নির্মম কিন্তু সৎ কিছু চিত্রকর্ম দেখাচ্ছে আমরা ইন্টারনেটে কতটা আসক্ত!  নির্মম কিন্তু সৎ কিছু চিত্রকর্ম দেখাচ্ছে আমরা ইন্টারনেটে কতটা আসক্ত!

নির্মম কিন্তু সৎ কিছু চিত্রকর্ম দেখাচ্ছে আমরা ইন্টারনেটে কতটা আসক্ত!

অজিত জনসন নামের এক শিক্ষার্থী, যিনি ক্যান্সার নিয়ে পড়াশুনা করছেন, নিজের আঁকা ছবির সাহায্যে মানুষের মাঝে ভালবাসা এবং আশা ছড়িয়ে দিতে ভালবাসেন। 

তিনি যখন প্রয়োজনের অতিরিক্ত সময় ইন্টারনেট এবং মোবাইল নিয়ে অপ্রয়োজনীয় কাজে ব্যস্ত থাকতেন তখন একটু দেরীতে হলেও তিনি বুঝতে পারলেন এই সময়গুলো অপচয় না করলে তিনি আরো কত বেশি সময় নিজের জন্য ব্যয় করতে পারছেন। 

#this_generation নামের কিছু পোস্টারে তিনি দেখাতে চেয়েছেন এই প্রজন্মের মানুষেরা প্রযুক্তির উপর কতটা আসক্ত। প্রযুক্তি ব্যবহার আমাদের জন্য সত্যি অনেক উপকারী এবং প্রয়োজনীয় কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার ক্ষতি ডেকে আনে, সেই কথাটাই এই শিল্পী বোঝাতে চেয়েছেন।

মতামত

Ajit Johnson

Ajit Johnson

আমরা যেকোন কিছু নিয়ে ইন্টারনেটে খুব জোরালো কন্ঠে প্রতিবাদ করে থাকি। কিন্তু আমাদের অধিকাংশই বাস্তবে তা করতে পারি না! 

কিছু বলা

Ajit Johnson

Ajit Johnson

আগে বলা হতো কিছু বলার আগে ভেবে নিতে, আর এখন কিছু পোস্ট করার আগে আমরা গুগল করি। ভাবার চেয়ে গুগলে কি লেখা আছে সেটাই বেশি অর্থবহন করে।

দুরত্ব

Ajit Johnson

Ajit Johnson

ফেসবুকে আমরা প্রতি মিনিটে লগ ইন করি, ফেসবুক থেকে আমাদের দূরত্ব খুবই কম কিন্তু একটা বই কবে আমরা শেষবার হাতে নিয়েছি সেটা মনে নাই। 

সেলফি আসক্তি

Ajit Johnson

Ajit Johnson

সেলফির প্রতি আমরা এতটাই আসক্ত যে হয়তো যমদূত আমাদের প্রাণনাশ করতে এলে আমরা তার সাথেও একটা সেলফি তুলতে দাঁড়িয়ে যাবো!

জোম্বি মুড

Ajit Johnson

Ajit Johnson

আমরা সবাই যেন জোম্বি সিনেমার জোম্বি হয়ে গেছি, ওয়াইফাই কিংবা ফ্রি ইন্টারনেটের পেছনে ছুটে চলেছি।

দুঃস্বপ্ন

Ajit Johnson

Ajit Johnson

ব্যাটারি লো কিংবা নো ওয়াইফাই এখন একটা দুঃস্বপ্নের নাম। আমরা সবাই এটা থেকে বেঁচে ফিরতে ব্যস্ত।

পড়াশুনা

Ajit Johnson

Ajit Johnson

আগে সবাই কষ্ট করে শিক্ষকের পড়া নোট করে রাখতো, আর এখন শিক্ষকের লেখা শেষ হলে একটা ছবি তুলে নিলেই হয়!

এই প্রজন্মের সমস্যা

Ajit Johnson

Ajit Johnson

খুব অল্প বয়সে এই প্রজন্ম অনেক বড় সমস্যায় নিজেদের ফাঁসিয়ে ফেলে! এর সমাধান তারা ইন্টারনেট জূড়ে খুঁজে বেড়ায়।

লাইক না পাওয়ার ভয়

Ajit Johnson

Ajit Johnson

এখন সবার মাঝে একটা ভয় কাজ করে, আর তা হলো লাইক না পাওয়ার ভয়। বেশি লাইক পাওয়ার জন্য আমরা কতকিছুই না করি।

টয়লেটে সময়ব্যয়

Ajit Johnson

Ajit Johnson

আগে এখানে দুই মিনিটের বেশি থাকাটা কেউ কল্পনা করতো না আর এখন এখানে মানুষ ২০-৩০ মিনিট সময়ও ব্যয় করে ফেলে। 

বেঁচে থাকা!

Ajit Johnson

Ajit Johnson

মানুষ এখন হয়তো পানি ছাড়া বাঁচতে পারবে কিন্তু ইন্টারনেট ছাড়া মনে হয় একমুহুর্ত বাঁচতে পারবে না।

বাচ্চাদের খেলনা!

Ajit Johnson

Ajit Johnson

বাচ্চারা এখন আর আগের খেলনা দিয়ে খেলে না, খেলনা এখন তাদের একটাই আর তা হলো স্মার্টফোন!

সম্পর্কে ভাঙ্গন

Ajit Johnson

Ajit Johnson

এখন সম্পর্ক ভাঙ্গলে মানুষ প্রিয় মানুষটিকে ব্লক করে দেয়!

প্রতিদিন যা পাল্টানো এখন বাধ্যতামূলক

Ajit Johnson

Ajit Johnson

আর কিছু বদলাক আর না বদলাক প্রোফাইল পিকচার বদলানো এখন একটা বাধ্যতামূলক বিষয়। 

প্রসাধনী

Ajit Johnson

Ajit Johnson

নিজেকে সুন্দর করতে এখন আর বাহারী প্রসাধনীর দরকার হয় না, এখন মানুষ ফটোশপ দিয়েই নিজেকে সুন্দর করে তুলছে।

সবচেয়ে বড় মিথ্যা!

Ajit Johnson

Ajit Johnson

অনেক হাসি প্রকাশ করার এই কথাটাই এখন সবচেয়ে বড় মিথ্যা।

কথোপকথন

Ajit Johnson

Ajit Johnson

এখনকার মানুষের কথোপকথন খুবই সংক্ষিপ্ত।

দ্বৈত জীবন

Ajit Johnson

Ajit Johnson

অধিকাংশ মানুষের এখন দুটো জীবন, ফেসবুকে তারা একরকম জীবন কাটায় এবং বাস্তবে ঠিক তার উলটো আরেকটা জীবন।

খাবার হজম করা

Ajit Johnson

Ajit Johnson

সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট না করলে এখন আমাদের খাবার হজম হয় না! এটা এখন আবশ্যক হয়ে দাঁড়িয়েছে!



জনপ্রিয়