নিজের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় টিপস     নিজের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় টিপস

নিজের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় টিপস

অধিকাংশ মানুষ অন্তত একবার হলেও তাদের জীবনে একটি বিপজ্জনক পরিস্থিতির অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন। এই ধরনের পরিস্থিতি হ্রাস করার জন্য আজকে আমরা কয়েকটি প্রয়োজনীয় টিপস সংগ্রহ করেছি যা আপনাকে নিরাপদ থাকতে সাহায্য করবে অথবা বিপদ এড়িয়ে যেতে সহায়তা করবে। 

 

১. পার্টি

© Netflix

© Netflix

প্রত্যেকেই মাঝেমধ্যে একবার হলেও পার্টিতে যাতে চায়। আনন্দে থাকা সবসময় একটা ভালো আইডিয়া, কিন্তু আজকাল পার্টির সময়ে নিরাপদ থাকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য আপনাকে যা মনে রাখতে হবেঃ

- আপনার ফোনে একটি অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করুন যা দিয়ে কিছু সমস্যা হলে আপনার পরিবার বা বন্ধুদের অবিলম্বে জানাতে পারেন।  

- সবসময় আপনার পানীয়ের দিকে নজর রাখুন। কারণ আপনি বুঝতে পারবেন না কে কখন আপনার পানীয়ের মধ্যে কি মিশিয়ে দেয়।

- এমন পরিস্থিতি এড়াতে চেষ্টা করুন, যেখানে অন্য লোকেরা আপনার ছবি নিতে পারে এবং অনলাইনে পোস্ট করতে পারে।   

- আপনি যেখানে যাচ্ছেন সেটার ঠিকানা এবং ফোন নাম্বার কাউকে বলে যান।

- পার্টি থেকে ফিরে আসার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। আপনার বয়স যদি কম হয় তাহলে আপনার অভিভাবককে নিতে আসার জন্য এবং আপনি যদি প্রাপ্তবয়স্ক হন তাহলে একটি গাড়ি বুক করুন।

- আপনি যদি নিজের বাড়িতে বাড়ি যান, তবে আপনি যে রাস্তায় যাচ্ছেন সে সম্পর্কে সতর্ক হোন। একটি মরিচ স্প্রে প্রস্তুত রাখুন।

 

২. গাড়ী নিরাপত্তা

© Lionsgate

© Lionsgate

সবাই জানে যে সিট বেল্ট পরা আপনার জীবন বাঁচাতে পারে, কিন্তু অন্য কোনও গাড়ি এবং ড্রাইভিং নিরাপত্তা নিয়মগুলি মনে রাখা সবসময় ভাল। 

- সবসময় গ্যাস পূর্ণ একটি জ্বালানী ট্যাংক রাখার চেষ্টা করুন।

- যেখানে সেখানে পার্ক করবেন না।

- আপনার গাড়ী যখন গন্তব্যের নিকটে আসবে তখন সর্বদা আপনার চাবি প্রস্তুত রাখুন। 

- গাড়ি থেকে নেমে যাওয়ার পর জানালার গ্লাস এবং দরজার লক করে যান। 

-  আপনাকে কেউ যদি অনুসরণ করে, তাহলে নিকটতম দোকান বা গ্যাস স্টেশনে গাড়ি থামান। এতে আপনাকে অনুসরণকারীরা ভীত হয়ে যাবে। 

- গাড়ির বাইরে হাত রাখবেন না। 

- দুর্ঘটনায় আহত হলে জরুরি সেবায় কল করুন। পরবর্তীতে আপনার বীমা কোম্পানী কল করুন। তারপর আপনার গাড়িতে থাকুন। এবং শান্ত থাকার চেষ্টা করুন।  

 

৩. কর্মস্থান

© WarnerBros

© WarnerBros

আমাদের মধ্যে অনেকেই বিপদজনক বলে মনে করেন না, তবে আপনার কর্মক্ষেত্রে কী ঘটতে পারে এবং কীভাবে প্রস্তুত হতে পারে তা জানার মাধ্যমে আপনার জীবন এক দিন বাঁচতে পারে। 

আপনি যদি একটি নির্মাণ সাইটে বা অনুরূপ কাজটিতে কাজ করেন:

- সর্বদা মাথা সুরক্ষা করার গিয়ার পরেন।

- সঠিকভাবে কাজের সরঞ্জাম ব্যবহার করুন।  

- আপনার আশেপাশের বিষয় নিয়ে সচেতন হতে হবে। 

আপনি যদি অফিসে কাজ করেন: 

