ছবির পেছনের হৃদয় বিদারক গল্প ছবির পেছনের হৃদয় বিদারক গল্প

ছবির পেছনের হৃদয় বিদারক গল্প

প্রতিটা ছবি আমাদের হাজার কথা বলে, হাজার ঘটনার সাক্ষী হয়ে যায়। ছবি শুধু মুহূর্তগুলো নয় এক একটি স্মৃতি, এক একটি উপাখ্যান লুকিয়ে রাখে। শুধু ছবি দেখে বোঝা যায় না এই ছবির সাথে কোন হৃদয় বিদারক ঘটনা জড়িয়ে আছে।

আজ আপনাদের শুধু ছবি দেখাবো না। আজ ছবির সাথে জানাবো তার পেছনের হৃদয়স্পর্শী গল্পগুলো। নিশ্চিত থাকুন এই গল্প শুনে যে কারো আবেগ ধরে রাখা কষ্টকর হবে।

১। এক মেয়ে ছবির মাধ্যমে দেখিয়েছে কীভাবে আলঝেইমার রোগ তার মায়ের স্মৃতিশক্তি ধ্বংস করে দিয়েছে।

© wuillermania / Reddit

© wuillermania / Reddit

 

উইলার মানিয়া নামে এক রেডিট ব্যবহারকারী এই ছবিগুলো আপলোড করেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে তার মায়ের নিজ হাতে বোনা কিছু উলের কাজ। ছবির শুরুতে একদম নিখুঁত কাজটি এবং শেষের ওই উলের কুণ্ডলী বানানোর মধ্যবর্তী সময় মাত্র ২ বছর। এই সময়েই কি নিদারুণভাবে এই দুর্বিষহ রোগ মহিলার স্মৃতিশক্তি ধ্বংস করে দিয়েছে।

পোস্টটি দেয়ার পর পরই অনেকে এই মেয়েকে সান্ত্বনা দেয়ার জন্য কমেন্ট করা শুরু করে এবং নিজেদের অভিজ্ঞতাগুলো শেয়ার করে।

২। প্রজাপতিকে উড়ার সুযোগ করে দিল অ্যামেরিকান কস্টিউম ডিজাইনার।

© Romy McCloskey / Facebook

© Romy McCloskey / Facebook

 

রোমির মা মারা যাওয়ার আগে রোমিকে বলেছিলেন, “তুমি যখনি কোন প্রজাপতি দেখবে, ভেবে নিও এটা আমি, তোমাকে প্রজাপতি রূপে দেখতে এসেছি।” রোমির মা ক্যান্সার আক্রান্ত অবস্থায় অনেক বছর আগে এই কথা তাকে বলে। এবং তারপর থেকে এই মেয়ে প্রজাপতিদের রক্ষা করার জন্য হৃদয় দিয়ে চেষ্টা করে যাচ্ছে।

রোমি বাগানে কোন শুঁয়োপোকা পেলেই তাকে তুলে এনে একটা নিরাপদ জারে রেখে দিত যেখানে সে নিরাপদে বেড়ে উঠতে পারে। একবার দেখল একটা প্রজাপতি অসম্পূর্ণ পাখা নিয়ে জন্মেছে যার পরিণতি মৃত্যু। রোমি তাই উপায় খুঁজতে থাকে কীভাবে এই প্রজাপতিটিকে উড়ার সুযোগ করে দেয়া যায়। সে তার এক বন্ধুর সাহায্যে প্রজাপতিটির জন্য নকল পাখা তৈরি করে এবং দক্ষতার সাথে তা প্রতিস্থাপন করে। ফলে প্রজাপতিটি উড়তে সক্ষম হয়।

৩। এই আমেরিকার ফুটবল তারকা একটা শিশুর সাথে বসে খাবার খাচ্ছে যে অটিজমে আক্রান্ত বলে অন্য শিশুরা তাকে এড়িয়ে চলে।

© Leah Paske / Facebook

© Leah Paske / Facebook

 

ছবিটি আপলোড করেছেন এই শিশুর মা। এই শিশু অটিজমে আক্রান্ত তাই একটু বেশি প্রশ্ন করে ও বেশি কথা বলে। ফলে অন্যান্য শিশুরা তাকে এড়িয়ে চলতে চায়। এই শিশু স্কুলে প্রায় একা একা বসে দুপুরের খাবার খায়।

