পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে অদ্ভুত এই অবৈধ জিনিস গুলো বৈধ !
  পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে অদ্ভুত এই অবৈধ জিনিস গুলো বৈধ !

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বৈধ ও অবৈধের মাঝে তালগোল পাকিয়ে ফেলা অদ্ভুত কিছু আইন !

২০১৯ সাল পর্যন্ত এসে পৃথিবীতে অনেক আইনের পরিবর্তিত হয়েছে মানবজাতির জন্য, কখনো আমরা দেখেছি এতে নারী ও পুরুষের সমান অধিকার নিয়ে কিংবা সমাজের ভালোর জন্য নজরুল বিষয়ে আইন করা হয়েছে। দুর্ভাগ্যবশত আজ আমরা আপনাদের সাথে কিছু অদ্ভুত আইন শেয়ার করব যেগুলো দেখে আপনি কোন ভাবেই বুঝতে পারবেন না কেন এগুলো বৈধ !

কখনো কোন উলঙ্গ মানুষকে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যেতে দেখেছেন? না, পাগলের কথা বলছিনা। খুব স্বাভাবিক একজন মানুষ আরো বেশি স্বাভাবিকভাবে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে। তাও আবার গায়ে একটা সুতো ছাড়াই! কিন্তু আইন-শৃঙ্খলার মানুষ কেন, চারপাশের আর দশটা মানুষও একবার তাকিয়ে দেখছেনা সেদিকে ! কারণ, সেটা বৈধ!

ভাবছেন, এমন অদ্ভূত আর আপত্তিকর বিষয়টি কী করে বৈধ হয়? হয়, আর কেবল এই একটি ব্যপারই নয়, পৃথিবী জুড়ে এমন অনেক দেশ আছে যেখানে গেলে পারতপক্ষে অবৈধ বা ঘৃণ্য জিনিসটাও বৈধ হয়ে যায়। তাও আবার আইনের দৃষ্টিতেই। চলুন দেখে আসি আবৈধকে বৈধ করে নেওয়া এমনই কিছু দেশ ও তাদের আইনকে।

 

৫০কেজির উপর আলু কেনা অবৈধ 

ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়াতে আপনি একসাথে ৫০ কেজির বেশি আলু কিনতে পারবেন না ! আলু বিক্রেতা কর্পোরেশন চাইলে আপনার গাড়ি তল্লাশি করতে পারবে, আপনি যদি পঞ্চাশ নিজের বেশি আলু আমদানি করেন তাহলে আপনার উপর তারা মামলা দিতে পারবে আইনগত ভাবে !

 

 

হাই হিল পড়ে গ্রীসে হাটা নিষিদ্ধ

গ্রীসের ঐতিহাসিক জায়গা গুলোতে এবং জাদুঘর গুলোতে হাই হিল পরে যাওয়া সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ। হাই পরে যাওয়ার কারণে যাতে দূর্ঘটনাবশত কোন ভাস্কর্য কিংবা দেয়ালে আঘাত না লাগে তাই এই নিষিদ্ধ করার

 

দাঁড়ি এবং গোঁফ আছে এমন মানুষের জন্য চুমু দেওয়া নিষিদ্ধ

ইউরেকা, নেভিদাতে যেসকল পুরুষের গোঁফ আছে তাদের জন্য চুমু দেওয়া নিষিদ্ধ এতে করে যাতে কোনো ধরনের রেশ হয় !  এমন দেশে থাকলে চাইলেও আপনি আপনার প্রিয়তমাকে চুমু খেতে পারবেন না 

 

বিয়ের জন্য ধর্ষণ বৈধ

পৃথিবীর নয়টি দেশে ধর্ষণের শাস্তি থেকে একজন ধর্ষক বাঁচতে পারবে যদি সে মেয়েটিকে বিয়ে করে ! এই দেশগুলো হলো বাহারাইন, ইরাক, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, ফিলিস্তিন, ফিলিপাইন, তাজাকিস্থান এবং তিউনিসিয়া। এখানের বেশিরভাগ বিয়েগুলো হয় মেয়েদের অমতেই। তাছাড়া আর একটি প্রতিবেদনে দেখা যায় গ্রীস, রাশিয়া, সার্বিয়া এবং থাইল্যান্ডেও ধর্ষণের শাস্তি এড়াতে আইনগতভাবে চাইলে একটি কাপল বিয়ে করা ছাড়াও সম্পর্কের মাঝে থাকলে এই শাস্তি এড়াতে পারবেন ! 

