সঞ্জীব শ্রীভাস্তাভের একটি নাচের ভিডিও ভাইরাল হলে তিনি তারকা বনে যান অন্যদিকে প্রিয়া প্রকাশ একটি মিউজিক ভিডিওতে চোখের ইশারায় কাঁপান সারা বিশ্বকে...  সঞ্জীব শ্রীভাস্তাভের একটি নাচের ভিডিও ভাইরাল হলে তিনি তারকা বনে যান অন্যদিকে প্রিয়া প্রকাশ একটি মিউজিক ভিডিওতে চোখের ইশারায় কাঁপান সারা বিশ্বকে...

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যারা রাতারাতি তারকা খ্যাতি অর্জন করেছেন

ইন্টারনেট ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিদিন অসংখ্য ছবি, ভিডিও ভাইরাল হয়, কিন্তু খুব মানুষেরই জীবন এক্ষেত্রে পরিবর্তিত হয়েছে। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে কিছু ছবি কিংবা ভিডিও এত বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করে যে, তা কারো জীবন চিরদিনের জন্য পরিবর্তন করে দিতে পারে।আজকের আয়োজনে আমরা আপনাদের এমন ই কিছু মানুষের কথা বলব যাদের এমন কিছু ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যার জন্য তারা রাতারাতি তারকা বনে গেছেন।

১. সঞ্জীব শ্রীভাস্তাভ 

সঞ্জীব শ্রীভাস্তাভ গোবিন্দের সাথে রিয়্যালিটি টিভি শোতে নাচছেন

সঞ্জীব শ্রীভাস্তাভ গোবিন্দের সাথে রিয়্যালিটি টিভি শোতে নাচছেন

সঞ্জীব শ্রীভাস্তাভ বর্তমানে সারাবিশ্বে ডান্সিং আংকেল হিসেবে পরিচিত। তার আত্মীয়ের একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে নাচের একটি ভিডিও শুধুমাত্র ভারতে না বরং সারা বিশ্বে রাতারাতি ভাইরাল হয়ে যায়। তিনি পেশায় একজন শিক্ষক যিনি ভারতের ভোপালে বসবাস করেন। মজার বিষয় হচ্ছে তার ভিডিওটি যে এতটা ভাইরাল হয়ে গিয়েছে তিনি নিজেও বুঝতে পারেননি।

images.indianexpress.com

images.indianexpress.com

এরপর থেকেই তাকে বিভিন্ন শোতে অংশগ্রহণ করার আমন্ত্রণ জানানো হয়। সে অনেক টিভি শো এবং সাক্ষাত্কারে অংশগ্রহণ করেছেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি ভারতের একটি নাচের রিয়েলিটি শোতে গোবিন্দ এবং সালমান খানের সাথে দেখা করার সুযোগ পান। একটা ছোট্ট ভিডিও তার জীবনকে পুরোপুরি পরিবর্তন করে দিয়েছে। সুনাম এবং খ্যাতি এনে দিয়েছে সকল স্তরের মানুষের কাছে। আমরা যাই করি তা যদি মন থেকে উঠতে পারি পরিচিতি কিংবা সুনাম অর্জন সম্ভব।

২. হান্নান হামিদ

i0.wp.com/www.siasat.com

i0.wp.com/www.siasat.com

ভারতের কেরালায় বসবাসকারী এই মেয়েটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচুর ভাইরাল হয়েছেন। মূলত তার একটি কলেজের পোশাক পরিহিত ছবি যেখানে দেখা যায় তিনি বাজারে মাছ বিক্রি করছেন। রাতারাতি এই ছবিটি যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। মূলত এই মেয়েটি তার পরিবারকে সহায়তা করার জন্য কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি স্থানীয় বাজারে মাছ বিক্রি করেন। যখন তার ছবি ভাইরাল হয় ভারতে বসবাসকারী অনেক দানশীল ব্যক্তি তার পড়াশোনার জন্য অর্থ দান করতে লাগলেন। শুধু তাই নয় হান্নান মালায়লাম একজন পরিচালকের কাছ থেকে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পান। কিন্তু এর পরেই তার জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়ে যখন সমালোচকরা তাকে উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন বিষয়ে নেতিবাচক সমালোচনা শুরু করে।

