কিছু প্রশ্নের উত্তর যা আপনার মনকে প্রশান্তি দিবে ।       কিছু প্রশ্নের উত্তর যা আপনার মনকে প্রশান্তি দিবে ।

কিছু প্রশ্নের উত্তর যা আপনার মনকে প্রশান্তি দিবে ।

বিখ্যাত  ফটোগ্রাফার আদ্রিয়ান ম্যাকডোনাল্ড মানুষের মনে যে প্রশ্ন গুলি সব সময় জিজ্ঞেস করে  তা উনার তোলা ছবি দিয়ে বুঝিয়েছেন । তিনি আরো বলেছেন " আমি সম্প্রতি কয়েক মাস ধরে প্রকল্পের কাজগুলো করছিলাম এবং আমি লক্ষ করলাম আমার তোলা ছবিগুলো মানুষের জীবনের সাথে মিলে যাচ্ছে। তারপর আমি কিছু  রিসার্চ করলাম এবং ১০টি ছবি বের করলাম যা আমাদের সবার মনের লুকায়িত প্রশ্নগুলোর উত্তর দিয়ে দেয় " । 

তাই আপনাদের জন্য হাজির করলাম সেই ১০টি ছবি এবং ১০টি প্রশ্নের উত্তর যা আপনার মনকে প্রশান্তি এনে দিবে ।  

 

১। মৃত্যু কেন অনিবার্য?

মৃত্যু অনিবার্য কারন আমরা জন্ম নিয়েছি। মৃত্যু ছাড়া জন্ম নেয়ার কোন মূল্যই নাই। আমরা সবাইএকটি জীবন খেলার খেলোয়ার। জীবন খেলার প্রতি পদে আমরা পাবো আশ্চর্যময় মুহুর্ত। আমরা আসতে আসতেই খেলার উপর কৌতুহল হারাতে থাকব এবং একসময় জীবনের উপর আমরা অতিষ্ঠ হয়ে যাবো এবং তখনইপরিচয় হয় আমাদের মৃত্যুর সাথে যাকিনা আমাদেরকে পরিচয় করিয়ে দিবে নতুন আরেক দুনিয়ার সাথে। আপনার কল্পনা থেকে চিন্তা করে দেখেন মৃত্যু না হলে কি হত তাহলেই বুঝে যাবেন মৃত্যু কেন হয়।  স্বাভাবিক ভাবে আমরা মানুষরা যা পাই তার থেকে বেশী চাই সবসময়। একদিক থেকে চিন্তা করলে এটা ভালো কারন, জন্মেও সময় আমাদের শরীর ছাড়া আর কিছুই থাকেনা। আমাদের এই পাওয়ার ইচ্ছাই আমাদের জীবনে বড় হতে সাহায্য করে। কিন্তু একটা সময় যেয়ে মনে হয় এটা আর কিছুনা। আমাদের পরিধী ছোট তাই মৃতুর প্রয়োজন যাকিনা আমাদের অন্যরকম অভিজ্জতার সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়।

 

২। লক্ষ্য অর্জনের জন্য পর্যাপ্ত সময় আছে কি? 

জীবনটা বড়ই অদ্ভুদ। আমাদের জন্মের পর থেকে জীবনের দৌড় শুরু হয়ে যায়। আমরা খুব কম সময়ই জীবনের প্রতি হাপিয়ে উঠি। কিন্তু তখনও আমাদের সমাজ পরিপার্শিক পরিস্থিতি বলতে থাকে উঠ দৌড়া ও আর তা না পারলে মরে  যাও। যখনই আমরা ভাবি আমরা শেষ লাইন এ চলে আসছি কিন্তু সেই মুহুর্তেই কেউ না কেউ  এসে বলে এটাই শেষ না আরো বাকি আছে। জীবন এমনই একটা রেস যা চলতেই থাকবে যার কোন শেষ নেই । 

 

৩। কোথায় পাবেন অনুপ্রেরণা ? 

