সিনেমার চরিত্রের প্রয়োজনে শরীরের অবিশ্বাস্য পরিবর্তন আনা তারকারা!  সিনেমার চরিত্রের প্রয়োজনে শরীরের অবিশ্বাস্য পরিবর্তন আনা তারকারা!

সিনেমার চরিত্রের প্রয়োজনে শরীরের অবিশ্বাস্য পরিবর্তন আনা তারকারা!

সিনেমা এখন শুধু একজন দেখতে ভালো এমন অভিনেতা-অভিনেত্রীর নয়। এমনকি চলচ্চিত্র নির্মাতারাও এখন তাদের অভিনেতা সম্পর্কে খুবই নিখুঁত। তাঁরা এখন পর্দায় সেরাটি প্রদর্শন করতে চান। আর অভিনেতারাও চরিত্র ভালোভাবে ফুটিয়ে তুলতে যথেষ্ট পরিশ্রম করেন। এমনকি চরিত্রের জন্য অনেক খানি ওজন বাড়িয়ে বা কমিয়ে নিজের চেনা শরীরটিও বদলে ফেলেন।

আজ আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি বলিউড ও হলিউডের এমন কিছু অভিনয় শিল্পীদের নাম নিয়ে যারা সিনেমার জন্য নিজের ওজন বাড়িয়ে বা কমিয়ে আলোচিত হয়েছেন।

"ভাইচ" সিনেমার জন্য 'ক্রিস্টিয়ান বেইল' কে ৪৫ পাউন্ড ওজন বাড়াতে হয়েছিলো।

internet

internet

 

"রাজকুমার রাও" তার ওয়েব সিরিজ "বোস" এর জন্য ওজন বাড়িয়েছিলেন যা দেখে দর্শকরা অবাক হয়ে গিয়েছিল। তিনি বলেছিলেন  “আমি প্রায় ১১ কেজি ওজন বাড়িয়েছি এবং আমি অনেক খেয়েছি… আমায় দিনে দশ বার করে খেতে হত” ।

internet

internet

 

"গ্যালাক্সি অব দি গার্ডিয়ান" সিনেমার জন্য "ক্রিস প্র্যাট" ওজন কমিয়েছেন এবং পেশী বাড়িয়েছেন।

internet

internet

 

"সঞ্জয় দত্ত" তাঁর "অগ্নিপথ" সিনেমার চরিত্রের জন্য ওজন বাড়িয়েছিলেন।

internet

internet

 

'এডাম ড্রাইভার' "সাইলেন্স" সিনেমার জন্য ৫০ পাউন্ড ওজন কমিয়েছিলেন।

internet

internet

 

"দি ইনফরম্যান্ট" ছবির জন্য 'ম্যাট ডেমন' ওজন বড়িয়েছিলেন ৩০ পাউন্ড

internet

internet

 

'রন্দীপ হুদ্দা' খুবই পরিশ্রমী একজন অভিনেতা। তিনি "সারাবজিত" ছবির জন্য শরীরের আমূল পরিবর্তন ঘটিয়েছিলেন।

internet

internet

 

"ইউ অয়্যার নেভার রিয়েলি হেয়ার" সিনেমার চরিত্রের জন্য 'জোয়াকুইন ফনিক্স' অনেক ওজন বাড়িয়েছেন।

internet

internet

 

'গালি বয়' এর জন্য "রাণবির কাপুরের" ওজন কমানো চোখে পড়ার মতো।

internet

internet

 

'সারলিজ থেরন' "টুলি" সিনেমার মূল চরিত্রের জন্য ৫০ পাউন্ড ওজন বাড়িয়েছিলেন।

internet

internet

 

'হিউ জ্যাকম্যান' ৩৩ পাউন্ড ওজন কমিয়েছিলেন 'লেস মিসারেবলস' সিনেমার জন্য, আবার 'দি উল্ভারিন' সিনেমার জন্য পেশী বাড়িয়েছিলেন।

internet

internet

 

"সালমান খান"কে 'সুলতান' সিনেমার জন্য ওজন বাড়াতে হয়েছিলো।

internet

internet

 

'আন্নে হ্যাথওয়ে' "লেস মিসারেবলস" এ তাঁর চরিত্রের জন্য ২৪ পাউন্ড ওজন কমাতে হয়েছিলো।

internet

internet

 

"ভূমি পেদনেকার" তাঁর প্রথম সিনেমা "দম লাগা কে হাইসা"র জন্য ২৭ কেজি ওজন বাড়িয়েছিলেন। যার কারণে তিনি অনেক প্রশংসিত হয়েছিলেন।

internet

internet

 

"জেক জিলেনহল" তাঁর ২২ পাউন্ড ওজন কমিয়েছিলেন 'নাইটক্রাউলার' সিনেমার জন্য এবং পরে আবার 'সাউথপো' সিনেমার জন্য বাড়িয়েছেন।

internet

internet

 

মিঃ পারফেকশনিস্ট 'আমির খানে'র প্রায় ২০ কেজি ওজন বাড়াতে হয়েছিলো "দাঙ্গাল" সিনেমার জন্য। এর পর আবার কঠোর পরিশ্রম করে সিক্স প্যাক ফিরিয়ে আনেন।

internet

internet

 

'কলিন ফ্যারেল' প্রায় ৪৫ পাউন্ড ওজন বাড়িয়েছেন "দি লবস্টার" সিনেমাতে তাঁর চরিত্রের জন্য।

internet

internet

 

'জোনাহ হিল' 'ম্যানিয়াক' সিনেমার জন্য ওজন কমিয়েছিলেন।

internet

internet

 

'ক্রিস হেমসওর্থ' কে "ইন দি হার্ট অব দি সি" সিনেমার জন্য ৩৩ পাউন্ড ওজন কমাতে হয়েছিলো। পরে আবার "থর" সিনেমার জন্য পেশী-বাহু বাড়াতে হয়েছে।

internet

internet

 

আমাদের আয়োজন কেমন লাগলো তা কমেন্টে জানান। আপনার আশে পাশের যে কোন ভালো কিংবা মজার ছবি যদি আমাদের মাধ্যমে পেইজে অথবা আর্টিকেল হিসেবে শেয়ার করতে চাইলে আমাদের পেইজের ইনবক্সে ছবির তথ্যসহ পাঠাতে পারেন, পরবর্তিতে আমরা আপনার তোলা ছবি সবার সাথে শেয়ার করব। সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ!



জনপ্রিয়