কীবোর্ডের ট্রিকসগুলো আপনার জীবনকে আরো সহজ করে তুলবে কীবোর্ডের ট্রিকসগুলো আপনার জীবনকে আরো সহজ করে তুলবে

কীবোর্ডের ট্রিকসগুলো আপনার জীবনকে আরো সহজ করে তুলবে

শুধু প্রফেশনাল কাজের জন্যই নয়, সব ধরনের পিসি ব্যবহারকারীর জন্যই কিবোর্ড শার্টকাট জানা থাকা ভালো। সকল অপারেটিং সিস্টেম ও প্রায় সব প্রোগ্রামেই দ্রুত কাজ করার জন্য কিবোর্ড শর্টকাট দেয়া থাকে। সচরাচর ব্যবহারকারীরা মাত্র গুটিকয়েক কিবোর্ড শর্টকাট মনে রাখেন। কিন্তু কাজের সুবিধার্থে দরকারী কিছু কিবোর্ড শর্টকাট মুখস্থ করে রাখলে জীবন অনেকটাই সহজ হয়ে যায়।

তাই আমাদের আজকের আয়োজনে আপনাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি উইন্ডোজ কিবোর্ড শর্টকাট ও সেগুলোর কাজ জানাচ্ছি, যা আপনার কম্পিউটারে কাজের গতি অনেক গুণ বাড়িয়ে দেবে। 

 

পরবর্তী অবস্থায় যাওয়ার জন্য

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্যঃ

অনেকেই জানেন যে, কিছুক্ষণ পূর্বে যে কাজটি করা হয়েছি তা কেটে দিয়েছেন কিন্তু এখন তা আপনার দরকার হয়েছে তখন পূর্বাবস্থায় যাওয়ার জন্য Ctrl + Z ব্যবহৃত হয়, আপনি কি জানেন যে একটি কীবোর্ড সমন্বয় রয়েছে যা এটির বিপরীত কাজ করে? অর্থাৎ, পূর্বাবস্থায় যাওয়ার পর আপনাকে পরবর্তী অবস্থায় যেতে হচ্ছে তখন Ctrl + Y চাপলে আপনি পুনরায় পরবর্তী অবস্থায় ফিরে যেতে পারবেন।    

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য: Command + Shift + Z

 

সক্রিয় উইন্ডোর স্ক্রিনশট

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্যঃ

আপনার কীবোর্ডের Print Screen কীটি পুরো স্ক্রীনের স্ন্যাপশট নিতে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু আপনি যদি সক্রিয় উইন্ডোটির স্ক্রিনশট দ্রুত নিতে চান তবে আপনাকে Alt + Print Screen চাপ দিতে হবে।

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্যঃ Command + Shift + 4, পরে স্পেস কী চাপ দিতে হবে। এটি কার্সর থেকে ক্যামেরা আইকনে কার্সর পরিবর্তন করবে। এখন আপনি যে উইন্ডোটি ক্যাপচার করতে চান সেটি ক্লিক করুন।

 

 স্নিপিং টুল

© brightside

© brightside

শুধুমাত্র উইন্ডোজ 10 এর জন্যঃ

আপনি যদি সক্রিয় স্ক্রিনের অংশগুলি ক্যাপচার করতে চান, তাহলে আপনাকে  Windows logo key + Shift + S চাপ দিতে হবে এবং আপনি যে স্ক্রীনটি সেভ করতে চান সেটির অংশ বাছাই করুন। নির্বাচিত অংশ ক্লিপবোর্ডে সেভ হবে।     

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্যঃ Command + Shift + 4 এটি কার্সরটি একটি তীর থেকে কার্সর পরিবর্তন করবে। এখন আপনি যে উইন্ডোটি ক্যাপচার করতে চান সেটি ক্লিক করুন। আপনি যে অংশটি ক্যাপচার করতে চান তার চারপাশে কার্সরটি সরান এবং টেনে আনুন।  

 

 একটি নতুন ফোল্ডার তৈরি করা

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্যঃ

অধিকাংশ ব্যক্তিই নতুন ফোল্ডার তৈরি করার জন্য সবচেয়ে সাধারণ উপায় হিসেবে মাউস বা ট্র্যাকপ্যাডে ডান-ক্লিক করে এবং পরে নতুন> ফোল্ডার নির্বাচন করে। নতুন ফোল্ডার তৈরি করার সহজ উপায় হল Ctrl, Shift এবং N একসাথে ৩টি বাটন চাপ দেওয়া।

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্যঃ Shift + Command + N. এতে ফাইন্ডারে একটি নতুন ফোল্ডার তৈরি হবে।

 

ইমোজি কীবোর্ড

© brightside

© brightside

শুধুমাত্র উইন্ডোজ 10 এর জন্য: উইন্ডোজ লোগোর বাটন এবং ফুল স্টপ কী চাপ দিলে ইমোজি কীবোর্ড প্রদর্শিত হবে। এটি উইন্ডোজের আগের সংস্করণগুলিতে কাজ করবে না।   

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য: কার্সারটিকে টেক্সট ফিল্ডে রাখুন যেখানে আপনি ইমোজি অন্তর্ভুক্ত করতে চান। এখন সেগুলো অ্যাক্সেস করতে কমান্ড + কন্ট্রোল + স্পেসবার চাপুন।  

