বিভিন্ন ভাষায় হ্যালো বলার ধরন বিভিন্ন ভাষায় হ্যালো বলার ধরন

বিভিন্ন ভাষায় হ্যালো বলার ধরন

সারা পৃথিবীতে বিভিন্ন ভাষাভাষীর মানুষ রয়েছেন। আসুন জেনে নেওয়া যাক বিভিন্ন ভাষায় হ্যালো বলার ধরন কেমন।

 

ইতালি

© Capital Film

© Capital Film

ইতালি ভাষায় কল ধরার পর বলা হয় “প্রন্টো”। যার অর্থ দাড়ায় “প্রস্তুত”।

 

জার্মানি

© Hager Moss Film

© Hager Moss Film

জার্মানিরা কল ধরেই নিজের নাম বলে, যাতে অপর প্রান্তে থাকা ব্যক্তি বুঝতে পারেন কলটি কে ধরেছেন।

 

জাপান

© depositphotos

© depositphotos

“মোশি মোশি” শব্দটি জাপানিজ মসিমাসু মসিমাসু থেকে এসেছে। যার অর্থ হচ্ছে “আমি বলছি আমি বলছি”।

 

গ্রীস

© Warner Bros.

© Warner Bros.

পারাকালো শব্দের অর্থ হল “শান্তি”। গ্রীকরা কল ধরেই প্রথমে এটি বলে।

 

চীন 

© depositphotos

© depositphotos

“ওয়ি” শব্দটি চাইনিজরা ব্যবহার করে থাকে যার অর্থ “বল”।

 

কোরিয়া

© depositphotos

© depositphotos

মেয়েটির মুখের অভিব্যক্তি বলে দিচ্ছে “এদিকে দেখ”।

 

ইসরায়েল

© depositphotos

© depositphotos

ইসরায়েলিয়রা “শালম” শব্দটি ব্যবহার করে থাকে যার অর্থ “শান্তি”।

 

স্পেন

© rexfeatures

© rexfeatures

একজনের ক্ষেত্রে “দিগা” এবং বহুবচন হলে “দিগামি” শব্দদ্বয় ব্যবহারের মাধ্যমে অভিবাদন জানানো হয়ে থাকে।

 

সার্বিয়া এবং মন্টেনেগ্রো

© depositphotos

© depositphotos

“মলিম” শব্দের অর্থ “শান্তি”।

 

মেক্সিকো

© depositphotos

© depositphotos

“বুয়েনো” শব্দের অর্থ হচ্ছে “ভাল”।

 

তুরস্ক

© depositphotos

© depositphotos

এই শব্দটি তুর্কিরা কল রিসিভ করার পরে উচ্চারণ করে থাকেন। অন্য সময় শব্দটির ব্যবহৃত অর্থ হচ্ছে “আমার প্রভু” বা “আমার স্যার”।

 

ইন্ডিয়া

© depositphotos

© depositphotos

ভারতবর্ষে প্রচলিত অত্যন্ত সুপ্রাচীন শব্দ এটি এবং কেউ বলতে পারেনা কবে থেকে শব্দটি অভিবাদন হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

হিন্দুরা একজনের সাথে আরেকজনের দেখা হলে অভিবাদন হিসেবে শব্দটি ব্যবহার করে থাকেন। তারা বিশ্বাস করেন এটি তাদের মন্দ শক্তি থেকে রক্ষা করবে।

 

আমাদের সবসময় লক্ষ্য থাকে সবসময় নতুন কিছু আপনাদের জানানোর। আপনারা নতুন কিছু জানতে পারলে আমাদের আয়োজন সফল হয়।

আমাদের আয়োজন ভালো লাগলে লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের মাধ্যমে আমাদের সাথেই থাকুন। আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।



জনপ্রিয়