ইউএস নেভির মতে ২ মিনিটের মধ্যে ঘুমানোর উপায়! ইউএস নেভির মতে ২ মিনিটের মধ্যে ঘুমানোর উপায়!

ইউএস আর্মির মতে ২ মিনিটের মধ্যে ঘুমানোর উপায়!

যখন সৈন্যরা সত্যিকারের যুদ্ধক্ষেত্রে থাকেন তখন আমরা অনেক শান্তিতে থাকি এবং নিজেদের সমস্যা নিয়ে লড়াই করছি! কঠিন চাপ, আবেগ সংক্রান্ত জটিলতা, দৈনন্দিন জীবনের অসামঞ্জস্যতার কারণে আমরা অনেকেই ঘুমের অভাবে ভুগি। পরিসংখ্যান অনুযায়ী আমেরিকার ৭০ মিলিয়ন মানুষ ঘুমের ব্যাধিতে ভুগেন। সেই মুহুর্তে শোবার ঘরকে ঠান্ডা রাখা, অন্ধকার করা এবং শান্ত রাখা কোণ কিছুই কাজ করে না। এই কঠিন সময়ে কিছু স্পেশাল ব্যবস্থা নিতে হয়।

ইউএস আর্মির সদস্যরা কিভাবে মাত্র দুই মিনিটে ঘুমিয়ে পড়েন সেই বুদ্ধিটাই আজ আপনাদের জানাবো!

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

শারীরিক এবং মানসিক কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করলে আপনি ১.৫ মিনিট, কারো কারো জন্যে ২ মিনিট, এর মধ্যে ঘুমিয়ে যেতে পারবেন!

ধাপ ১

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

মুখের পেশিকে শিথিল করুন, জিভ, চোয়াল এবং চোখের আশেপাশের পেশী সবই শিথিল করুন!

ধাপ ২

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

কাঁধ যত নিচে নামানো সম্ভব নামান। তারপর একপাশের হাত উপর থেকে নিচ পর্যন্ত শিথিল করুন এবং এরপর অন্যপাশেরটা করুন।

ধাপ ৩

© Depositphotos.com

© Depositphotos.com

শ্বাস বের করে দিন এবং বুক শিথিল করুন। এরপর, নিজের পা শিথিল করুন, উপর থেকে উরু পর্যন্ত এবং এরপর নিচ পর্যন্ত!

ধাপ ৪

inspiration-health

inspiration-health

আগের ধাপগুলো মনে হচ্ছে সহজ এবং এখন আমরা যে ধাপগুলোর কথা বলবো সেগুলো আপনার মন পরিষ্কার করবে!

শিথিল করার ১০ সেকেন্ড পরে, এখন সময় হয়েছে ছেড়ে দেয়ার। ৩ টা ছবি কল্পনা করলে আপনার সব ভাবনা মন থেকে চলে যাবে এবং অন্য ভাবনা আসতেও পারবে না!

ছবি ১ঃ একটা শান্ত হ্রদে নৌকায় শোয়া এবং উপরে নীল আকাশ ছাড়া কিছুই নাই।

tjholleyphotography

tjholleyphotography

ছবি ২ঃ একটা অন্ধকার ঘরে একটা কালো হ্যামকে(দোলনা সদৃশ বিছানা) গড়াগড়ি! 

carolineberesforddesign

carolineberesforddesign

ছবি ৩ঃ 'চিন্তা করবো না, চিন্তা করবো না, চিন্তা করবো না', বার বার এই একই কথা বলা!

inspiration-health

inspiration-health

আপনার কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্র হলো প্রথম বিষয় যা দীর্ঘদিন ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে সবার আগে আক্রান্ত হয়। আরো খারাপ দিকগুলো হলো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া, স্মৃতি হারানো, উচ্চরক্তচাপ, ওজন বেড়ে যাওয়া, এবং আরো অনেক। তো ঝুঁকি কেন নিবেন? এই নতুন পদ্ধতি প্রয়োগ করেই দেখুন। 



জনপ্রিয়