অস্ট্রেলিয়া শুধু আলাদা দেশ নয়, এটা একটা আলাদা জগত! অস্ট্রেলিয়া শুধু আলাদা দেশ নয়, এটা একটা আলাদা জগত!

অস্ট্রেলিয়া শুধু আলাদা দেশ নয়, এটা একটা আলাদা জগত!

আমরা সবসময় নতুন জায়গা অন্বেষণ করতে ভালোবাসি এবং বিশ্বের বিভিন্ন অংশের জীবন সম্পর্কে শিখতে ভালোবাসি। আজ আমরা জানবো এই পৃথিবীর সম্পূর্ণ অন্যরকম এক জায়গা অস্ট্রেলিয়া সম্পর্কে। আপনারা এর আগেও অস্ট্রেলিয়া সম্পর্কে আমাদের কাছ থেকে জেনেছেন কিন্তু এই দেশ এতো বৈচিত্র্যময় যে এর সবকিছু একবারে জানা অসম্ভব। তাই আমরা নতুন নতুন তথ্য নিয়ে আপনাদের কাছে হাজির হই। 

 

“G’day, mate” এটা অস্ট্রেলিয়ান ভাষার একটি উদাহারণ

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

আপনি যদি ইংরেজি বলতে পারেন, আপনি সহজেই Ozenglish শিখতে পারেন (Ozzy + English)।  অস্ট্রেলিয়ানরা কথা বলতে, আড্ডা দিতে অনেক পছন্দ করে কিন্তু তারা দীর্ঘ বাক্য বলতে অনাগ্রহী। তাই তারা সবকিছু ছোট করে বলে। কিছু উদাহারণ নিচে দেওয়া হল-

Australia — Straya

Mosquitos — Mozzies

Definitely — Defo

Afternoon — Arvo

দেখলেন খুব সহজ! 

 

উম্ব্যাটস

source: Photobucket

source: Photobucket

উম্ব্যাটস আকারে বিশাল এক থলিবাহী মজার প্রাণী। তাদের পা ছোট এবং তারা হেলে দুলে চলে। কিন্তু তারা ঘন্টায় ২৫ মাইল যেতে পারে। মজার ব্যাপার হলো তাদের মলত্যাগের বিষয়টা। তারা ঘাস খায় এবং তাদের মলগুলো হয় চারকোণা। এদের পূর্বপুরুষেরা বরফযুগে গন্ডারের সমান ছিল। তাহলে চিন্তা করুন তাদের মলের আকার কতো বড় ছিল!

 

পাভলোভা

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

পাভলোভা কেক নিয়ে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে অনেকদিনের দ্বন্দ্ব। দুই দেশেই এই কেক অত্যন্ত জনপ্রিয়। ডিমের শ্বেতাংশ ও চিনি দিয়ে তৈরী কেক এবং উপরে আইসক্রিম ও তাজা ফল থাকে। বিশেষ জনপ্রিয় রাশিয়ান ব্যালেরিনা "আনা পাভলোভা"-এর নামে এই কেকের নামকরণ করা হয়েছে। বলা হয় ব্যালেরিনার মতই এই কেক অনেক হালকা।

 

উট

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

আপনি কি জানেন অস্ট্রেলিয়া বিশ্বের সবচেয়ে বড় উটের পালের বাসস্থান। পরিবহন এবং ভারী কাজের জন্য ঊনবিংশ শতাব্দীতে উট আমদানি করা হয়েছিল এবং তারা অস্ট্রেলিয়াকে খুব পছন্দ করেছে। বর্তমানে এখানে প্রায় ৭,৫০,০০০ উট রয়েছে। এটা কৃষকদের জন্য বেশ মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে কারণ বন্যপ্রাণীর ভারসাম্যের উপর তারা গুরুতর প্রভাব ফেলছে। তাদের মধ্যে অনেক আছে যে অস্ট্রেলিয়া তাদের মধ্যপ্রাচ্যে ফিরিয়ে দিয়েছে।

 

