প্রতিদিনের ছোঁয়া সবচেয়ে ময়লা জিনিসগুলো(সাবধানঃ কিছু আপনাকে চমকে দিবে!)  প্রতিদিনের ছোঁয়া সবচেয়ে ময়লা জিনিসগুলো(সাবধানঃ কিছু আপনাকে চমকে দিবে!)

প্রতিদিনের ছোঁয়া সবচেয়ে ময়লা জিনিসগুলো(সাবধানঃ কিছু আপনাকে চমকে দিবে!)

এটা বিস্ময়কর নয় যে দুনিয়া লক্ষ লক্ষ ব্যাকটেরিয়ায় পূর্ণ একটি ময়লা জায়গা। তবে, আপনি আশ্চর্য হবেন যখন জানবেন আপনার ঘরে এবং জনসাধারণের মধ্যে সবচেয়ে ময়লা জিনিস কোনগুলো। আপনি কি তালিকা পড়ার পরে এই জিনিসগুলো দ্বিতীয়বার ধরার আগে ভাববেন এবং হাত ধুতে আর ভুলবেন না!

চলুন তাহলে জেনে আসা যাক প্রতিদিনকার ছোঁয়া সবচেয়ে ময়লা জিনিসগুলো সম্পর্কে।

 

১৪. দরজার হাতল

source: internet

source: internet

যদিও আধুনিক দরজার হাতল সাধারণত ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী করে ডিজাইন করা হয় তবুও এই ধরনের প্রতিরক্ষা সবসময় কার্যকর হয় না। 

 

১৩. ফ্রিজের হাতল

source: internet

source: internet

সত্যি করে বলুন তো আপনি আপনার ফ্রিজের হাতল কতবার পরিষ্কার করেন? মনে হয়, কখনোই না, কিন্তু এটা আপনার বিবেচনায় রাখতে হবে। , কারণ এখানে প্রায়ই একই ব্যাকটেরিয়া থাকে যা পোল্ট্রি এবং শুয়োরের ফার্মে থাকে!

 

১২.এটিএম

source: internet

source: internet

সাম্প্রতিক গবেষণায় পাওয়া যায় যে এটিএমগুলিতে উচ্চ মাত্রায় ব্যাসিলাস এবং সিউডোমনাড আছে, দুটি ব্যাকটেরিয়া যা অসুস্থতা ও ডায়রিয়া সৃষ্টি করে। আরও আকর্ষণীয় ব্যাপার হলো একই ব্যাকটেরিয়া পাবলিক টয়লেটে প্রচুর পাওয়া যায়!

 

১১. রিমোট কন্ট্রোল

source: internet

source: internet

বাড়িতে আপনার রিমোট কন্ট্রোলের পরিচ্ছন্নতা আপনার নিজের ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধির উপর নির্ভর করবে, তবু জেনে রাখুন হাসপাতাল, হোটেল ইত্যাদিতে পাবলিক রিমোটগুলি অত্যন্ত ময়লা হয়। 

 

১০. টয়লেট সিট

source: internet

source: internet

আপনারা হয়তো মনে করেছিলেন এটা সবচেয়ে বেশী ময়লা জিনিস, আসলে তা না। তবুও এখানে ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা নিত্যন্তই কম নয়।

 

৯. সেলফোন বা মোবাইল ফোন

source: internet

source: internet

হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন, এটি টয়লেট সিটের চেয়েও বেশি ময়লা। এই কারণটি হল যে ফোনগুলি সাধারণত উষ্ণ হয় এবং টিভি রিমোটগুলির মতো, ব্যাকটেরিয়ার জন্য লুকিয়ে থাকার অনেকগুলি জায়গা আছে।

 

৮. বাথটাব

source: internet

source: internet

যতক্ষণ না আপনি আপনার বাথটনের সাপ্তাহিক পরিষ্কার করছেন, ততক্ষণ আপনার ড্রেনের চারপাশে যা কিছু থাকে, শৌচাগারে যেগুলি পাওয়া যায় তার চাইতেও অবস্থা বেশি খারাপ হবে! স্ট্যাফ ইনফেকশন, নিউমোনিয়া, সেপ্টিসিমিয়া এবং মূত্রনালীর সংক্রমণ নোংরা বাথটাব থেকে সৃষ্টি।

