হোপ- অন্ধবিশ্বাসের ফলে মা-বাবার ফেলে যাওয়া শিশু   হোপ- অন্ধবিশ্বাসের ফলে মা-বাবার ফেলে যাওয়া শিশু

হোপ- অন্ধবিশ্বাসের ফলে মা-বাবার ফেলে যাওয়া শিশু

ঘটনাটি নাইজেরিয়ার। শিশুটি অভিশপ্ত এই ধরনের এক অন্ধবিশ্বাসের ফলে তাকে তার মা-বাবা ফেলে চলে যায়। শিশুটি যখন প্রায় মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে তখন এক ডেনিস সাহায্য সংস্থা শিশুটিকে খুঁজে পায়। এরপর শিশুটির জীবন পরিবর্তিত হয়। এই আবেগঘন গল্প নিয়েই আমাদের আজকের এই আয়োজন। 

 

নাইজেরিয়াতে ২০০৬ সালের জানুয়ারি মাসে ক্ষু্ধার্ত এই শিশুটিকে খুঁজে পাওয়া যায়। তখন সে দেখতে এমন ছিল। 

 source: internet

source: internet

 

ঠিক ১ বছর পরে সে এখন দেখতে ঠিক এই রকম। ছবিটি তার প্রথম স্কুলে যাওয়ার দিন তোলা হয়েছে।

 source: internet

source: internet

 

এক অন্ধ বিশ্বাসের ফলে ছেলেটির মা-বাবার তাকে এভাবে ফেলে রেখে যায়।

 source: internet

source: internet

 

সাহায্য সংস্থাটি তাকে পাওয়া মাত্রই হসপিটালে নিয়ে যায় এবং তার চিকিৎসা করায়। তারা তার নাম রাখে “হোপ”।

 source: internet

source: internet

 

৮ মাসের মধ্যেই সে তার স্বাস্থ্য ফিরে পেতে থাকে।

 source: internet

source: internet

 

তার চুল কেটে দেওয়া হয়। যাতে সে নতুন চুলের সাথে নতুন জীবন শুরু করতে পারে।

 source: internet

source: internet

 

সে এখন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে গিয়েছে। এখন তাকে আর চেনাই যাচ্ছেনা।

 source: internet

source: internet

 

সে এখন একটি অনাথ আশ্রমে থাকে যেখানে তার মত অন্যান্য বাচ্চারা রয়েছে। সেসব বাচ্চাদেরকেও একই ধরনের কুসংস্কারের ফলে তাদের মা-বাবা ফেলে চলে যায়।  

 source: internet

source: internet

 

কিভাবে কেউ বলতে পারে এই নিষ্পাপ শিশুটির মাঝে কোন শয়তান রয়েছে।

 source: internet

source: internet

 

অনাথ আশ্রমটি পরিচালনা করেন আনজা রিংরেন লভেন এবং তার দল।

 source: internet

source: internet

 

আনজা একটি ডেনিস স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনের হয়ে কাজ করেন যারা নাইজেরিয়াতে সক্রিয়ভাবে তাদের কাজ পরিচালনা করছেন।

 source: internet

source: internet

 

আনজা তার ফেসবুকে লিখেছেন, সকল শিশুরই মৌলিক অধিকার রয়েছে এবং এই অধিকার গুলোকে অবশ্যই সংরক্ষণ করতে হবে।

 source: internet

source: internet

 

এক বছরের যত্ন এবং ভালবাসায় “হোপ” এক নতুন জীবন পেয়েছে।

 source: internet

source: internet

 

পৃথিবীর এখনো অনেক দেশে নানা কুসংস্কার বিদ্যমান। এসবের কোন ভিত্তি নেই, কিন্তু অবুঝ অনেক শিশু এর শিকার হচ্ছে। তাই প্রত্যেকের নিজ নিজ অবস্থান থেকে এসবের বিরুদ্ধে দৃঢ় প্রতিবাদ গড়ে তোলা উচিত।

মনে রাখতে হবে, মানবতার চেয়ে বড় শক্তি আর কিছু নেই। মানবতা মুক্তির সবচেয়ে বড় পথ।

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়