বিখ্যাত ব্যক্তিদের সম্পর্কে চমকপ্রদ এই তথ্যগুলো স্কুলে পড়ানো হয় না!         বিখ্যাত ব্যক্তিদের সম্পর্কে চমকপ্রদ এই তথ্যগুলো স্কুলে পড়ানো হয় না!

বিখ্যাত ব্যক্তিদের সম্পর্কে চমকপ্রদ এই তথ্যগুলো স্কুলে পড়ানো হয় না!

বিরক্তিকর তথ্য সবসময় আকর্ষণীয় তথ্যগুলোর সাথে থাকা উচিত যাতে আমাদের এটি মনে রাখতে সহজ হয়। স্কুলে, শিক্ষকরা সাধারণত সবচেয়ে কৌতুকপূর্ণ এবং বিস্ময়কর ঘটনা এড়িয়ে যান। ফলে, আমরা ঘটনা, যুদ্ধ, এবং আবিষ্কার সম্পর্কে অনেক কিছু জানি; কিন্তু আমরা এই জিনিসগুলো আবিষ্কারের সাথে যারা জড়িত তাদের সম্পর্কে খুব একটা জানি না। আজকের আয়োজনে জানবো বিখ্যাত ব্যক্তিদের সম্পর্কে কিছু চমকপ্রদ তথ্য, যেগুলো স্কুলে পড়ানো হয় না! চলুন জেনে আসা যাক-

নেপোলিয়ন বোনাপার্ট

© Wikipedia

© Wikipedia

নেপোলিয়ন বোনাপার্ট কর্সিকাতে জন্মগ্রহণ করেন এবং তার পূর্বপুরুষ ফ্লোরেন্স থেকে এসেছিলেন, তাই আমরা বলা যায় তিনি ইতালীয় বা কর্সিকান ছিলেন। তিনি স্কুলে ইতালীয় ভাষা পড়েন এবং ১০ বছর বয়সে ফ্রেঞ্চ শিখতে শুরু করেন। বোনাপার্ট ছিলেন একজন ফরাসি সম্রাট এবং ইতালীয় রাজা। তিনি ফরাসি পতাকা দ্বারা অনুপ্রাণিত এবং ইতালির পতাকা তৈরিতে অংশ নেন। শুধু ১ রঙ, নীল, সবুজ রঙ তার স্থলাভিষিক্ত হয়।

আব্রাহাম লিংকন

© Wikipedia

© Wikipedia

আব্রাহাম লিংকন আমেরিকার সর্বশ্রেষ্ঠ রাষ্ট্রপতি ছিলেন। যুবক বয়সে, তিনি একজন অভিজ্ঞ যোদ্ধা ছিলেন। অনেস্ট আবে (লিংকন তার সমস্ত ঋণ পরিশোধ করার অভ্যাসের জন্য এই ডাকনামটি পেয়েছিলেন) যারা যুদ্ধ করতে চাইতেন তাদের যে কাউকে চ্যালেঞ্জ করার জন্য তিনি সর্বদা প্রস্তুত থাকতেন। এমনকি তার নাম রেসলিং হল অফ ফেমেও রয়েছে।

জোয়ান অব আর্ক

© Wikipedia

© Wikipedia

অতীতে, ছোট চুলের নারী খুব কমই দেখা যেত। বলা যায়, ছোট চুলের নারী দেখতে পাওয়াটা একেবারেই অসম্ভব ছিল। কথিত আছে, জোয়ান তার মাথায় উপর একটি দৈববাণী শুনতে পেতেন, যা তাকে বিভিন্ন কিছু করতে বলতো। একবার, ওই দৈববাণী তার মাথার চুল ছোট করার পরামর্শ দিয়েছিল। প্রায় ৫০০ বছর পরে, এই বিষয়টি একজন পোলিশ হেয়ারড্রেসারকে অনুপ্রাণিত করেছিল এবং তিনি সবচেয়ে জনপ্রিয় নারী চুলের শৈলী, দ্য শর্ট বব তৈরি করেছিলেন।

আলবার্ট আইনস্টাইন

© Wikipedia

© Wikipedia

১৯৫৫ সালে বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইন মারা যান। ময়নাতদন্তের সময়, বিশেষজ্ঞ থমাস হার্ভে সংরক্ষণের জন্য আইনস্টাইনের মস্তিষ্ক অপসারণ করার সিদ্ধান্ত নেন। যাইহোক, আইনস্টাইনের মস্তিষ্কের ওজন ছিল ২.৭ পাউন্ড যেখানে মানুষের মস্তিষ্কের ওজন গড়ে ৩ পাউন্ড!