 

বৈবাহিক ধর্ষণ বৈধ 

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের এক প্রতিবেদন অনুসারে বিশ্বের অন্তত ১০ টি দেশ আছে যেখানে ও বৈবাহিক ধর্ষণ স্পষ্ট ভাবে বৈধ ! এই দেশগুলোর মধ্যে ঘানা, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জরদান, লেসোথো, নাইজেরিয়া, ওমান, সিঙ্গাপুর, শ্রীলংকা এবং তানজেনিয়া অন্তর্ভুক্ত। এই দেশ গুলোর মাঝে চারটি এমন দেশ আছে যেখানে বাল্য বিবাহ নিষিদ্ধ এর পরও কোনো পুরুষ যদি কোন নাবালিকার সাথে বিয়ে হয় এবং এরপর বৈবাহিক ধর্ষণ হয় সেটা বৈধ !

দিল্লির একজন বিচারক আদেশ দিয়েছেন যে বিয়ের ক্ষেত্রে জোরপূর্বক ধর্ষণ করাটা বেআইনি নয়। যে মামলায় এই রায় দেয়া হচ্ছে সেই মামলাটি ছিল- একজন ২১ বছরের নারী যিনি তার স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন। যেখানে তিনি উল্লেখ করেছিলেন যে, তাকে নেশাগ্রস্ত করে তার কোন অনুমতি ছাড়াই বিয়ের কাগজপত্রে সই করানো হয়েছে এবং তাকে বিয়ে করা হয়েছে। তিনি যখন নেশাগ্রস্ত ছিলেন তার স্বামী তার সাথে জোর করে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেন। 

 

শিল্পকর্ম চুরি করা ! 

source: internet

source: internet

চুরি, সেটা সবসময়েই একটি গর্হিত ও আইনত দন্ডনীয় কাজ। কিন্তু নেদারল্যান্ডে শিল্পকর্ম চুরি করা কোনভাবেই আবৈধ নয়। বরং, আপনি যদি কোনভাবে আপনার কাছে সেই চুরি করা শিল্পকর্ম  কিছুদিন রেখে দিতে পারেন তাহলে পাকাপাকিভাবে সেটা আপনার হয়ে যাবে। তখন সেটার বৈধ মালিক হয়ে যাবেন আপনি।

শিল্পকর্মটি যদি সরকারের মালিকানাধীন হয় কিংবা অত্যন্ত মূল্যবান হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে একটু বেশিই কষ্ট পোহাতে হবে আপনাকে। প্রায় ৩০ বছর ধরে সেটাকে তখন লুকিয়ে রাখতে হবে আপনার। কোনমতে ৩০টা বছর কাটিয়ে দিতে পারলেই সেটা একেবারের মতন আপনার হবে যাবে। তাও আবার আইনত!

 

 

বাল্য বিবাহ বৈধ

বিশ্বের সর্ব মোট ১৯৮টি দেশ আছে ! এর মাঝে ১১৭ টি দেশেই বাল্যবিবাহ হয়ে থাকে আইনগতভাবে তা বৈধ থাকুক কিংবা অবৈধ থাকুক ! কিছু কিছু জায়গায় ধর্মীয় রীতি অনুসারে এর বয়স নির্ধারণ করা হয়, কখনো কখনো দেখা যায় ছেলের বয়স ১৫ থাকে কিংবা ১২ বছরে বিয়ে করা যাচ্ছে। আবার কিছু দেশের আইন এমন যে কেউ একজনের ২১ বছর হলেই তারা বিয়ে করতে পারবে !

 

প্রকাশ্যে মাদক নেওয়া! 

source: internet

source: internet

পর্তুগালে সম্প্রতি একটি আইন করা হয়েছে। আর এই আইন অনুযায়ী পৃথিবীতে আজ পর্যন্ত আবিষ্কার হওয়া যেকোন মাদক নিতে পারবে এখানকার বাসিন্দারা। প্রথমবার তারা যে মাদকটিই নিয়ে থাকুক না কেন, তাদেরকে আটক করা হবেনা।

যদিও এই আইনের মাধ্যমে দেশের মাদক সেবনকারীর হার কমিয়ে এনেছে পর্তুগাল অনেকটাই। তবে প্রথমবার মাদকে কোন সমস্যা না থাকায় সব ধরণের মাদক সেবনের জন্যে উন্মুক্তও হয়ে গিয়েছে দেশটি। তাই একজন মানুষ নিজের দেশে অবৈধ বলে ঘোষিত মাদকটিও পর্তুগালে প্রথমবারের জন্যে বৈধভাবে নিতে পারেন।

 

নগ্ন হয়ে ঘুরে বেড়ানো! 

source: internet

source: internet

স্পেনের সমুদ্রসৈকতগুলোতে যাওয়ার জন্যে অনেকেই আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করেন। আর এর কারণ হচ্ছে , এই স্থানগুলোতে নগ্নভাবে ঘুরে বেড়ানোকে বৈধতা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু স্পেনের সমুদ্রতীরের এই বিষয়টি সবাই জানলেও একটি বিষয় অনেকেই জানেনা যে, কেবল সমুদ্রতীর নয়, স্পেনের আইন অনুযায়ী যেকোন স্থানে নগ্নভাবে ঘুরে বেড়ানোর অধিকার দেওয়া হয়েছে সবাইকে। 

১৯৭৮ সালে করা এই আইনটি রদ করার চিন্তা অনেকবার করা হলেও এখনো পর্যন্ত কোন কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। ফলে ইচ্ছে হলে স্পেনের রাস্তাতেও নগ্ন হয়ে হাঁটতে পারেন যে কেউ। কারণ সেটা ওখানে বৈধ!

