ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সামুদ্রিক দুর্যোগ  ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সামুদ্রিক দুর্যোগ

ইতিহাসের সবচেয়ে বড় সামুদ্রিক দুর্যোগ

যে সময় থেকে লোকেরা বুঝতে পেরেছিল যে কাঠগুলো জলের উপর ভাসে, সেই সময় থেকে ইতিহাস জুড়ে অসংখ্য জাহাজ ডুবির ঘটনা ঘটেছে এবং এখনও ঘটে। যদিও মানুষেরা না ডুবা জাহাজ নির্মাণ করতে পেরেছে কিন্তু সমুদ্রকে বা প্রকৃতিকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে নি।

আজকে আমরা ইতিহাসের সবচেয়ে বিধ্বংসী সামুদ্রিক বিপর্যয়ের তালিকা সংগ্রহ করেছি (এবং হ্যাঁ টাইটানিক সেখানে আছে)। 

 

১. এইচএমএস সাসেক্স 

http://www.andalucia.com/history/hmssussex.htm

http://www.andalucia.com/history/hmssussex.htm

এইচএমএস সাসেক্স জিব্রাল্টারে ১৬৯৪ সালের ১লা মার্চ একটি তীব্র ঝড়ের কবলে পড়েছিল। জাহাজের ক্যাপ্টেন এবং ক্রু ঝড় থেকে পালিয়ে বাঁচার চেষ্টা করেছিল, কিন্তু যখন তাদের কামান পোর্টে পানি ঢুকতে শুরু করে তখন খুব দ্রুতগতিতে তাদের জাহাজ ডুবে গিয়েছিল। ৫০০ জন নাবিক সদস্যদের মধ্যে মাত্র দুইজন বেঁচে ছিল।

 

২. অটোমান ফ্রিগেট আরতুগ্রুল

https://www.nippon.com/en/genre/politics/l00127/

https://www.nippon.com/en/genre/politics/l00127/

১৮৯০ সালের ১৮ই সেপ্টেম্বর অটোমান ফ্রিগেট আরতুগ্রুল জাহাজটি জাপানের কিশুমোটো দ্বীপপুঞ্জের শিলায়  টাইফুন আঘাত হানার পর ডুবে গিয়েছিল। ইয়োকোহামাতে তিন মাস থাকার পর, তিনদিন পূর্বে ক্রু জাহাজের পালটি তুলে দিয়েছিল। এডমিরাল আলী ওসমান পাশা সহ সামুদ্রিক দুর্ঘটনার ফলে ৫৮৭ জন নাবিকের মৃত্যু হয়েছিলো এবং মাত্র ৬৯ জন বেঁচে ছিল।

 

৩. আরএমএস আটলান্টিক

https://www.maritime-executive.com/features/the-sinking-of-rms-atlantic

https://www.maritime-executive.com/features/the-sinking-of-rms-atlantic

১৮৭৩ সালের ৩১শে মার্চ ভোর ৩ :১২ টায় আরএমএস আটলান্টিক নোভা স্কটিয়ারের মারের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময় একটি পাথরে ধাক্কা লেগে বিধ্বস্ত হয়েছিলো। পাশে থাকা সবগুলো নৌকা সমুদ্রে ধাবিত  হয়েছিল, যার ফলে ব্যাপক মৃত্যু ঘটেছিল। আনুমানিক ৯৫০ জন লোকের মধ্যে নারীসহ ৫৬২ জন মারা গিয়েছিল। শুধুমাত্র একটি শিশু বেঁচে ছিল।

 

৪. এস এস গ্র্যান্ডক্যাম্প

source: unknown

source: unknown

১৯৪৭ সালের ১৬ এপ্রিল, ফরাসিদের যুদ্ধের সময় ব্যবহৃত জাহাজটি টেক্সাসের টেক্সাস শহরে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট ভরার সময় পুড়ে যায় এবং বিস্ফোরিত হয়। এই দূর্ঘটনায় আনুমানিক ৫৮১ জন নিহত হয়েছিলো, যার মধ্যে ২৪ জন অগ্নিনির্বাপক ছিল এবং ৫০০০ জনেরও বেশী আহত হয়েছিলো।