মেরিলিন মনরো

© eastnews

© eastnews

এই সুন্দরী নারীর জীবন ছিল সত্যিই বেশ দুঃখজনক এবং কঠিন। তার মা একজন মানসিক রোগী ছিলেন, তাই মেরিলিন একটি অনাথ আশ্রমে বাস করতেন। সেখানে তাকে ১১ টি ভিন্ন ভিন্ন পরিবার দত্তক হিসেবে গ্রহণ করার চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু কোন এক অজানা কারণে এই পরিবারগুলো প্রতিবারই ফিরে গিয়েছিল!

চার্লস সপ্তম

© Wikimedia

© Wikimedia

একটি বিখ্যাত প্রবাদ, 'রাজা মারা গেছেন, রাজা দীর্ঘকাল বেঁচে আছেন!' প্রাথমিকভাবে যেটি ১৪২২ খ্রিস্টাব্দে চার্লস সপ্তমের রাজত্বকালে ব্যবহার করা হয়েছিল। এই বাক্যাংশটি পূর্ববর্তী রাজার মৃত্যুর ঘোষণার সাথে সাথে নতুন রাজাকে স্বাগত জানাতে ব্যবহার করা হতো!

চার্লস ডারউইন

© Wikimedia

© Wikimedia

অনেকেই জানেন না যে, বিখ্যাত এই প্রকৃতিবিদের কোনো ধরনের বায়োলজিক্যাল এডুকেশন নেই। স্কুলের পরে, ডারউইন তার পারিবারিক ঐতিহ্য চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন এবং এডিনবার্গ ইউনিভার্সিটি অফ মেডিক্যাল স্কুলে প্রবেশ করেন, কিন্তু তার সেখান থেকে বিদায় নিতে হয়। কারণ সহজ ছিলঃ তিনি রক্ত সহ্য করতে পারতেন না! আরো আছে, চার্লস ডারউইন কখনোই দাবী করেননি মানুষ বানর (বনমানুষ) বা অ্যাপস থেকে এসেছে। 

জুলিয়াস সিজার

© Wikimedia

© Wikimedia

জুলিয়াস সিজার সবসময় তার মাথায় লরেল পোষাক (গুল্মবিশেষ জয়মাল্য) পরিধান করতেন। তিনি সবসময় এটি পরিধান করতেন কারণ, সিজার তার মাথার কম চুল (টাক) সবসময় ঢেকে রাখতে চাইতেন!

হেনরি ফোর্ড

© Wikimedia

© Wikimedia

হেনরি ফোর্ডের কোম্পানিতে, স্বাস্থ্যের প্রতি অমনোযোগী কর্মীদের নিয়োগের একটি ঐতিহ্য ছিল। ফলে, ১৯১৭ সালে প্রায় ৬০০০ বেশি অক্ষম লোক এই কোম্পানিতে চাকরি করতো। কোম্পানির সব কর্মচারীদের সমান বেতন দেওয়া হতো। ফোর্ড মনে করতেন, অক্ষম মানুষদের দিয়েও অনেক কাজ করা সম্ভব!

ক্রিস্টোফার কলম্বাস

© Wikipedia

© Wikipedia

কলম্বাস সম্পর্কে একটি চমৎকার কথা প্রচলিত রয়েছে। তার সমালোচকরা, এমনকি অনেক মানুষই মনে করতেন আমেরিকা আবিষ্কার করাটা সহজ একটি বিষয় ছিলো। অবশ্যই, এই স্প্যানিশ নাবিক কথাটি শুনে খুবই বিরক্ত হতেন। এই সমালোচনার জবাব দিতে তিনি তার শত্রু ও সমালোচকদের একটি ডিম নিতে বলতেন এবং এটি উল্লম্বভাবে দাঁড় করাতে বলতেন। কেউ এটা করতে পারতো না। তারপর ক্রিস্টোফার টেবিলে রাখা ডিম টিপ দিয়ে ফেটে ফেলতেন এবং খোসাটি উলম্বভাবে দাঁড় করিয়ে বলতেন, 'আমেরিকা আবিষ্কারের মতো এটিও সহজ ছিল।'

ভলতেয়ার

© eastnews

© eastnews

ঐতিহাসিক তথ্য অনুযায়ী, ভলতেয়ার কফি পছন্দ করতেনঃ তিনি দিনে প্রায় ৫০ কাপ কফি পান করতেন। কিন্তু, এটি বিশুদ্ধ কফি ছিল না, এটি ছিল চকোলেট-কফির মিশ্রণ। তার ডাক্তার তাকে সতর্ক করে দিয়েছিলেন যে, তার প্রিয় পানীয় তাকে মৃত্যুর দিকে ধাবিত করবে, কিন্তু তিনি ডাক্তাদের কথা পাত্তাই দিতেন না।

এই বিখ্যাত ব্যক্তিদের সম্পর্কে আরও মজার কোন তথ্য জানা থাকলে কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ...



জনপ্রিয়