পরিবেশ বাঁচাতে, প্লাস্টিকের পরিবর্তে পাতা ব্যবহার করা এশিয়ান সুপারমার্কেট     পরিবেশ বাঁচাতে, প্লাস্টিকের পরিবর্তে পাতা ব্যবহার করা এশিয়ান সুপারমার্কেট

পরিবেশ বাঁচাতে, প্লাস্টিকের পরিবর্তে পাতা ব্যবহার করা এশিয়ান সুপারমার্কেট

প্লাস্টিক ব্যবহারের ফলে, পরিবেশগত ও বৈশ্বিক পরিবর্তন এবং বর্তমানে সময়ে আমরা প্রতিনিয়ত যেসব সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছি সেগুলো সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করা বর্তমান সময়ের প্রধান লক্ষ্যগুলোর একটি হওয়া উচিত। যদিও আমরা অনেকে বিশ্বাস করি যে, প্লাস্টিকের পুনর্ব্যবহার এই সমস্যা সমাধান করবে এবং প্লাস্টিক ব্যবহার চালিয়ে যাবে, এটি আসলে সম্পূর্ণ ভুল একটি ধারণা।

২০১৩ সালে, শুধুমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২৫.৪ মিলিয়ন টন প্লাস্টিক বর্জ্য উৎপাদিত হয়েছিল এবং যার মাত্র ৩০% পুনর্ব্যবহৃত হয়েছিল। এর মানে হলো, বাকি প্লাস্টিক মাটির সাথে মিশে গেছে এবং এক হাজার বছর পর্যন্ত বিষাক্ত গ্যাস তৈরি করে পৃথিবীকে দূষিত করবে এবং বহু নিরীহ প্রাণীকে হত্যা করে মহাসাগরেও ধ্বংস করবে।

যেহেতু আমাদের মধ্যে অনেকেই বাস্তবতাটি উপলব্ধি করতে পারছি না, যা প্রায়শই আমাদের কাছ থেকে লুকানো থাকে, সেগুলো সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করা এবং তাদের চোখ খুলতে সাহায্য করা যে, মাত্র কয়েক সেকেন্ডের প্রয়োজনে ব্যবহৃত এই প্লাস্টিক আমাদের ১০০০ বছরের জন্য সমস্যায় ফেলতে পারে।

ইতিবাচক পরিবর্তন আনার জন্য, এশিয়া জুড়ে সুপারমার্কেটগুলো তাদের সবজি প্যাক করার জন্য পাতার ব্যবহার শুরু করেছে। এই ধরনের প্যাকেজিং কেবল খরচই কমাবে না, পৃথিবী ধ্বংসকারী প্লাস্টিকের ব্যবহারও কমিয়ে আনবে।

সম্প্রতি, চীন বিশ্বজুড়ে ট্র্যাশ বা মিশ্রিত বর্জ্য আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে এবং নিজের বর্জ্য পুনর্ব্যবহারের দিকে মনোনিবেশ করেছে। এর আগে, বিশ্বব্যাপী বর্জ্যের ৩০% এরও বেশি পরিমাণে চীনে উৎপন্ন হতো।

ফলে, বিশ্বব্যাপী একটি জনপ্রিয় অপবাদের সৃষ্টি হয়েছিল যে, এশিয়ার দেশগুলো বিশ্বের বেশিরভাগ বর্জ্য তৈরির জন্য দায়ী। এখন, ভিয়েতনাম ও থাইল্যান্ড সহ এশিয়ার দেশগুলো প্লাস্টিকের এড়াতে নতুন ইকো-ফ্রেন্ডলি উপায় খুঁজছে।

এশিয়ার সুপারমার্কেটগুলোর এই অভিনব প্যাকেজিং খুব দ্রুতই সারাবিশ্বে ভাইরাল হয়েছে। প্লাস্টিকের ব্যবহার হ্রাস করার এই সৃজনশীল উপায় বের করা সদস্যদের সারাবিশ্বের মানুষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।

এই অভিনব উপায়টি শেয়ার করার পর, মুহূর্তের মধ্যেই ৩.৫ মিলিয়ন ভিউ, অসংখ্য কমেন্ট এবং ২০ হাজারেরও বেশিবার শেয়ার করেছে মানুষ।

প্লাস্টিকের ছোট-বড় প্রতিটি অংশ আমাদের সুন্দর পৃথিবীকে আস্তে আস্তে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যেতে পারে, নষ্ট করে দিতে পারে জীব বৈচিত্র্য, অস্তিত্ব সংকটে ফেলতে পারে আমাদের। তাই, এই বিষয়ে আমাদের সচেতন হওয়া উচিত এবং যথাসম্ভব প্লাস্টিকের ব্যবহার কমিয়ে আনা উচিত।

এই বিষয়ে আপনার মূল্যবান মতামত কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ...



জনপ্রিয়