 

৫. এসএস প্রিন্সেস এলিস

source: unknown

source: unknown

১৮৭৮ সালের ৩ সেপ্টেম্বর রাজকুমারী এলিস টেমস নদীতে ছিল, যখন এই জাহাজটি কলিয়ার বাইওয়েল প্রাসাদের সাথে সংঘর্ষে ডুবে গিয়েছিল। এই দুর্ঘটনায় ৬৫০ এরও বেশী মানুষ মারা গিয়েছিল।

 

৬. এসএস নর্জ

source: unknown

source: unknown

১৯০৪ সালের ২৮ জুন, সেন্ট হেলেনস প্রবালপ্রাচীরের উপর এই জাহাজটি ঘুরে বেড়ায়। সংঘর্ষের ফলে জাহাজটি ডুবে যায়, যার ফলে ৬৩৫ জন নিহত এবং ১৬০ জন আহত হয়েছিল। যারা উদ্ধারের পূর্বে ওপেন লাইফবোটগুলোতে আট দিন কাটিয়েছিল।

 

৭. এমভি প্রিন্সেন অফ দ্য স্টারস

https://newsinfo.inquirer.net/383095/what-went-before-sinking-of-mv-princess-of-the-stars

https://newsinfo.inquirer.net/383095/what-went-before-sinking-of-mv-princess-of-the-stars

২০০৮ সালের ২১ জুন, ফিলিপাইনের রোমব্লোনের সান ফার্নান্দোর উপকূলে টাইফুন ফেংশেনে স্টারের খেয়াতরী প্রিন্সেস উল্টে ডুবে যায়। এই দুর্ঘটনায় আনুমানিক ৮০০ জনের মধ্যে মাত্র ৫৭ জন বেঁচে ছিল।

 

৮. এসএস কামর্টা

source: unknown

source: unknown

১৯০৬ সালের ৬ মে, কামর্টা ভারতের মাদ্রাস থেকে বার্মার রেঙ্গুনে যাত্রা করার সময় বারগুয়া ফ্ল্যাট নামে পরিচিত সমুদের একটি অংশে ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে ডুবে যায়। এর ফলে ৬৫৫ জন যাত্রী এবং ৮২ জন ক্রুর প্রাণ হারায়।

 

৯. এইচএমএস বুলওয়ার্ক

http://www.wessexwfa.org.uk/articles/hms-bulwark.htm

http://www.wessexwfa.org.uk/articles/hms-bulwark.htm

১৯১৪ সালের ২৬ নভেম্বর, একটি শক্তিশালী আভ্যন্তরীণ বিস্ফোরণের নদীর মিডওয়ে মোহনায় বুলওয়ার্ক ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায়। ফলে, ৭৫০ জনের মধ্যে মাত্র ১৪ জন নাবিক বেঁচে গিয়েছিল এবং ৫১ জন অফিসারসহ বাকি লোকেরা এই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারায়।

 

১০. এইচএমএস রয়েল জর্জ

source: unknown

source: unknown

১৭২৮ সালের আগস্টে, পোর্টসমাউথে এটি নোঙ্গর ফেলে একটু দূরে গিয়েছিল এবং ডুবে যাওয়ার পূর্বে কামান পোর্টের পানি ঢুকে গিয়েছিল। এতে, ৮০০ জনেরও বেশী লোকের প্রাণ হারায়।

 

১১. এইচএমএস ভ্যানগার্ড

source: unknown

source: unknown

১৯১৭ সালের ৯ জুলাই স্কাপা ফ্লোতে মধ্যরাতের আগে, এইচএমএস ভ্যানগার্ড বিস্ফোরিত হয় এবং অবিলম্বে পানিতে ডুবে গিয়েছিল। আনুমানিক ৮৪৩ জনের মধ্যে মাত্র ২জন জীবিত অবস্থায় ফিরে এসেছিল।

