ননতুন বাড়িতে এই ছোট বিষয়টা সংযুক্ত করা মানবজাতিকে দূর ভবিষ্যতে বাঁচিয়ে দিতে পারে! ননতুন বাড়িতে এই ছোট বিষয়টা সংযুক্ত করা মানবজাতিকে দূর ভবিষ্যতে বাঁচিয়ে দিতে পারে!

নতুন বাড়িতে এই ছোট বিষয়টা সংযুক্ত করা মানবজাতিকে দূর ভবিষ্যতে বাঁচিয়ে দিতে পারে!

বন্যপ্রাণী ট্রাষ্ট অফিসার, অ্যাডাম করমেক, ছোট একটা বিষয়ের কথা শেয়ার করে দারুণ ভাইরাল হয়ে গেছেন, নতুন বাড়িতে একটা ছোট বিষয় যোগ করা যার নাম "বী ব্রিক" বা মৌমাছি ইট। পতঙ্গবান্ধব এই বুদ্ধি যোগ করা মানে হলো মৌমাছির জন্য আবাসের ব্যবস্থা করা, এটা সবাই এতই পছন্দ করেছে যে তার লেখাটি এখন পর্যন্ত ১০০০০ বার শেয়ার করা হয়েছে।

আমরা এই বিষয়টা নিয়ে আরো বিশদভাবে জানতে চেয়েছিলাম এবং দারুণ বুদ্ধিমান এই আইডিয়াটা নিয়েই আজ আপনাদের বলবো!

বী ব্রিক্স কি এবং কিভাবে কাজ করে?

@everydaycormack

@everydaycormack

অ্যাডাম নিজের নতুন বানানো বাড়ির ইটের ফাঁকে কিছু মৌমাছিকে বাসা বানাতে দেখে দারুণ শিহরিত হোন এবং সেটা টুইটারে শেয়ার না করে পারেননি। কমেন্টে অ্যাডাম বলেন, মৌমাছিরা ইটের মাঝের ফাঁকাস্থানে গ্রীষ্মে কিংবা বসন্তের শেষ সময়ে ডিম পাড়ে। কাদামাটির সাহায্যে তারা সেখানে ছোট ছোট দেয়াল তৈরি করে যাতে করে প্রত্যেকটা ডিম আলাদা কক্ষে থাকে।

thehouseatnabend

thehouseatnabend

অ্যাডামের কিছু ফলোয়ার বিষয়টা শেয়ার করেন কারণ তারা মৌমাছিদের ঝুঁকি সম্পর্কে অবগত কিন্তু অ্যাডাম বলেন এটা নিয়ে চিন্তার কিছু নাই। প্রথমত, মৌমাছি ইটে আকৃষ্ট হয় সবচেয়ে কম আগ্রাসী মৌমাছিরা যাদের কোন রানী থাকে না, তারা মধু বানায় না এবং বেশিরভাগ সময় কাটায় ফুলের পরাগায়ন ঘটিয়ে এবং ফুলের মধু পান করে। দ্বিতীয়ত, গর্তের শেষপ্রান্ত পর্যন্ত মৌমাছিরা কখনও যায় না ফলে তাদের ঘরের মধ্যে ঢুকে যাওয়ার সম্ভাবনা নাই।

greenandblueuk

greenandblueuk

মৌমাছির জনসংখ্যা গত কয়েক দশক ধরে ভয়ঙ্করভাবে কমে যাচ্ছে। আমেরিকার এক গবেষণায় জানা গেছে, ১৯৬২ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত মৌমাছির কলোনি হেক্টর প্রতি ৯০% কমেছে। মৌমাছি মারা যাওয়ার অনেক কারণ আছে যার মধ্যে আছে, কৃষকদের ব্যবহৃত কীটনাশক এবং রাসায়নিক পদার্থ খেয়ে ফেলা, তাদের প্রাকৃতিক আবাস ধ্বংস হওয়া।

greenandblueuk

greenandblueuk

মৌমাছি পরাগায়নের সেরা কর্মী, তারা ৭০ শতাংশ শস্যের পরাগায়ন ঘটায় যা থেকে বিশ্বের ৯০ শতাংশ প্রাণীর খাদ্যের যোগান হয়। আমরা যদি মৌমাছিদের হারিয়ে ফেলি তাহলে আমরা শুধু শস্যই হারাবো না বরং আমরা সেই সব প্রাণীদের হারাবো যারা সেইসব শস্যের উপর নির্ভর করে বেঁচে থাকে। সহজ কথায় বললে, মৌমাছি ছাড়া আমাদের এই দুনিয়াকে দেখতে একটা মরুভূমির মত মনে হবে যেখানে জীবন বলতে কিছু নেই।

greenandblueuk

greenandblueuk

আপনি খুব সহজেই বিভিন্ন আকারের এবং নকশার মৌমাছি ইট বানিয়ে নিতে পারেন নিজের নতুন বাড়িতে সংযুক্ত করার জন্য। মনে হতে পারে আপনি একা কিভাবে আর পৃথিবীকে বাঁচাবেন? কিন্তু সবার সামান্য চেষ্টাই একদিন বিশাল আকার ধারণ করবে। 

ঘরে মৌমাছি ইট সংযোজন এবং উঠানে চিনি আর পানির মিশ্রণ রাখুন। ক্লান্ত মৌমাছিরা এসে সেখানে বিশ্রাম নিবে এবং খাবারের খোঁজ পাবে। মনে রাখবেন ছোট এই পতঙ্গ এখন বিপদে আছে এবং ছোট ছোট এই কাজগুলোই আমাদের শেষ সুযোগ একটা পরিবর্তন ঘটানোর এবং এই চমৎকার প্রাণীটাকে বাঁচানোর। 

আপনি কি মনে করেন? এই আবিষ্কার কতটুকু আশা তৈরি করে? আপনি কি নিজের বাড়িতে এমন কিছু সংযুক্ত করবেন? কমেন্টে জানাবেন।



জনপ্রিয়