কিম জং উন-এর কিশোর আনন্দ স্কোয়াড সম্পর্কে জানলে চমকে যাবেন! কিম জং উন-এর কিশোর আনন্দ স্কোয়াড সম্পর্কে জানলে চমকে যাবেন!

কিম জং উন-এর কিশোর আনন্দ স্কোয়াড সম্পর্কে জানলে চমকে যাবেন!

বর্তমান বিশ্ব খুব বিশৃঙ্খলার মধ্যে আছে। এমন কিছু দেশ এবং মানুষ আছে যারা সারা বিশ্ব জুড়ে তাদের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করতে চায় এবং এগুলি খুবই নিষ্ঠুর। কিম জং-উন সম্ভবত সেই ব্যক্তি যিনি বর্তমানে এরকম একটি সেনাবাহিনীকে নেতৃত্ব দেন। উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক যিনি পারমাণবিক হুমকি, তার দেশের জনগণের জন্য অদ্ভুত নিয়ম এবং এরকম অনেক কিছু করার জন্য কুখ্যাত। এমন কিছু আছে যা আমরা জানি এবং তারপরেও আমরা অনেক কিছুই জানি না। কিশোর আনন্দ স্কোয়াড কিংবা টিনেজ প্লেজার স্কোয়াড এরকমই একটি ব্যাপার!

চলুন  কিম জং-উন-এর  কিশোর আনন্দ স্কোয়াড কিংবা টিনেজ প্লেজার স্কোয়াড সম্পর্কে জেনে আসি।

 

কিশোর আনন্দ স্কোয়াড কিংবা টিনেজ প্লেজার স্কোয়াড এমন একটা ব্যাপার যা যে কাউকে ভয়ানকভাবে চমকে দিতে পারে।অনেকে সহজেই নাম থেকে অর্থোদ্ধার করতে পারেন, এটি ১৩ থেকে ১৫ বছর বয়সী কিশোরী মেয়েদের একটি গ্রুপ। এই কিশোর এবং তরুণ মেয়েরা কুমারী প্রত্যয়িত হয় (দলে নেওয়ার আগে আক্ষরিকভাবে তাদের কুমারীত্ব পরীক্ষা করা হয়) এবং একটি সুন্দর মুখ, একটি নরম এবং মেয়েলি কন্ঠ আছে এবং ১৭০ সেমি লম্বা হতে হবে। তাদের কাজ তাদের একনায়কের চাহিদার দেখাশোনা করা, সেটা যৌনতা বা অন্যকিছু হতে পারে। 

source: internet

source: internet

 

এই দলটির জন্য স্থানীয় শব্দটি 'গিপ্পুমোজো' যার অর্থ সুখ বা আনন্দ স্কোয়াড। কিম জং-উনের এই দলে কিশোরী মেয়েদের সাবধানে বাছাই করা হয় এবং একবার বাছাই হয়ে গেলে তাদের পরিবার এবং সবকিছু ছাড়তে হয়।

source: internet

source: internet

 

সেখানে তাদের থাকার জন্য একটি ভাল আশ্রয় দেওয়া হয়, জামাকাপড় এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয়তা মেটানো হয়। এবং এর বিনিময়ে, এই অল্পবয়সী মেয়েদের কিম জং-উনের বিনোদনের জন্য সব ধরণের কাজ করতে বলা হয়।  নাচ, মালিশ করা, যৌনসুখ প্রদান এবং এরকম যে কোন কিছু এবং সবকিছু। কেউ যদি মেনে চলতে না পারে, তাহলে তার সাথে সাথে তার পরিবারকেও মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়!

source: internet

source: internet

 

মোট ২,০০০ টি কিশোরী মেয়ে নির্বাচন করা হয় এবং তাদের পরিবারের কাছ থেকে দূরে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের কাজের জন্য বা তাদের যে জায়গা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তার কোন ব্যাখ্যা ছাড়াই। এই অল্পবয়সী মেয়েদের প্রথমে প্রশিক্ষিত করা হয় এবং সেরাদের সেরাকে কিম জং উন-এর কাছে পাঠানো হয়। 

source: internet

source: internet

 

এই স্কোয়াডের সাবেক এক মেয়ের মতে, তাদের এই কাজের সময়কাল ১০ বছর। কাজের সময় তাদেরকে তাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ না করার জন্য বলা হয় এমনকি কিম জং উন-এর প্রতি অনুগত থাকার জন্য দলিলে স্বাক্ষর দিতে হয়! এই সদস্য এটিও প্রকাশ করেন যে এই গোপন জায়গাটি হচ্ছে রাজধানী পিয়ংইয়ং।

source: internet

source: internet

 

কিম জং-উন এর পিতামহ কিম ইল সাং-এর দ্বারা এই আনন্দ স্কোয়াড প্রথম চালু করা হয়। তারপর এটি ই-সাং এর পূর্বসুরী, কিম জং-ইল দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল কিন্তু জং-উন যখন ক্ষমতায় এসেছিলেন তখন এটি বাতিল করা হয়েছিল। তবে ২০১৫ সালে আনন্দ স্কোয়াড আবার মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। সমগ্র জিনিসটি দীর্ঘদিন ধরে গোপন রাখা হয়েছিল কারণ সমগ্র উত্তর কোরিয়াকে লজ্জা দেওয়ার জন্য এই একটি কারণ যথেষ্ট ছিল।

source: internet

source: internet

 

একবার কিশোরী মেয়েদের বয়স ২৫ বছর হলে, তাদের অবসর নেওয়ার জন্য বলা হয় এবং তারপর অভিজাত এবং কিম জং-উন এর অভ্যন্তরীণ বৃত্তের সদস্যদের সাথে বিয়ে দেওয়া হয়। এই সবকিছু গোপন রাখার পরেও কিছু কিছু ব্যাপার দক্ষিণ কোরিয়াতে চলে গিয়েছে। 

source: internet

source: internet

বাস্তবে আমরা যা শুনি এবং দেখি তার চাইতেও উত্তর কোরিয়ার জীবন কঠিন। কিশোরী মেয়েরা প্রতিদিন যেমন নির্যাতনের মাধ্যমে এবং পরমাণু হামলার দৈনন্দিন হুমকি দিয়ে যাচ্ছে, আমরা শুধু আশা এবং প্রার্থনা করতে পারি আগামীর দিনগুলো যেন ভালো হয়।

 

এই নতুন ব্যাপারটি জেনে আপনাদের কেমন লাগলো? আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না।

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়