 

১২. এসএস ইস্টল্যান্ড

https://allthatsinteresting.com/ss-eastland-disaster

https://allthatsinteresting.com/ss-eastland-disaster

১৯১৬ সালের ২৪ জুলাই, শিকাগো নদীর ফেরিঘাটে নোঙ্গর ফেলার সময় এসএস ইস্টল্যান্ড জাহাজটি সম্পূর্ণরূপে পাশের দিকে উল্টে পড়ে এবং নদীতে পড়ে যায়। জাহাজটিতে ২৫০০ জনেরও বেশী যাত্রী ছিল এবং তাদের মধ্যে ৮৪৫ জন যাত্রী এবং ক্রু মারা গিয়েছিল।

 

১৩. এমএস এস্তোনিয়া

https://owlcation.com/humanities/The-Sinking-of-the-MS-Estonia

https://owlcation.com/humanities/The-Sinking-of-the-MS-Estonia

এমএস এস্তোনিয়া ১৯৯৪ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর বাল্টিক সাগরের মধ্যে ডুবে গিয়েছিল এবং এতে ৮৫২ জন মারা গিয়েছিল বলে দাবি করা হয়।

 

১৪. পিএস জেনারেল স্লোকাম

https://www.smithsonianmag.com/history/a-spectacle-of-horror-the-burning-of-the-general-slocum-104712974/

https://www.smithsonianmag.com/history/a-spectacle-of-horror-the-burning-of-the-general-slocum-104712974/

১৯০৪ সালের ১৫ জুন নিউ ইয়র্কের ইস্ট রিভারে জেনারেল স্লোকামে আগুন লেগে পানিতে ডুবে গিয়েছিল। নাবিকেরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেছিল, কিন্তু ক্ষতিকারক হওয়ার কারণে বিস্ফোরণ হয়েছিল। ফলে ১০০০ এরও বেশী লোক মারা গিয়েছিল।

 

১৫. এমএস আল সালাম বোকাসিও

https://www.redseawreckproject.com/2013/08/18/al-salam-boccaccio-98/

https://www.redseawreckproject.com/2013/08/18/al-salam-boccaccio-98/

২০০৬ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি এমএস আল সালাম বোকাসিও ৯৮, আনুমানিক ১৩১২ জন যাত্রী এবং ৯৬ জন ক্রু সদস্য নিয়ে লাল সাগর পাড়ি দেওয়ার সময় পানিতে ডুবে যায়। জাহাজটির ডেকের নিচে কোথাও আগুন লেগেছিল, যার ফলে ডেকের নিচে পানি ভরে গিয়েছিল। একই সময় দ্রুত গতির বায়ু এবং বিশাল ঢেউ অবশেষে জাহাজটিকে উল্টে দেয়। ১৪০০ জন যাত্রীর মধ্যে মাত্র ৪০০ জন বেঁচে ছিল।

 

১৬. আরএমএস এম্প্রেস অফ আয়ারল্যান্ড

https://www.pbs.org/lostliners/empress.html

https://www.pbs.org/lostliners/empress.html

১৯৪৪ সালের ২৯ শে মে, সেন্ট লরেন্স নদীতে এসএস স্টোরস্টেডের সাথে সংঘর্ষের পর আরএমএস এম্প্রেস অফ আয়ারল্যান্ড জাহাজটি পানিতে ডুবে গিয়েছিল। ১৪৭৭ জন যাত্রীর মধ্যে ১০১২ জন যাত্রীর প্রাণ হারিয়ে গিয়েছিল।

 

