প্রয়াত বাবাকে স্বর্গের ঠিকানায় লিখে যে হৃদয়ছোঁয়া জবাব পেয়েছে ৭ বছরের বালক!  প্রয়াত বাবাকে স্বর্গের ঠিকানায় লিখে যে হৃদয়ছোঁয়া জবাব পেয়েছে ৭ বছরের বালক!

প্রয়াত বাবাকে স্বর্গের ঠিকানায় লিখে যে হৃদয়ছোঁয়া জবাব পেয়েছে ৭ বছরের বালক!

সুপারম্যানের মতো হিরো হওয়ার জন্য প্যান্টের ওপর আন্ডারওয়্যার পরতে হয় না সবাইকে। প্রত্যেকটা বাবাই তার সন্তানের চোখে হিরো, সুপারম্যান। সেই বাবা অল্প বয়সী সন্তান রেখে পরপারে চলে যাওয়ার পর সন্তানের কি অবস্থা হয়, তা হয়তো যে অল্প বয়সে বাবা হারিয়েছে সে-ই বুঝবে। তেমনই বাবা হারানো এক ছোট্ট বাচ্চার কান্ড নিয়ে গল্প বলবো আজকের আয়োজনে। চলুন...

৭ বছর বয়সী জেসে তার বাবাকে হারিয়েছে কিছুদিন আগেই। বাবার মৃত্যুর পর বাবা ওপর থেকে সব দেখতে পাচ্ছে বলে সে বিশ্বাস করে। সে তার বাবার জন্মদিনে বাবাকে স্বর্গে যাওয়ার জন্য শুভেচ্ছা জানিয়ে পোস্টকার্ড লেখে। পোস্ট কার্ডের ওপরে লিখে দেয়, "মিস্টার পোস্টম্যান, তুমি কি স্বর্গে আমার বাবার জন্মদিনে এটি পৌঁছে দিতে পারবে? ধন্যবাদ।"

কিছুদিন পর রয়াল মেইলের পোস্টম্যান জবাব লিখে জেসেকে পাঠায়, "প্রিয় জেসে, তোমার পোস্টকার্ডটি পৌঁছে দিতে গিয়ে আমরা কিছু ব্যাপার জানতে পেরেছি। তাই আমরা তোমার সাথে যোগাযোগ করে জানাচ্ছি যে আমরা স্বর্গে তোমার বাবার কাছে পোস্টকার্ড পৌঁছে দিয়েছি। যদিও তারকা ও মহাকাশের অন্যান্য বস্তুকে এড়িয়ে স্বর্গে পৌঁছানোর প্রক্রিয়াটি কঠিন ছিলো।

তবুও এই গুরুত্বপূর্ণ পোস্টকার্ড পৌঁছে দিয়েছি আমরা। রয়াল মেইল কায়েন্টদের মেইলের গুরুত্ব দিয়ে দ্রুত ডেলিভার করে। ইতি, সিয়ান মিলিগান"

এমন জবাব কঠিন মানুষেরও হৃদয় গলিয়ে দেয়। এটি প্রমাণ করে পৃথিবীতে মানবতা আছে বলেই ছোট্ট শিশুর মনবেদনাকে গুরুত্বের সাথে নেয়ার মতো মানুষ আজও আছে। জেসের মা ফেসবুকে এই ছবি পোস্ট করে লিখেন, "আমি বুঝিয়ে বলতে পারবো না এটি কেমন আবেগপূর্ণ ব্যাপার যে জেসের বাবা কার্ডটি পেয়েছে বলে জবাব এসেছে। এটি আমার সন্তানের জন্য অনেক বড় আনন্দের ব্যাপার।"

কেমন লাগলো এই আয়োজন? কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ...



জনপ্রিয়