 

সব উইন্ডোজ মিনিমাইজ করতে

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্য: আপনি যদি অতি দ্রুত আপনার ওপেন করা সমস্ত উইন্ডো মিনিমাইজ করতে চান তাহলে Windows logo key + M চাপ দিন।

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য: Option + Command + M

 

 উইন্ডোজ লক

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্য: যদি মিনিমাইজ করাটা যথেষ্ট না হয়, তবে আপনি উইন্ডোজ লোগোর বাটন এবং এল বাটনে ক্লিক করে উইন্ডোজ লক করতে পারেন। পুনরায় শুরু করতে আপনাকে আপনার উইন্ডোজ পাসওয়ার্ডে প্রবেশ করতে হবে।

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য: Control + Shift + Power.

 

একটি নতুন ভার্চুয়াল ডেস্কটপ যোগ করুন (উইন্ডোজ 10 এর জন্য)

© brightside

© brightside

আপনি যদি একাধিক অ্যাপ্লিকেশানকে একযোগে খুলতে বা খুব ভিন্ন ধরনের কাজগুলির জন্য আপনার পিসি ব্যবহার করেন তবে ভার্চুয়াল ডেস্কটপগুলি বিশৃঙ্খলমুক্ত এবং সংগঠিত থাকার সুবিধাজনক উপায়গুলো প্রদান করে। একটি নতুন ভার্চুয়াল ডেস্কটপ যোগ করার জন্য, উইন্ডোজ লোগো কী + Ctrl + D টিপুন। উইন্ডোজ লোগো কী+ Ctrl + F4 বর্তমান ভার্চুয়াল ডেস্কটপ বন্ধ করবে।   

 

গুগল ক্রোম

ছদ্মবেশী মোডে ক্রোম খুলুন

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্য: আপনি সম্ভবত জানেন যে Ctrl + N এবং Ctrl + T একটি নতুন উইন্ডো এবং Google Chrome এ একটি ট্যাব খুলতে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু আপনি যদি প্রায়ই ছদ্মবেশী মোডে ক্রোম ব্যবহার করতে চান তাহলে Ctrl, Shift এবং N এই তিনটি বাটন একসাথে চাপ দিন, এতে আপনার কিছু সময় বাঁচাবে।  

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য: Command + Shift + N.

 

মাত্র বন্ধ করা ট্যাব খুলতে

© brightside

© brightside

উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্য: আপনি যদি ভুলক্রমে ট্যাবটি বন্ধ করে ফেলেন, তাহলে আপনি Ctrl + Shift + T চেপে এটি পুনরায় খুলতে পারেন। এতে আপনার পূর্বের বন্ধ করা উইন্ডোজটি ওপেন হবে। ক্রোম আপনার বন্ধ হওয়া শেষ ১০ টি ট্যাব মনে রাখে।    

ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য: Command + Shift + T

 

বোনাসঃ টাইপিং চার্ট

© Shutterstock.com   © Depositphotos.com

© Shutterstock.com © Depositphotos.com

আপনি যখন টাইপিং অনুশীলন শুরু করেন, তখন সঠিক পদ্ধতি অনুসরণ করলে আপনার টাইপিংয়ের গতি বৃদ্ধি পাবে এবং এটি ভুল এড়াতে সহায়তা করবে। টাইপিং শুরু করার জন্য, আপনার বাম হাতের আঙ্গুল এবং আপনার ডান হাতের আঙ্গুলের জন্য হোম কীগুলো চিহ্নিত করুন।      

বাম হাতের আঙ্গুলের জন্য হোম কী: A, S, D, F (A তে ছোট আঙুল থাকবে)

ডান হাতের আঙ্গুলের জন্য হোম কীগুলি: ; (সেমিকোলন), এল, কে, জে (সেমিকোলনের উপর ছোট আঙুল থাকবে )

প্রতিটি আঙুলের নখের রং কীবোর্ডের কীওয়ার্ডের রঙের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। 

যেকোন কী চাপার পরে, আঙ্গুলগুলো তার হোম কী তে পুনরায় আনতে হবে। 

আঙ্গুলগুলো ঠিকমতো রাখার পর শব্দ টাইপ করতে থাকুন। অনুশীলন চালিয়ে যান। শুরুতে যে কীগুলোতে আঙ্গুল রেখেছেন, তা চাপ দিয়ে টাইপ শুরু করুন, এরপর বড় হাতের অক্ষরে এ অক্ষরগুলো টাইপ করার চেষ্টা করুন। এরপর নিচের সারির কীগুলো নখের রং অনুযায়ী টাইপ করুন একই সাথে উপরের সারিতে আঙ্গুল রেখে এভাবে টাইপ করার চেষ্টা চালিয়ে যান। এবার কীবোর্ডের দিকে না তাকিয়েই কীগুলো চেপে টাইপ করার চেষ্টা করতে পারেন।

শুরুতে কঠিন মনে হলেও লেগে থাকুন। ধীরে ধীরে আপনার টাইপিং স্পিড দ্রুত বেড়ে যাবে।

 



জনপ্রিয়