১৭. তোয়া মারু

https://www.britannica.com/event/Toya-Maru-ferry-disaster

https://www.britannica.com/event/Toya-Maru-ferry-disaster

১৯৫৪ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর হোকাইডো এবং হংসু দ্বীপের মধ্যে অবস্থিত সুগারু স্ট্রেটের মধ্যে টাইফুন মারির আঘাতে এই জাপানি জাহাজটি ডুবে গিয়েছিল। ফলে আনুমানিক ১৫০০ জন মারা গিয়েছিল।

 

১৮. আরএমএস টাইটানিক

source: unknown

source: unknown

এটা সম্ভবত ইতিহাসের সবচেয়ে সুপরিচিত সামুদ্রিক দুর্ঘটনা। আরএমএস টাইটানিক একটি ব্রিটিশ যাত্রীবাহী বৃহদাকার সামুদ্রিক জাহাজ ছিল, যা ১৯১২ সালের ১৫ এপ্রিল জাহাজটির প্রথম সমুদ্রযাত্রায় সাউথহ্যাম্পটন থেকে নিউ ইয়র্ক সিটি যাওয়ার পথে হিমশৈলের সাথে সংঘর্ষে উত্তর অ্যাটলান্টিক মহাসাগরে ডুবে গিয়েছিল। এতে ১৫২৩ জন মারা গিয়েছিল। এই জাহাজটি ঐ সময়ের সবচেয়ে বৃহৎ, আধুনিক ও বিলাসবহুল যাত্রীবাহী জাহাজ ছিল।

 

১৯. টেক সিং

source: unknown

source: unknown

এটাকে ‘পূর্বের টাইটানিক’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়, এই চীনা জাংক জাহাজটি ইন্দোনেশিয়ার কাছে একটি শিলায় ধাক্কা লেগে ১৮২২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি ডুবে গিয়েছিল। এই জাহাজে ১২০০ জন যাত্রী, ২০০ জন ক্রু সদস্য ছিল, তাদে মধ্যে মাত্র ১৯০ জন বেঁচে ছিল।

 

২০. এসএস সুলতানা

https://www.npr.org/2015/04/27/402515205/the-shipwreck-that-led-confederate-veterans-to-risk-all-for-union-lives

https://www.npr.org/2015/04/27/402515205/the-shipwreck-that-led-confederate-veterans-to-risk-all-for-union-lives

১৮৬৫ সালের ২৭ এপ্রিল বয়লার বিস্ফোরণের কারণে নৌকাটি বিস্ফোরিত হয়। এটিকে আমেরিকার ইতিহাসে সর্ববৃহৎ সামুদ্রিক দুর্যোগ হিসেবে মনে করা হয়, এই বিস্ফোরণে ১৬০০ এরও বেশী লোকের প্রাণ হারিয়েছে।

 

২১. এমভি লে জুলা

https://answersafrica.com/le-joola-disaster.html

https://answersafrica.com/le-joola-disaster.html

২০০২ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর গাম্বিয়া উপকূলে সেনেগালের এই সরকারি মালিকানাধীন জাহাজটি উল্টে পড়ে। এই দুর্ঘটনায় প্রায় ৪০০০ লোক মারা গিয়েছিল এবং দুর্ঘটনার পরের দিন মাত্র ৬৪ জন জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছিল।

 

২২. এমভি দনা পাজ

source: unknown

source: unknown

সামুদ্রিক বিপর্যের ইতিহাসে এই দুর্ঘটনাটিকে সর্ববৃহৎ বিপর্যয় হিসেবে মনে করা হয়। ১৯৮৭ সালে এমভি দনা পাজের ডুবে যাওয়ার ফলে প্রায় ৪৩৪১ জন মারা গিয়েছিল এবং মাত্র ২৪ জন বেঁচে ছিল। ফিলিপাইনের রাজধানীতে যাওয়ার সময় একটি তেল ট্যাংকারের সাথে সংঘর্ষের ফলে জাহাজে আগুন লেগে গিয়েছিল।

 

আমাদের আজকের আয়োজন আপনাদের কেমন লেগেছে? কমেন্টে আমাদের সাথে শেয়ার করে জানান। 



জনপ্রিয়