এই ১০ টি লক্ষণ বলে দিবে আপনার কিডনি ঠিকঠাক কাজ করছে না

   এই ১০ টি লক্ষণ বলে দিবে আপনার কিডনি ঠিকঠাক কাজ করছে না   এই ১০ টি লক্ষণ বলে দিবে আপনার কিডনি ঠিকঠাক কাজ করছে না

কিডনি দেহের গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। কিডনি রোগ খুব নীরবে শরীরের ক্ষতি করে। খুব জটিল অবস্থা না হওয়া পর্যন্ত সাধারণত লক্ষণগুলো ভালোভাবে প্রকাশও পায় না। তাই কিডনি রোগের প্রাথমিক লক্ষণগুলো আগে থেকেই জেনে রাখা জরুরি। আজকের আয়োজনের এই ১০ টি লক্ষণ বলে দিবে আপনার কিডনি ঠিকঠাক কাজ করছে না। এই লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন। চলুন জেনে নেওয়া যাক লক্ষণগুলো-

১০। পেছনে ব্যথাঃ কিছু কিছু কিডনি রোগে শরীরে ব্যথা হয়। পিঠের পাশে নিচের দিকে ব্যথা হয়। এটি কিডনি রোগের একটি লক্ষণ।

পেছনে ব্যথাপেছনে ব্যথা

৯। ছোটো ছোটো শ্বাসঃ কিডনি রোগে শরীরে রক্তশূন্যতা ও ফুসফুসে তরল পদার্থ জমা হয়। ফলে শ্বাসের সমস্যা হয়, তাই অনেকে ছোট ছোট করে শ্বাস নেওয়া কিডনি রোগের লক্ষণ।

ছোটো ছোটো শ্বাসছোটো ছোটো শ্বাস

৮। বমি বা বমি বমি ভাবঃ রক্তে বর্জ্যনীয় পদার্থ বেড়ে যাওয়ায় কারণে বমি ভাব এবং বমি হওয়ার সমস্যা হতে পারে।

বমি বা বমি বমি ভাববমি বা বমি বমি ভাব

৭। ত্বকে র‍্যাশ হওয়াঃ কিডনির সমস্যা হলে, রক্তে বর্জ্য পদার্থ বাড়তে থাকে। ফলে ত্বকে চুলকানি এবং র‍্যাশ তৈরি হতে পারে।

ত্বকে র‍্যাশ হওয়াত্বকে র‍্যাশ হওয়া

৬। সবসময় শীত বোধ হওয়াঃ কিডনিতে সংক্রমণ হলে গরম আবহাওয়াতেও শীত শীত অনুভব হয়, এমনকি জ্বরও আসতে পারে।

 

সবসময় শীত বোধ হওয়াসবসময় শীত বোধ হওয়া

৫। কাজে মনোযোগ দিতে অসুবিধা হওয়াঃ লোহিত রক্তকণিকা কমে যাওয়ার ফলে, কাজে মনোযোগ দিতে অসুবিধা হয়।

কাজে মনোযোগ দিতে অসুবিধা হওয়াকাজে মনোযোগ দিতে অসুবিধা হওয়া

৪। দেহে ফোলা ভাবঃ কিডনি শরীর থেকে বর্জ্য এবং বাড়তি পানি বের করে দেয়। কিডনিতে রোগ হলে এই বাড়তি পানি বের হতে সমস্যা হয়। ফলে শরীরে ফোলা ভাব দেখা দেয়।

দেহে ফোলা ভাবদেহে ফোলা ভাব

৩। প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়াঃ প্রস্রাবের সাথে রক্ত গেলে এটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।এমন হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি লক্ষণ।

প্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়াপ্রস্রাবের সাথে রক্ত যাওয়া

২। প্রস্রাবের সময় ব্যথাঃ প্রস্রাবের সময় ব্যথা হওয়া কিডনির সমস্যার আরেকটি লক্ষণ।

প্রস্রাবের সময় ব্যথাপ্রস্রাবের সময় ব্যথা

১। প্রস্রাবে পরিবর্তনঃ কিডনি রোগের একটি বড় লক্ষণ হলো প্রস্রাবে পরিবর্তন হওয়া। রাতে এই সমস্যা বৃদ্ধি পায়। প্রস্রাবের রং গাঢ় হয়। অনেক সময় প্রস্রাবের বেগ অনুভব হলেও প্রস্রাব হয় না।

প্রস্রাবে পরিবর্তনপ্রস্রাবে পরিবর্তন

কিডনি আমাদের শরীরের অতি প্রয়োজনীয় একটি অংশ, এটির যথাযথ যত্ন নিন। আর এই সমস্যাগুলো দেখা দিলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিন। শেয়ার করে সবাইকে দেখার ও জানার সুযোগ করে দিন, যাতে কিডনি রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি পায়।

 

সূত্রঃ ব্রাইট সাইড।

Category : বিনোদন
Share This Post