 

কুকুরকে বিয়ে করা! 

source: internet

source: internet

ভারতে আপনি যে কোনও পশুকে বিয়ে করতে পারবেন, আইনগত কোন বাঁধা নেই। আপনাকে কুকুর পর্যন্ত সীমাবদ্ধ  থাকতে হবে না, যদিও সবচেয়ে জনপ্রিয় পছন্দ কুকুর বলে বলে মনে হচ্ছে।

নয়া দিল্লির এক ব্যাক্তির কথার মাধ্যমে বিষয়টা একটু ব্যাখ্যা করি, বাচ্চা বয়সে তিনি দুটো কুকুরকে পাথর মেরে ঝুলিয়ে দিয়েছিলেন, এবং তার কাছে মনে হয়েছে তার এই নিষ্ঠুরতার কারনে তিনি বরাবরই অসুস্থ থাকতেন।

তিনি এক এস্ট্রোলজারের কাছে যান তাকে বলা হয় কুকুর বিয়ে করতে হবে যদি তার এই অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে হয়। এবং তার পরিবার এতে সম্মতি দেয়। যার ফলে আপনারা উপরের ছবিটি দেখতে পাচ্ছেন! এই বিয়েটি পারিবারিক সম্মতিক্রমে এবং অতিথি উপস্থিতির মাধ্যমে হয়! 

 

কানাডার সরকারী কর্মচারি চাইলে হিরোইন নিতে পারে! 

source: internet

source: internet

আপনি যদি ভ্যানকুভার শহরে দেখেন , তাহলে আপনি দেখতে পাবেন, সরকারী বিল্ডিং এ আডিক্টগুলি মেডিক্যাল পেশারদের সহায়তায় হেরোইনকে বৈধভাবে প্রবেশ করতে পারে।

হেরোইন প্রবেশ করার জন্য ড্রাগ নিজেকেই আনতে হবে, এবং তা পরিদর্শন করার জন্য গ্রেফতারের কোন ঝুঁকি নেই এবং ড্রাগ নেওয়ার জন্য সঠিক নাম এন্ট্রি করা থেকেও বিরত থাকতে পারেন। ভিতরে, আপনি ১২ টি ইনজেকশন বুথ পাবেন, প্রতিটি একটি সুনির্দিষ্ট সুচ এবং স্টেরিও সরঞ্জাম দিয়ে সজ্জিত।

চিকিৎসা কর্মীরা সহযোগিতা করবে, এমনকি আপনি সঠিক শিরা খুঁজে পেতে সাহায্য করবে। বেশিরভাগই, যদিও তারা সেখানে দাঁড়িয়ে থাকে এবং আপনি যদি অতিরিক্ত মাত্রায় হিরোইন নিয়ে থাকেন, তাহলে নিশ্চিত হোন যে আপনি হেরোইন নেওয়ার পর নিরাপদে আছেন।

প্রোগ্রামটি শুরু হয়েছে আরো ২০ বছর আগে, ভ্যানকুভারে এইচআইভির হার সবচেয়ে বেশি ছিল। এটি একটি বিশাল সাফল্য হয়েছে তাদের এইচআইভির হার কমাতে । কিছু লোক এমনকি দিনে দুই বা তিন বার ফিরে আসে।

 

ইরানে কিডনী বিক্রির বিজ্ঞাপন! 

source: internet

source: internet

ইরানে, মানুষ বিজ্ঞাপনের পোষ্টার স্থাপন করে যে তাদের কিডনি বিক্রি হবে। তারা সাধারণত তাদের রক্তের ধরন এবং ফোন নম্বর লিখেন, কিন্তু কিছু লোক একটু বেশি প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হয়। কিছু পোস্টারে উজ্জ্বল, মনোযোগ-আটকানো রং করে আকর্শনীয় করে তোলা হয় যাতে তাড়াতাড়ি বিক্রি হয়। অন্যরা পরীক্ষার ফল দেখায় যে, তাদের কিডনি সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রমাণ করে।

 

আমাদের লক্ষ্য থাকে সবসময় নতুন কিছু আপনাদের জানানোর। আপনারা নতুন কিছু জানতে পারলে আমাদের আয়োজন সার্থক হয়। আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়