কিন্তু একদিন এই শিশুর মা তার এক বন্ধুর কাছে এই ছবি পান, যেখানে দেখা যাচ্ছে ত্রেভিস রুডলফ তার ছেলের সাথে বসে খাবার খাচ্ছে।

পরবর্তীতে এই তারকা খেলোয়াড় ওই শিশুর সাথে অন্যান্য খেলোয়াড়দের পরিচয় করিয়ে দেয়।

এই ঘটনা শুনে মহিলা আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। তিনি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে জানান,     “আমি জানিনা আপনি কেন আমার ছেলের পাশে বসেছিলেন কিন্তু আমি এই জন্য আপনার কাছে খুবই কৃতজ্ঞ এবং আপনার এই মহানুভবতা আমি আমরা কোনদিন ভুলবো না।”

৪। প্রিয় বন্ধুর শেষকৃত্যে এক সৈনিক

© Kyle Smith / Facebook

© Kyle Smith / Facebook

 

কাইল তার মিলিটারি মিশনের সময় বোডজা নামে এই জার্মান শেফার্ড কুকুরের দেখা পায়। তারা একসাথে অনেক কাজ করে এবং বন্ধুতে পরিণত হয়। বোডজা বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত ছিল এবং বিস্ফোরক শনাক্ত করত। এই সাহসী কুকুর কয়েকবার এই সৈনিকের প্রাণও রক্ষা করে।

কাইল বলে, “ তার বয়সের কারণে কাজের বয়স শেষ হয়ে গেলে আমি তাকে বাসায় আনি। সে ছিল ক্লান্তিবিহিন, সে খেলতে ভালবাসত ও তার বিশ্বস্ততার কোন সীমা ছিল না। কিন্তু কিছুদিন পর জানা যায় বোডজা একটি দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত যা তাকে খুব যন্ত্রণা দিচ্ছে এবং সে খুব জলদি পঙ্গুত্ব বরণ করবে। তাই কাইল একসময় বোডজাকে শান্তিপূর্ণভাবে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেয় কেননা কুকুরটির জন্য জীবন বোঝা হয়ে গেছিল। এবং সেইদিন আসলো, কাইল জানান,

“ সে যখন আমাকে ছেড়ে যাচ্ছিল আমি তাকে জড়িয়ে ধরি, সে স্মিত একটা হাসি উপহার দেয় যেন তার যন্ত্রণা থেকে সে মুক্তি পাচ্ছে। ”

এই সৈনিক বাসায় বড় করে ফ্রেমে তার এই প্রিয় বন্ধুর ছবি বাঁধাই করে রেখেছেন।

৫। বিড়াল জড়িয়ে ধরে দাঁড়িয়ে আছেন এক বৃদ্ধ যার ঘর কিছুক্ষণ আগেই আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেছে।

© NTV Radyo / Facebook

© NTV Radyo / Facebook

 

এই বৃদ্ধর নাম আলি যিনি তুরস্কের তার পরিবার নিয়ে থাকেন। এক অগ্নিকান্ডে তাদের ঘর পুড়ে যায়। এই বৃদ্ধ অগ্নিকাণ্ডর সময় তার প্রিয় বিড়ালটিকে রক্ষা করে। ছবিতে তিনি বিড়ালটিকে জড়িয়ে দাঁড়িয়ে আছেন এবং পিছনে তার পুড়ে যাওয়া বাড়ির ভস্ম।

সরকার আলীকে সহায়তা করে ও বসবাসের জন্য নতুন একটা বাড়ি দেয়।

৬। সদ্যজাত মেয়ের ছবি থেকে ফটোশপের মাধ্যমে টিউবগুলো সরানোর আকুতি নিয়ে এক বাবা।

© Nathen Steffel / reddit   © unkybrewster / reddit.com

© Nathen Steffel / reddit © unkybrewster / reddit.com

 

“ফটোশপের অনুরোধঃ আমার মেয়ে শিশু হাসপাতালে দীর্ঘদিন লড়াইয়ের পর মারা গেছে। তার হাসপাতালে থাকার সময় আমরা কোনভাবেই এই টিউব সরিয়ে তার কোন ছবি নিতে পারিনি। দয়া করে কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি আমার এই ছোট্ট পরীর ছবিটা থেকে টিউবগুলো কি সরাতে পারবেন?”