অনুপ্রেরণা শব্দটা অনেক রহস্যজনক। কোথায় আছে কিভাবে পাবো এই অনুপ্রেরণাকে কেউ জানেনা। অনুপ্রেরণা আসতে পাওে প্রকৃতি থেকে সূর্যের আলো থেকে অথবা কোন ব্যক্তির কাছ থেকে এটা সম্পূর্ণ নির্ভর  করবে আপনার উপর আপনি কই থেকে অনুপ্রাণিত হচ্ছেন। অতএব মন কে শান্ত রেখে খুজে নিন অনুপ্রেরণাকে এটা আপনার ভিতরেই জন্ম নেয়। 

 

৪। আমি কে?  

এই প্রশ্নআমাদের সবারমনেইজাগে। আমি কে? কেন আমার জন্ম?আমি কি কারও বাবানাকি ভাই, নাকি নাকি বোন? নাকি মা? এই প্রশ্নের উত্তরের জন্য আমাদেরকে সবার আগে জানতে হবে আমার জীবনের উদ্দেশ্যে কিতাহলেই আমরা জেনে যাবো আমরা কে? কেন আমাদের জন্ম ।  

 

৫। আমাদের জীবনের উদ্দেশ্য কি? 

জীবন একটি গোলক ধাঁধার মত যার অনেকগুলো পথ কিন্তু বেছে নিতে হবে একটাই। যা এগিয়ে নিয়ে যাবে আমাদের জীবনের সফলতার শিখরে। 

 

৬। ভালোবাসা কি সত্যি, থাকবে কি সারাজীবন এভাবে? 

ভালোবাসা চরম এক সত্য যা পৃথিবীতে আছেবলেই আমরা এই পৃথিবীতে টিকে আছি। মাঝে মাঝে সম্পর্ক ভাঙে গড়ে তাই বলে এই না ভালোবাসা মরে গেছে। ভালোবাসা বেচে আছে। বেচে থাকবে সারাজীবন। 

 

৭। কি ভাবে নিজের কাছে শ্রেয় হব? 

নিজের দুর্বলতা কে পিছনে ফেলে নিজের শক্তিকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবো। নিজেকে ভালোবাসো,নিজের গুণকে ভালোবাসো তা হলেই নিজের কাছে নিজেকে বড় মনে হবে। 

 

৮। প্রভু কোথায় আছে? 

প্রভু কোথায় নেই সর্ব খানে আছেন তিনি। শুধু এই পৃথিবী না পুরো জগতের  সবখানে তার বিস্তার। কোন এক জায়গায় তাকে খুঁজে পাওয়া যাবেনা কারন সবখানেতার ছোঁয়া আছে। আমরা যা দেখছি, যা হচ্ছে, যা ঘটছে এর পিছনে প্রভুর হাতই রয়েছে সর্বোচ্চ যা আমাদের চিন্তার ও বাইরে যে কিভাবে হচ্ছে এসব কিভাবে চলছে এই পৃথিবী । 

 

৯। আমরা কি নিষ্ঠুর হয়ে যাচ্ছি? 

হ্যা যত দিন যাচ্ছে আমরা নিষ্ঠুর হচ্ছি। অন্যকে বিরক্ত করছি। অন্যেও জিনিস ছিনিয়ে নেয়ারি চন্তা করছি। অন্যেও কষ্টকে বুঝতে চাইনা। দিন দিন আমরা হয়ে যাচ্ছি নিষ্ঠুর এবং স্বার্থপর। খারাপের মধ্যে নিজের খুশি খুজে বেড়াচ্ছি যা আমাদের জীবন কে বানিয়ে দিচ্ছে বিষাদময়। 

 

১০। আমরা কি স্বার্থপর হয়ে যাচ্ছি?  

দিনদিন আমাদের ভিতরের স্বার্থপর স্বরূপ স্বভাব, অন্যেও কষ্টকে বুঝতে না চাওয়া এই স্বভাবগুলো আমাদের কে বানিয়ে দিচ্ছে স্বার্থপর । যাতে আমাদের সমাজে স্বার্থপরতারহার বেড়েই চলেছে। আজকাল মানুষ নিজের ক্ষুধা মিটানোর জন্য সবকিছুই করতে পারে। যা পৃথিবীকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আমাদের ভিতরের স্বভাব পরিবর্তন করে নিজে এবং আশেপাশের সকলকে প্রশান্তিতে থাকতে দিতে হবে। 



জনপ্রিয়