এই দুর্লভ ঐতিহাসিক ছবিগুলো প্রমাণ করে জেপলিনে ভ্রমণ কতটা ব্যয়বহুল ছিলো!  এই দুর্লভ ঐতিহাসিক ছবিগুলো প্রমাণ করে জেপলিনে ভ্রমণ কতটা ব্যয়বহুল ছিলো!

এই দুর্লভ ঐতিহাসিক ছবিগুলো প্রমাণ করে জেপলিনে ভ্রমণ কতটা ব্যয়বহুল ছিলো!

বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে আটলান্টিক মহাসাগর পাড়ি দিতে হলে জাহাজ ছাড়া কোনো গতি ছিলোনা। কিন্তু ১৯১৯ সালে  ব্রিটিশ বিমানচালক জন এলকক এবং আর্থার ব্রাউন চালু করে আটলান্টিক পাড়ি দেওয়ার প্রথম বিরামহীন এয়ারশিপ ফ্লাইট। তখন থেকেই পরিবর্তনের শুরু। এয়ারশিপ মানে বায়ু জাহাজ।একটি ক্যাপসুলাকৃতির ডুরালুমিনের তৈরি দৃঢ় কাঠামোর উপরে কাপড় জড়িয়ে এই বায়ুজাহাজগুলোর নকশা তৈরি করা হয়।

AP

AP

 অবশেষে ১৯২৮ এর ১১ অক্টোবর হুগো ইকনার, ডিইএলএজি এর অপারেশনের অংশ হিসাবে গ্রাফ জেপেলিন এয়ারশিপের নেতৃত্ব দেয়। এর মাধ্যমে তাদের যাত্রা শুরু হয়।

AP

AP

এরপর ডিইএলএজি উত্তর আটলান্টিক জুড়ে নিয়মিত নির্ধারিত যাত্রী ফ্লাইটগুলিতে গ্রাফ জেপেলিন ব্যবহার করেছিলো,ফ্রাঙ্কফুর্ট-এ-মেইন থেকে লেকহর্স্ট পর্যন্ত। ১৯৩১ সালের গ্রীষ্মে, দক্ষিণ আটলান্টিকে একটি নতুন রুট চালু করা হয়েছিল, যা ফ্রাঙ্কফুর্ট এবং ফ্রেডরিচশাফেন থেকে রেসিফ এবং রিও ডি জেনিরো পর্যন্ত ভ্রমণ করতো।১৯৩১ থেকে ১৯৩৭ সালের মধ্যে 'গ্রাফ জেপেলিন' দক্ষিণ আটলান্টিক ১৩৬ বার অতিক্রম করেছিলো। এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ভ্রমনে সময় লাগতো প্রায় ৪দিন। এবং ওয়ান ওয়ে টিকেটের মূল্য ছিলো প্রায় ৪০০ ডলার। যা বর্তমান সময়ে প্রায় ৭,০৫০ ডলার এর সমান।

AP

AP

১৯৩৬ সালে,  'ডিইএলএজি'  হিনডেনবার্গ চালু করেছিলো, যা ৩৬ বার আটলান্টিক পাড়ি দেয় (উত্তর থেকে দক্ষিণ)।

এর ভেতরে নকশা করেছিলেন ফ্রিটজ আগস্ট ব্রেহাস। হিনডেনবার্গের ডাইনিং রুম দৈর্ঘে ছিলো প্রায় ৪৭ ফুট এবং প্রস্থে ১৩ ফুট।

ডাইনিং রুম

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

বিশ্রামের কক্ষ

Airships.net collection

Airships.net collection

সুসজ্জিত বিশ্রামের রুমটি প্রায় ৩৪ ফুট লম্বা ছিলো। ১৯৩৬ সালের ভ্রমণের সময়টিতে বিশ্রামের রুমটিতে একটি ৩৫৬ পাউন্ড পিয়ানো ছিলো।

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

লেখালেখির রুম

Airships.net collection

Airships.net collection

হিন্ডেনবার্গের যাত্রীদের কেবিন

Airships.net collection

Airships.net collection

ধূমপানের রুম

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

বার

Airships.net collection

Airships.net collection

ফ্লাইট নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

The Bar

The Bar

The Bar

The Bar

রান্না ঘর

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

'হিন্ডেনবার্গ' বোয়িং৭৪৭ এর চাইতে প্রায় তিনগুণ লম্বা এবং দ্বিগুণ উঁচু ছিলো।

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

Airships.net collection

১৯৩৭ সালের ৬ মে , এই জার্মান এয়ারশিপ এ আগুন লাগে । যুক্তরাষ্ট্রের লেকশায়ারে স্থাপিত মাস্তুলে ফেরার সময় স্ট্যাটিক ইলেক্ট্রিসিটির প্রভাবে আগুন ধরে গেলে ৯৭ জন যাত্রীর মধ্যে ৩৫ জন এবং ভুমিতে অবস্থিত একজন কর্মী সহ মোট ৩৬ জন নিহত হয়।  ইতিহাসে এটি হিন্ডেনবার্গ ডিজেস্টার নামে পরিচিত।

সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ!



জনপ্রিয়