s3.ap-southeast-1.amazonaws.com

s3.ap-southeast-1.amazonaws.com

অনেকে এরকম বলছিল যে, যদি সে দরিদ্র ঘরের হয় তাহলে সে সাইকেল কেনার টাকা কি করে পায়? তার কি করে একটা ফেসবুক একাউন্ট থাকে? আরো অনেক কিছু। যখন মিডিয়া তার কর্মস্থলে হাজির হয়ে তাকে বিভিন্ন উল্টোপাল্টা প্রশ্ন করতে লাগলো সেখানে পুলিশ গিয়ে তাকে ওই অবস্থা থেকে উদ্ধার করে। পর এসে কান্নাকাটি করে পুলিশকে বলে, আমি গরিব বলে কি আমার একটা ফেসবুক একাউন্ট থাকতে পারে না? কিংবা আমি কি আমার পরিবারকে সাহায্য করার জন্য কাজ করতে পারি না? যেখানে হান্নান হামিদ ডোনেশনের ঢাকা থেকে কেরালায় সংগঠিত বন্যায় ১.৫ লাখ রুপি দান হিসেবে দিয়েছিল সেটা নিয়ে কেউ কথাই বললো না। বড় সবাই তার সামান্য বিষয়গুলো নিয়ে সমালোচনার ঝড় তুললো।

৩. ধিনচ্যাক পূজা

im.rediff.com

im.rediff.com

"সোয়াগ ওয়ালি টুপি মেরি সোয়াগ ওয়ালি টুপি " শিরোনামে এমন একটি গান পূজা ইউটিউবে ছাড়েন যেটা খুব দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।তিনি রীতিমত তারকা বনে যান। পাশাপাশি এখন বিভিন্ন লাইভ শোতে তিনি অংশগ্রহণ করছেন যার মাধ্যমে অনেক বড় অংকের টাকা আয় করছেন। তিনি বিগ বস ১১ তে ওয়ার্ল্ড কার্ড কন্টাক্ট হিসেবে হাজির হন। যদি মানুষটাকে নিয়ে অনেক হাসি ঠাট্টা করেছিল কিন্তু পরবর্তীতে মানুষ তার মেধার প্রশংসা করেছেন।

২.প্রিয়া প্রকাশ ভারিয়া

Internet

Internet

প্রিয়ার একটি ভিডিও গানে চোখের ভঙ্গি নিশ্চয়ই এখনো আপনারা ভোলেননি? এবং সেই ভিডিও পর থেকেই প্রিয়া সকলের মন কেড়ে নেন। রাতারাতি তারকা বনে যান। তিনি ইতিমধ্যে অনেকগুলো চলচ্চিত্রে অভিনয়ের লোভনীয় প্রস্তাব পেয়েছেন।

১. ট্রিভাগো মানুষ ওরফে আভিনাভ কুমার

www.socialsamosa.com

www.socialsamosa.com

ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেলে এই লোকের বিজ্ঞাপন দেখেননি এমন ব্যক্তি খুঁজে পাওয়া যাবে না। তিনি তর বিজ্ঞাপন এর সাহায্যে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। যদিও তাকে নিয়ে ট্রল করে প্রচুর মিম তৈরি হয়েছে যার জন্য তিনি জনপ্রিয় হয়েছিলেন। কিন্তু তিনি এ সকল বিষয়কে খুবই ইতিবাচকভাবে দেখেছেন। তার অভিনীত বিজ্ঞাপনটি একদমই আলাদা কারণ সে প্রফেশনাল কোন মডেল নয় কিংবা মডেলের মতো দেখতে কোন ব্যক্তি নয়।

thehumornation.com

thehumornation.com

তিনি মূলত জার্মানিতে বসবাস করেন এবং ট্রিভাগো কোম্পানির কান্ট্রি ডেভলপমেন্ট হেড হিসেবে কর্মরত আছেন। মজার বিষয় হচ্ছে তার এই ভাইরাল হওয়ার কারণে বাবার সাথে দীর্ঘ ১০ বছর পর সাক্ষাৎ হয়েছে। বাবা এতদিন জানতেন তার ছেলে কোন একটা হোটেলে কাজ করেন। এর বেশি কিছুই জানতেন না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কে অসংখ্য ধন্যবাদ পুত্রকে বাবার সাথে মিলিয়ে দেয়ার জন্য। 

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার দিয়ে সাথেই থাকুন। সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ.... 



জনপ্রিয়