সোফিয়া মারা যাওয়ার ৬ মাস পর সোফিয়ার বাবা এই পোস্টটি রেডিটে দেন। এরপর অনেকগুলো ফটোশপদ ছবি তাদের কাছে জমা পড়ে। তিনি আর তার স্ত্রী সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

৭। একজন ক্যাডেট তার স্বপ্ন পূরণ করে ফেলেছে। সে মিলিটারি একাডেমী থেকে তার গ্রাজুয়েশন সম্পূর্ণ করেছে এবং একজন পাইলট হতে যাচ্ছে।

© westpoint_usma

© westpoint_usma

 

যখন ইডারকে হাইতি থেকে মিলিটারি একাডেমীতে আসে সে ঠিকমত ইংরেজিও বলতে পারত না। সে কখনো ভাবেনি যে সে এই কঠিন প্রশিক্ষণ শেষ করে একজন পাইলট হতে পারবে।

ইডারকে বলেন, “আমি যেখান থেকে এসেছি সেখানে কোন মানুষ পাইলট হওয়ার স্বপ্ন দেখতে পারে না, তারা বরং বাস্তব কোন স্বপ্ন দেখে। আমার পরিবার খুব ধনী না কিন্তু তারা আমার পড়াশুনার জন্য সব করেছে।”

কিন্তু ইডারকে পৃথিবীর সবথেকে প্রসিদ্ধ একটা মিলিটারি একাডেমী থেকে তার পড়াশোনা শেষ করেছে এবং তার স্বপ্ন পূরণ করেছে। সে তাই কোনভাবেই তার আবেগ ধরে রাখতে পারেনি।

৮। সান্টা ক্লোজ এক বাচ্চাকে সান্ত্বনা দিচ্ছে যার বাবা খুব অসুস্থ

© Emily Coker

© Emily Coker

 

যখন ১২ বছরের জাকব ক্রিসমাসের উপহার নেয়ার জন্য সান্টার কাছে আসলো তখন সে সান্টার কাছে কোন খেলনা বা অন্য কোন উপহার চাইনি। সান্টার কাছে তার একমাত্র চাওয়া ছিল তার বাবার সুস্থতা। জাকবের বাবা পেশায় একজন ইলেক্ট্রিশিয়ান যিনি ২ বছর যাবত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ছবিটি সেখানে উপস্থিত এক অতিথি তোলেন এবং ফেসবুকে আপলোড করে দেন। তিনি সবাইকে এই ব্যাথিত শিশুর বাবার জন্য প্রার্থনা করার অনুরোধ জানান।

৯। কলিগকে মেয়ের শেষকৃত্যে সাহস ও সান্ত্বনা জোগাতে ১০০ এরও বেশি পাইলট উপস্থিত হয়েছেন। 

© Kalie Marsch / Twitter

© Kalie Marsch / Twitter

 

জিনা রোজের শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে এই ছবিটি তোলা হয়। সে পার্কল্যান্ড হত্যাযজ্ঞের শিকার। এমন এক কঠিন দিনে তাই বিশ্বের ১০০ এরও বেশি নানান এয়ারলাইনসের পাইলট জিনা রোজের বাবা মাকে সান্ত্বনা ও সাহস জোগাতে এসেছেন। এই মেয়েকে শ্রদ্ধা জানাতে তারা ইউনিফর্ম পরে সারি হয়ে দাঁড়ায়। এই মানুষগুলো বিশ্বভাতৃত্ব ও একতার এক একটি স্তম্ভ।

১০। ছবিটি একটি ঘোড়ার যে তার শিশুকে হারিয়েছে এবং একটি ঘোড়ার শিশুর যে তার মাকে হারিয়েছে।

© CatsAndCoffeeAndCats / Imgur

© CatsAndCoffeeAndCats / Imgur

 

ছবির এই প্রাপ্তবয়স্ক ঘোড়াটি কিছুদিন আগে একটি বাচ্চা প্রসব করে যা কয়েক ঘণ্টার পর মারা যায়। কিছুদিন পরে এই ঘোড়া শাবককে তার কাছে আনা হয়। এই ঘোড়শাবককে জন্ম দিতে গিয়ে তার মা মারা যায়।

বোনাসঃ একজন রোম্যান্টিক দম্পতী তাদের ৪০ তম বিবাহবার্ষিকী উদযাপন করছে। তারা ঠিক তাদের বিয়ের দিনের কাপড়চোপড় পরে একই পোজে ছবিটি তুলেছেন।

© magic976/imgur

© magic976/imgur

 

আপনাকে কোন গল্পটি সবথেকে বেশি নাড়া দিয়ে গেছে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়