- সমস্ত নিরাপত্তা ড্রিল নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

- অগ্নি নির্বাণ কোথায় রাখা হয়েছে সেটা জেনে রাখা। 

- আগুনের ক্ষেত্রে সর্বদা সিঁড়ি ব্যবহার করুন।

আমরা সবসময় মনে করি যে, একটি কর্মক্ষেত্র কম বা নিরাপদ জায়গা, তবে জরুরি অবস্থাগুলিতে বেঁচে থাকার জন্য এবং নিরাপত্তা টিপসগুলি জেনে রাখা অপরিহার্য।   

 

৪. একা হাটার সময়

© brightside

© brightside

আপনি যদি পার্টি, অফিস বা স্কুল থেকে ফিরতে দেরী করেন এবং একা হয়ে যান, তখন আপনি একা কিভাবে নিরাপদে বাড়ি ফিরতে পারেন সেটার জন্য কিছু টিপস দেওয়া হলঃ 

- এমন রাস্তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন যেখানে মানুষের একটু ভিড় আছে বা খোলা মার্কেট রয়েছে।

- যদি আপনার মনে হয় যে, আপনাকে কেউ অনুসরণ করছে তবে একটি আত্ম-প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম প্রস্তুত রাখুন। এটা হতে পারে আপনার চাবি, ফোন বা অন্য কোন ভারী বা ক্ষতিকারক বস্তু। 

-  আপনার ফোনে একটি জরুরি কল সেট আপ করুন এবং আপনি যদি মনে করেন যে কিছু একটা হতে যাচ্ছে তাহলে তাৎক্ষণিকভাবে বোতাম চাপ দিন। 

- আপনাকে যদি আক্রমণ করা হয়, তাহলে চিৎকার করুন। কান্না করলে দুষ্কৃতিকারীরা ভয় পেয়ে যাবে এবং আপনার পরিস্থিতির প্রতি অন্যদের মনোযোগ আকর্ষিত হবে। আপনি যদি আক্রমণকারীর সাথে লড়াই করতে চান, তবে চোখ, গলা, মাথা এবং ঊরুসন্ধির দিকে লক্ষ্য রাখুন। আপনি আপনার নখ দিয়ে তাদের পাল্টা আক্রমণ করতে পারেন। 

- আত্মরক্ষার জন্য কিছু মুভ শিখে রাখা একটি ভালো আইডিয়া। 

 

৫. একা ভ্রমণ

© WarnerBros

© WarnerBros

আপনি যখন একা কোন ভ্রমণে যাবেন তখন নিরাপদ থাকার জন্য এই বিষয়গুলি মনে রাখবেন:

- আপনার রুট সম্পর্কে বিস্তারিত  জানুন।

- আপনার ট্রিপ বিস্তারিতভাবে আপনার পরিবার এবং বন্ধুদের জানান। 

- আপনার যোগাযোগ তালিকায় স্থানীয় জরুরী ফোন নম্বরগুলি লিখুন, বিশেষ করে আপনি যদি বিদেশে ভ্রমণ করেন। 

- হিচহাইকিং দ্বারা ভ্রমণ এড়াতে চেষ্টা করুন। আপনি যদি অপরিচিত গাড়ি বা অপরিচিত লোকেদের সাথে গিয়ে থাকেন, তবে আপনি কোথায় যাচ্ছেন বা আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সম্পর্কে কিছু বলবেন না। 

- আপনার পাসপোর্ট, টাকা এবং ফোন নিজের কাছে রাখুন। 

- একটি মরিচ স্প্রে বা অন্য ধরনের প্রতিরক্ষা সিস্টেম প্রস্তুত রাখুন। 

 

৬. হোটেল, হোস্টেল, এবং গেস্টহাউজ

© 20thcenturyfox

© 20thcenturyfox

হোটেল বা গেস্টহাউসে থাকা সর্বদা সময় কাটানোর একটি সুন্দর মাধ্যম হিসেবে মনে করা হয়। তবুও 5-তারকা হোটেল একটি বিপজ্জনক জায়গা হতে পারে এমন পরিস্থিতিতেও রয়েছে। তাই নিরাপদ থাকার জন্য আপনাকে কি জানতে হবে এবং কী করতে হবে তা এখানে দেওয়া হয়েছেঃ  

- একটি হোটেল বাছাই করার সময়, নিরাপত্তা উপর রিভিউ পড়ুন।    

- আপনার জিনিসপত্র একলা ছেড়ে যাবেন না। 

- সব সময় আপনার পাসপোর্ট এবং টাকা আপনার সাথে রাখুন।

- মূল্যবান জিনিসপত্র নিরাপদে রাখুন। 

- আগুন প্রস্থান খুঁজুন। 

- প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা জরুরী পরিস্থিতিতে, হোটেল কর্মীদের নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

