিউজিয়াম অফ মডার্ণ আর্টে ঘুরে আসা।

 

রোম, ইতালি

লা দোলসে ভিটা এর মতো করে রোমের অভিজ্ঞতা নিন। প্যান্থিয়ন এবং কলোসিয়াম ভ্রমণ শেষে Caffe Sant’Eustachio তে এক কাপ এস্প্রেসো কিংবা  Settimio al Pellegrino তে নিজের ভাগ্য যাচাই করে নিতে পারেন। যখন তাদের দরজায় কড়া নাড়বেন আপনাকে ঘরের গিন্নী যা রান্না করেছে তা দিয়ে আপ্যায়ন করবে।

 

সিঙ্গাপুর

সিঙ্গাপুর একসময় ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক কেন্দ্র ছিল। শহরটিতে আজ নতুন হোটেল, সুস্বাদু খাবার এবং সমসাময়িক শিল্পের দৃশ্যপট বৃদ্ধি পেয়ে ব্যস্ততম একটি মহানগরীতে পরিণত হয়েছে।

 

তেল আবিব, ইসরাইল

ইউরোপ, উত্তর আফ্রিকা , মধ্যপ্রাচ্য এবং ভূমধ্য সাগর দ্বারা প্রভাবিত তেল আবিব পৃথিবীর সবচেয়ে বিচিত্র প্রাণবন্ত শহরের মধ্যে একটি। রাতের জীবন, সমূদ্র সৈকত এবং জাদুঘর ছাড়াও আরো অনেক কিছু আছে।

 

কিউবেক সিটি, কানাডা

হিলটপ কিউবেক সিটি সব ঋতুর জন্য একটি আদর্শ শহর। এই শহরটি ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্য।

 

নুরেমবার্গ, জার্মানি

জার্মানিতে সুন্দর শহরের কোন কমতি নেই কিন্তু নুরেমবার্গ শহরটি তার পুরাতন এবং নতুন বৈশিষ্ট্যের মিশ্রণে দাঁড়িয়ে আছে। একসময় এটি পবিত্র রোমান সাম্রাজ্যের রাজধানী ছিল এবং বিজ্ঞান আর উদ্ভাবনের প্রাচীন কেন্দ্রস্থল।

 

ভেনিস, ইতালি

ভেনিসের মতো কোন কিছুই হয় না; তার খাল, গাড়ীমুক্ত পাথর বাঁধানো জটিল রাস্তা এবং গোপন হাঁটার পথগুলো অসাধারণ। এমনকি এখানে হারিয়ে যাওয়াও একটা জাদুর মতো।

 

ছবি ও তথ্য সংগ্রহঃ CN Traveler 



জনপ্রিয়