 

৭. লাইটের সুইচ

source: internet

source: internet

লাইটের সুইচও কিন্তু কখনো পরিষ্কার করা হয় না। এতো বছর ধরে বারবার অফ অন করার কারণে এখানে প্রতি বর্গ ইঞ্ছিতে ১০০ এরও বেশি ব্যাকটেরিয়া থাকে। 

 

৬. লিফটের বাটন

source: internet

source: internet

এখানে এটি দেখে খুব আশ্চর্যজনক হতে হবে না। তারা প্রায়শই প্রায় বেশিরভাগ লাইটের সুইচগুলির মতো, কিংবা আরো বেশি ব্যবহার করা হয়।

 

৫. টাকা

source: internet

source: internet

সাধারণত বলতে গেলে ছোট ছোট নোটগুলোতে বেশি জীবাণু থাকে, কারণ এগুলো সবচেয়ে বেশি হাতবদল হয়।  কাগজ অর্থের একটি এলোমেলোভাবে স্যাম্পলড স্ট্যাশিং বিশ্লেষণের পরে, ওহিওর রাইট প্যাটারসন মেডিকেল সেন্টারের গবেষকরা দেখেছিলেন যে বেশিরভাগ কাগজ বিলগুলি একটি সংক্রামিত ইমিউন সিস্টেম (এইচআইভি বা ক্যান্সারসহ) কিছু গুরুতর সমস্যার জন্য যথেষ্ট ব্যাকটেরিয়া রাখে।

 

৪. এস্কেলেটরের হাতল

source: internet

source: internet

বিশ্বের সবচেয়ে বেহুদা ব্যাকটেরিয়া আক্রান্ত জিনিসের শীর্ষে আছে এটি।

 

৩. কিবোর্ড

source: internet

source: internet

আপনি যদি আপনার স্থানীয় লাইব্রেরীতে ওয়েব সার্ফিং করার পরে আপনার হাত না ধুয়ে থাকেন তবে আপনি আপনার হাত কখনোই ধৌত করবেন না কারণ এখানে পৃথিবীর সবচেয়ে খারাপ ব্যাকটেরিয়াগুলো থাকে! স্টাফ এবং ই। কোলির মতো ব্যাকটেরিয়া এর উপরে থাকে।

 

২. রান্নাঘরের সিংক

source: internet

source: internet

প্রতি বর্গ ইঞ্চিতে অর্ধ মিলিয়ন ব্যাকটেরিয়া সঙ্গে, এটি অবশ্যই আপনার বাড়ি্র সবচেয়ে বেশি ময়লা জায়গাগুলোর একটি। কোন সন্দেহ ছাড়াই এটি আপনার বাথরুমের চেয়ে অনেক অনেক বেশি ময়লা!

 

১. আপনার মুখ

source: internet

source: internet

খেলার মাঠের বেশিরভাগ জীবাণু, লিফটের মধ্যে এবং আপনার কীবোর্ডের উপরে যেসব জীবাণু থাকে তা সব একটা জায়গা থেকে এসেছে আর তা হলো আপনার মুখ। প্রতি বর্গ ইঞ্চিতে দশ লক্ষ ব্যাকটেরিয়া থাকে!  ৭০০ প্রজাতির বেশি ব্যাকটেরিয়া আপনার মুখকে ঘর মনে করে! কিন্তু মনে রাখবেন, সব জীবাণু খারাপ নয়। আসলে, আপনার শরীর "ভাল" ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে দল বেঁধে আপনার খাদ্য হজমে সাহায্য করে এবং খারাপ ব্যাকটেরিয়ার সাথে যুদ্ধ করে আপনার থেকে তাদের দূরে সরিয়ে রাখার চেষ্টা করে।

 

আমাদের লক্ষ্য থাকে সবসময় নতুন কিছু আপনাদের জানানোর। আপনার নতুন কিছু জানতে পারলে আমাদের আয়োজন সফল হয়। আমাদের এই আয়োজন আপনাদের কেমন লেগেছে তা কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। 

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

 

 

 

 



জনপ্রিয়