- লুকানো ক্যামেরা রয়েছে কিনা তা চেক করুন। আপনি যদি আপনার গোপনীয়তা যাচাই করতে না চান তবে দরজার ফুটো বন্ধ করুন। 

 

৭. ইন্টারনেট ডেটিং

© WarnerBros

© WarnerBros

- আপনার ডেট করার ব্যাকগ্রাউন্ড গুগল করুন। 

- অন্য কোন ডেটের মতই, আপনি কোথায় যাচ্ছেন এবং কখন ফিরে আসবেন তা আপনার পরিবারকে জানান। 

-  প্রথম ডেটের জন্য ভিড়যুক্ত জায়গাগুলি বাছাই করুন: কফি শপ, রেস্তোরাঁ এবং চলচ্চিত্র থিয়েটার। 

- রাতের ডেটে যেতে অস্বীকার করুন। লাঞ্চের জন্য যাওয়া সেরা বিকল্প হতে পারে। 

- আপনার ব্যক্তিগত বিষয়গুলো নিজের মধ্যে রাখার চেষ্টা করুন। 

- একটি অ্যাপের মাধ্যমে যোগাযোগ করুন, আপনার ফোন নাম্বার ব্যবহার করবেন না। এটি আপনাকে ফোন কল বা ম্যাসেজ হয়রানি থেকে রক্ষা করবে। 

- আপনাদের ডেট যদি সন্ধ্যায় হয় তবে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসার চেষ্টা করুন। নিরাপদে থাকুন। 

 

৮. অনলাইনে কেনাকাটা

© pexels

© pexels

আপনি হয়তো বুঝতে পারেন না যে অনলাইনে কেনাকাটা বা ব্রাউজিং সম্ভাব্য বিপজ্জনক হতে পারে। অনলাইন অপরাধীরা আপনার ডেটা চুরি করতে পারে, আপনার পরিচয় ব্যবহার করতে পারে বা আপনি যেখানে বাস করেন তা খুঁজে বের করতে পারেন। অনলাইন নিরাপদ থাকার জন্য নিম্নলিখিত কাজগুলো অনুসরণ করুনঃ  

- আপ টু ডেট অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করুন। 

- পাবলিক হটস্পট এ কেনাকাটা এড়িয়ে চলুন।

- একটি ডেবিট কার্ডের উপর একটি ক্রেডিট কার্ড বাছাই করুন।

- শক্তিশালী পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনার শপিং অ্যাকাউন্ট রক্ষা করুন। 

- একটি সুপরিচিত শপিং ওয়েবসাইট বাছাই করুন। 

- আপনি একটি অপেক্ষাকৃত অজানা অনলাইন দোকান থেকে কিছু কিনতে হলে, পূর্বে রিভিউগুলো দেখে নিন। 

- অনলাইনে সংবেদনশীল তথ্য (যেমন সামাজিক নিরাপত্তা নম্বর) শেয়ার করবেন না। 

- একটি নিরাপদ পেমেন্ট পদ্ধতি ব্যবহার করুন। 

 

৯. স্মার্টফোন

© App

© App

আমাদের স্মার্টফোন এত স্মার্ট যে সেগুলো আমাদের সম্পর্কে প্রায় সবকিছু জানে। সুতরাং, আপনার স্মার্টফোন যদি চুরি হয়ে যায় তবে সেক্ষেত্রে নিরাপদ থাকার জন্য, আপনাকে এই জিনিসগুলি নিরাপদে রাখা আবশ্যকঃ 

- একটি পাসওয়ার্ড বা অন্য ধরনের লকিং সিস্টেম দিয়ে আপনার ফোন রক্ষা করুন। 

- একটি আপ টু ডেট অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইনস্টল করুন। 

- প্রায়ই আপনার ফটো এবং ভিডিও ব্যাক আপ করুন। 

- আপনার ফোনে কোন সংবেদনশীল তথ্য সংরক্ষণ করবেন না। 

- পাবলিক হটস্পটে আপনার ফোন ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন। 

- আপনার আইফোন যদি চুরি হয়ে যায়, তবে আপনার ফোনটি ট্র্যাক করতে ট্র্যাকিং সিস্টেম চালু করুন। এটি অ্যানড্রইড থাকলে, আপনার ডিভাইসটি কোথায় রয়েছে তা দূরবর্তী অবস্থান থেকে ট্র্যাকিং অ্যাপ্লিকেশনটি ইনস্টল করুন। 

 

