মাত্র ৮ বছর বয়সে পিএইচডি করা পৃথিবীর সবচেয়ে প্রতিভাবান শিশু কিম উং-ইয়ং   মাত্র ৮ বছর বয়সে পিএইচডি করা পৃথিবীর সবচেয়ে প্রতিভাবান শিশু কিম উং-ইয়ং

মাত্র ৮ বছর বয়সে পিএইচডি করা পৃথিবীর সবচেয়ে প্রতিভাবান শিশু কিম উং-ইয়ং

ভাবতে অবাক লাগলেও সত্যি, কিম উং-ইয়ং মাত্র ৮ বছর বয়সে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। এই বিস্ময় বালক অসাধারণ মেধা ও প্রতিভা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬২ সালের ৮ মার্চ দক্ষিণ কোরিয়ায় এই প্রোডিজির জন্ম হয়।

INTERNET

INTERNET

 

কিমের বয়স যখন ৪ মাস তখন থেকেই কিম কথা বলতে পারতেন। মাত্র ১ বছর বয়সে তিনি কোরিয়ান বর্ণমালা ও প্রায় ১০০০টির মত চাইনিজ বর্ণমালা শিখে ফেলেন। ৩ বছর বয়সে কিম জটিল পদার্থবিজ্ঞানের সমস্যা সমাধান করতে পারতেন। ৪ বছর বয়স হতে না হতেই কিম কোরিয়ান, জার্মান, জাপানিজ ও ইংরেজির মত চারটি কঠিন ভাষা রপ্ত করে ফেলেন।

INTERNET

INTERNET

 

জাপানের ফুজি টেলিভিশন তাকে নিয়ে একটি অনুষ্ঠান প্রচার করে যেখানে দেখা যায়, কিম জটিল সব পদার্থ বিজ্ঞানের ডিফারেন্সিয়াল অঙ্ক সমাধান করছে। ৪ বছর বয়সের এই বিস্ময় বালক একই সাথে একধিক ভাষায় কথা বলছে।

INTERNET

INTERNET

 

যখন তার বয়স মাত্র ৮ বছর নাসা তার ব্যাপারে খোঁজ পায়। নাসা তাকে আমেরিকা আসার আমন্ত্রণ জানায়। সে ৮ বছর বয়সে আমেরিকায় পাড়ি জমায় এবং কলোরাডো ষ্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে মাস্টার্স ও পিএইচডি ডিগ্রি সম্পন্ন করে। তার বিষয় ছিল পরমাণু বিজ্ঞান। এরপর কিম নাসায় যোগ দেয় এবং পরবর্তী ১০ বছর নাসায় কাজ করেন। কিন্তু এতো ছোট বয়সে এতো খ্যাতি তার স্বাভাবিক জীবন ধ্বংস করে দিয়েছিল। তার কোন বন্ধু ছিল না কিংবা সামাজিক উন্নতিতে ঘাটতি ছিল। তিনি সুখী ছিলেন না এবং দিন দিন হতাশ হয়ে পড়ছিলেন।

INTERNET

INTERNET

 

কিম উং-ইয়ং নাসার চাকরি ছেড়ে তাই দেশে ফিরে আসেন। তারমতে সেখানে তিনি যন্ত্রে রূপান্তরিত হয়ে গেছিলেন। দেশে ফিরে তাকে নতুন করে আবার ডিগ্রি নিতে হয় এবং তিনি বর্তমানে দক্ষিণ কোরিয়ার সিনহান বিশ্ববিদ্যালয়ের এসোসিয়েট প্রফেসর।

INTERNET

INTERNET

 

গিনেজ আইকিউ টেস্টে ২১০ মার্ক নিয়ে কিম পৃথিবীর সবচেয়ে বুদ্ধিমান মানুষ। তার আইকিউ আইনস্টাইনের চেয়েও বেশি। কিমের অসাধারণ প্রতিভা দেখে সবার আশা ছিল তিনি অনেক বড় কিছু করবেন। কিন্তু তিনি তার মনের কথা শুনেছেন এবং একটু সুখ পেতে চেয়েছেন। বর্তমানে ৫০ বছর পেরিয়ে কিম জীবনের প্রকৃত অর্থ এবং সুখ খুঁজে পেয়েছেন।

INTERNET

INTERNET

 

প্রতিভাই সবকিছু না। অর্থ, প্রতিপত্তি, সম্পদ, প্রতিভার চেয়েও সবথেকে মূল্যবান হল জীবনে সুখ। তাই মূল্যহীন জিনিসের পেছনে না ছুটে কিমের জীবন থেকে অনুপ্রেরণা নিন এবং ভালো লাগার পিছনে ছুটে চলুন।



জনপ্রিয়