ক্যাঙ্গারু

source: internet

source: internet

আপনি কি জানেন অস্ট্রেলিয়াতে ৬০টির বেশি ক্যাঙ্গারুর প্রজাতি রয়েছে। একটি বাচ্চা ক্যাঙ্গারু যাকে অস্ট্রেলিয়াতে 'জোয়ি' বলা হয় চালের মতো ছোট হতে পারে কিংবা মৌমাছির মতো ০.২ থেকে ০.৯ ইঞ্চি বড় হতে পারে (সান ডিয়েগো চিড়িয়াখানার মতে)। এটি মায়ের থলেতে ১২০ থেকে ৪৫০ দিন থাকে।

 

ওয়ালাবিস

© Eastnews.ru

© Eastnews.ru

ওয়ালাবিস ছোট ক্যাঙ্গারু নয়, তারা সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি প্রাণী। তারা ক্যাঙ্গারু থেকে অনেক ছোট এবং তাদের মাথার আকৃতি ভিন্ন। অস্ট্রেলিয়াতে আফিম চাষ বৈধ করে দেওয়ার পর ওয়ালাবিসদের একটা খারাপ স্বভাব হয়েছে। তারা পপি মাঠে গিয়ে আফিম খেয়ে গোল হয়ে ঘুরতে থাকে! অনেকেই বোঝে না তারা এরকম কেন করছে!

 

অস্ট্রেলিয়াতে স্ক্রিনের দরজাগুলি শুধু মশার জন্য নয় ... তারা সাপ থেকেও রক্ষা করে।

© pennycanrules / imgur

© pennycanrules / imgur

আমরা সবাই জানি যে অস্ট্রেলিয়ার অনেক বিষাক্ত সাপ রয়েছে - আসলে, পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি বিষাক্ত ২৫টি সাপের ২১টি অস্ট্রেলিয়াতে বাস করে। কিন্তু পরিসংখ্যান মতে বছরে গড়ে মাত্র ২ জন সাপের কামড়ে মারা যায়। বেশিরভাগ মানুষ সাপ ধরতে বা মারতে গিয়ে মারা যায় কারণ তখন সাপের নিহে বাঁচার জন্য আক্রমণ করা ছাড়া আর কোন উপায় থাকে না। নিয়মটা খুব সহজ- বন্যপ্রাণীদের শান্তিতে থাকতে দিন। 

 

"না, আমি আজ দাঁত ব্রাশ করছি না!"

© LesbiansAwwYiss / imgur

© LesbiansAwwYiss / imgur

অস্ট্রেলিয়া পাইথনের জন্য একটি স্বর্গীয় আবাস, এবং যদিও তারা বড় বড় হতে পারে, তবে সাধারণত তারা মানুষের জন্য হুমকি নয় - তারা আক্রমণাত্মক নয় এবং বিষাক্ত নয়। তারা যে কোন জায়গায় থাকতে পারে। আসলে, বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে অস্ট্রেলিয়ায় কিছু কিছু রাজ্যে, প্রায় ৮০% ঘরগুলির ছাদের উপরে বা বাড়ির পিছনে একটি পাইথন থাকে! তারা চিকা এবং ইঁদুর দূরে রাখে। তারা একবার খাওয়ার পর সপ্তাহ বা মাস না খেয়ে এক জায়গায় থাকতে পারে।

 

একটি প্রজন্মের চুরি!

© Peter Spillett / wikimedia.org

© Peter Spillett / wikimedia.org

এটি অস্ট্রেলিয়ার ইতিহাসে খুবই দুঃখজনক একটি ঘটনা কিন্তু  ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আমরা এটা উল্লেখ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিকে, সরকার সিদ্ধান্ত নেয় যে আদিবাসী শিশুদের জন্য সাদা জনগোষ্ঠীতে বসবাস করা ভাল হবে। ১৯১০ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত হাজার হাজার আদিবাসী শিশুকে তাদের পরিবার থেকে দূরে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে যেতে বাধ্য করা হয়। বলার অপেক্ষা রাখে না, বাচ্চারা এবং তাদের পরিবারের অনেক ক্ষতি হয়েছে। কিছু বছর আগে প্রধানমন্ত্রী আদিবাসী সম্প্রদায়ের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন এবং হাজার হাজার অস্ট্রেলিয়ানরা এটি সমর্থন করেছিল। 