১০. সামাজিক মাধ্যম

© pexels

© pexels

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ্লিকেশনগুলো আমাদের জীবনের এমন একটি বড় অংশ যা আমরা সেগুলোকে সম্ভাব্য বিপদ বলে মনে করি না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিরাপদ থাকার জন্য, এই নির্দেশিকা অনুসরণ করুন:    

- আপনি অনলাইনে কি পোস্ট করছেন সে সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। স্পষ্ট ফটোগুলি বা ভিডিওগুলি এড়িয়ে চলুন - সেগুলো চুরি করে অনেকেই সত্যিই খারাপ ভাবে ব্যবহার করতে পারে।

- নিরাপদ পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্টগুলি সুরক্ষিত করুন এবং প্রতিটি অ্যাকাউন্টে বিভিন্ন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। 

- প্রতিটি সামাজিক নেটওয়ার্কের গোপনীয়তা নীতি পরীক্ষা করে দেখুন এবং নিয়মগুলি বজায় রাখুন।

- অপরিচিত ব্যক্তিদের বন্ধু লিস্টে যোগ করবেন না। 

- আপনার প্রোফাইল প্রাইভেট মোডে রাখুন। 

- অসংখ্য একাউন্টের পরিবর্তে কয়েকটি রাখা ভালো। 

 

১১. উৎসব এবং কনসার্ট

© Universal Pictures

© Universal Pictures

সাম্প্রতিক সময়ে কনসার্ট এবং উৎসবগুলোতে কয়েকটি গুরুতর ঘটনা ঘটেছে। তাই এইসব অনুষ্ঠানে নিরাপদ থাকার জন্য এই বিষয়গুলো মনে রাখবেনঃ

- ক্ষতিকারক পদার্থ এড়িয়ে চলুন। বিপদের মুখোমুখি হলে বুদ্ধি খাটান। 

- সঙ্গীদের সাথে সাথেই থাকুন (বন্ধু এবং পরিবার)। 

- কনসার্ট এবং উৎসবে, সবচেয়ে ভিড়যুক্ত জায়গা এড়িয়ে চলুন। বিশেষ করে মাতাল ভিড়। 

- বের হওয়ার জন্য পথ খুঁজে বের করুনঃ যেদিক দিয়ে মানুষ কম সেই দিক দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করুন। 

- একটু আগে বের হওয়ার চেষ্টা করুন। কনসার্ট এবং উৎসবের শেষের দিকে বেশিরভাগ আক্রমণ বা বিপজ্জনক পরিস্থিতি ঘটার সম্ভাবনা বেশী থাকে। 

- উৎসব বা কনসার্টে আপনার বন্ধুদের এবং পরিবারকে দেখানোর জন্য সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং অ্যাপ্লিকেশানগুলি ব্যবহার করুন। 

 

১২. জনসমাগমস্থল

© Disney

© Disney

- সন্দেহজনক লোকের দিকে নজর রাখুন। 

- পরিবহনে যাত্রা করার সময় সর্বাধিক জনবহুল স্থান এড়িয়ে যান এবং রাতের খালি বাস এড়িয়ে চলুন। 

- কেউ আপনাকে হয়রানি শুরু করলে, অবিলম্বে পুলিশকে ফোন করুন।  

- আপনার উপর হামলা বা হয়রানির শিকার হলে সাহায্যের জন্য চিৎকার করুন। 

- সবচেয়ে কাছে অবস্থিত পুলিশ স্টেশনে জানান। 

 

১৩. বিমান, ট্রেন এবং সমুদ্র ভ্রমণ

© WarnerBros

© WarnerBros

- আপনার ফ্লাইট পরিচারক, স্টুয়ার্ড বা ট্রেন পরিচর্যা এর নির্দেশাবলী মেনে চলুন। 

- আপনি যে গাড়ি ব্যবহার করছেন সেটিতে জরুরি অবস্থাগুলি কোথায় অবস্থিত তা জানুন।

- মদ খাওয়া এড়িয়ে চলুন।

- আপনার জিনিসপত্র, বিশেষ করে মূল্যবান বস্তুগুলো আপনার কাছাকাছি রাখুন।

- শিশুদের সাথে নিয়ে ভ্রমণে গেলে, তাদের দিকে মনোযোগ দিন। তাদের সিট নিরাপদ কিনা তা নিশ্চিত করুন। 

- জরুরী অবস্থা থাকলে শান্ত থাকুন। ক্রু আপনাকে কি করতে বলছে তা শুনুন। 

- নিরাপত্তা ভিডিও দেখুন বা ড্রিল নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

- আরামদায়ক জামাকাপড় এবং জুতা পরেন। 



জনপ্রিয়