আমাদের সবসময় অন্যান্য সংস্কৃতি ও জাতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত এবং আমরা দুঃখিত বলার মতো সাহসী হতে হবে।

 

একটি গোলাপী হ্রদ

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

এই গোলাপী হ্রদ পর্যটকদের জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় গন্তব্যগুলির মধ্যে একটি। গবেষকরা এখনও তার "স্ট্রবেরি মিল্কশেক" রঙের কারণ কি তা১০০% নির্দিষ্ট না, কিন্তু তারা বিশ্বাস করে এটা আসলে ব্যাকটেরিয়া,  মাইক্রোলোজি না। লেক হিলিয়ারের জল বিশ্বের সবচেয়ে বেশি লবণাক্ত পানির মধ্যে অন্যতম এবং খুব কম প্রাণী এখানে বেঁচে থাকতে পারে।

 

উলুরু

© Depositphotos.com   © Eastnews.ru

© Depositphotos.com © Eastnews.ru

উলূর আরেক বিখ্যাত অস্ট্রেলিয়ান ল্যান্ডমার্ক। এটি একটি বিশাল শিলা যা প্রায় ৬০০ মিলিয়ন বছর পুরনো এবং গবেষকরা বিশ্বাস করেন যে এটির ২০৫ কিমি ভূগর্ভস্থ। এই শিলা দিনের বিভিন্ন সময়ে রঙ পরিবর্তন করতে পারে এবং এক বছরে একটি গাঢ়-গোলাপী একটি উজ্জ্বল লাল রঙে বদলে যায়! দেখলে মনে হয় একটা হাতি এক পাশ হয়ে শুয়ে আছে।আদিবাসী জনগোষ্ঠীর জন্য এটি একটি পবিত্র স্থান এবং "আনুগু" জনগোষ্ঠী এই ভূমির আসল মালিক।

 

সমুদ্র সৈকত

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

অস্ট্রেলিয়া বিশাল লম্বা 75-মাইল সমুদ্র সৈকত সহ অসংখ্য অসংখ্য সমুদ্র সৈকতের জন্য বিখ্যাত। প্রকৃতপক্ষে আপনি যদি প্রতিদিন একটি করে সৈকতে ঘুরতে চান আপনার মোট ২৯ বছর সময় লাগবে! তাই এটা আশ্চর্যের ব্যাপার নয় যে প্রতি ৫ জনের ৪ জন অস্ট্রেলিয়ান উপকূল থেকে ৫০ কিলোমিটার কম দূরে বাস করে।

 

স্ট্রোমাটোলাইটস

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

স্ট্রোমাটোলাইটস নীল সবুজ শেত্তলা দ্বারা তৈরি মাইক্রোবাইল। এই রিফগুলি খুব ধীরে ধীরে গড়ে ওঠে। ১ মিটার গড়ে ওঠতে ২ থেকে ৩ হাজার বছর সময় লাগে। তাই এটি একটি বিস্ময়কর ব্যাপার নয় যে ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়ায় পাওয়া স্ট্রোমটোলাইট পৃথিবীতে প্রাচীনতম এবং বৃহত্তম জীবন্ত জীবাশ্ম।

 

এবং একটি বোনাস

© depositphotos.com

© depositphotos.com

বিশ্ব একটি বিড়াল যা অস্ট্রেলিয়ার সাথে খেলা করছে!

 

অস্ট্রেলিয়া এমন একটি অনন্য জায়গা যা আপনি কখনোই একটি নিবন্ধতে লিখে শেষ করতে পারবেন না। আপনি কি আমাদের নিবন্ধ থেকে নতুন কিছু শিখেছেন? আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না।

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়